RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

রফিক-উল হকের মৃত্যুতে বিসিবির শোক

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:১২, ২৪ অক্টোবর ২০২০  
রফিক-উল হকের মৃত্যুতে বিসিবির শোক

বাংলাদেশের সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বার্ধক্যজনিত জটিলতায় আজ সকাল সাড়ে আটটায় রাজধানীর আদ-দ্বীন হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন শোক জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, ‘ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। বিসিবির বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তার অমূল্য আইনী পরামর্শ এবং সমর্থন আমরা পেয়েছি। তিনি ছিলেন এমন এক জ্ঞানী; যিনি বাংলাদেশের আইনী ব্যবস্থা ও বিচার বিভাগে অবর্ণনীয় অবদান রেখেছেন। আমি বিসিবি’র পক্ষে ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের পরিবারের প্রতি আমাদের আন্তরিক সমবেদনা জানাই।’

গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় ব্যারিস্টার রফিক-উল হককে আদ-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ডা. রিচমন্ড রোল্যান্ড গোমেজের তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছিল।

রফিক-উল হকের জন্ম ১৯৩৫ সালের ২ নভেম্বর কলকাতার সুবর্ণপুর গ্রামে। ১৯৫৫ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক, ১৯৫৭ সালে দর্শন বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ১৯৫৮ সালে এলএলবি পাস করেন। ১৯৬২ সালে যুক্তরাজ্য থেকে বার অ‌্যাট ল’ সম্পন্ন করেন তিনি। ১৯৬৫ সালে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। প্রায় ৬০ বছর এ পেশায় নিয়োজিত ছিলেন এই বর্ষীয়ান আইনজীবী।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে আইনজীবী হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তিনি। ওই সময় তিনি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ অনেক রাজনীতিবিদের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টে আইনি লড়াই করেন।

১৯৯০ সালের ৭ এপ্রিল থেকে ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন রফিক-উল হক। কিন্তু কোনো সম্মানী নেননি। তার জীবনের উপার্জিত অর্থের প্রায় সবই ব্যয় করেছেন মানুষের কল্যাণ ও সমাজসেবায়।

ঢাকা/কামরুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়