Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ০৭ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২২ ১৪২৭ ||  ২২ রজব ১৪৪২

একাদশে সুযোগ পেলে সেরাটা দেবেন তারা

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:০৩, ১৭ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৯:১৮, ১৭ জানুয়ারি ২০২১
একাদশে সুযোগ পেলে সেরাটা দেবেন তারা

শরীফুল, হাসান ও মেহেদী

জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেওয়ার স্বপ্ন কার না থাকে! ক্রিকেটার হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলা সবারই ইচ্ছে থাকে জাতীয় দলে খেলা। টি-টোয়েন্টি দিয়ে সেই স্বপ্ন মেহেদী হাসান ও হাসান মাহমুদের পূরণ হলেও এর খুব কাছে শরীফুল ইসলাম। তিনজন আজ একই বিন্দুতে, প্রথমবার ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছেন তারা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে দলে জায়গা পাওয়ার পর উচ্ছ্বসিত প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তারা, রাইজিংবিডির পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো:

শরীফুলের প্রত্যাশা বাংলাদেশের হয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়া

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী পেসার শরীফুল ইসলাম। বিসিএল (বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ) থেকে উঠে আসা এই পেসার এখন গতিতে মুগ্ধ করছেন সবাইকে। প্রথমবারের মতো বিশ্বজয় করায় তার ভূমিকা ছিল অনন্য। সেই ধারবাহিকতা বজায় রেখে মোস্তাফিজুর রহমানদের সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছেন দলে। সর্বশেষ বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে ১০ ম্যাচে ১৬ উইকেট নিয়েছেন। যার ফলস্বরূপ খুলে যায় জাতীয় দলের দরজা।

ঘরোয়া ক্রিকেটে তার পারফরম্যান্স দুর্দান্ত। প্রথম শ্রেণির ৮ ম্যাচে নিয়েছেন ২২ উইকেট, লিস্ট এ’র হয়ে ৪৭টি ও টি-টোয়েন্টিতে ২৩ উইকেট

দলে জায়গা পেয়ে শরীফুল বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ অনেক ভালো লাগছে খবরটা শোনার পরে। অনেক খুশি লাগছিল যে আমি প্রথমবারের মত জাতীয় দলের স্কোয়াডে আছি। ইনশাল্লাহ ভালো কিছু করার চেষ্টা করবো। আসলে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের পরে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ, প্রেসিডেন্টস কাপে মোটামুটি ভালো খেলেছি। জাতীয় দলের একাদশে যদি জায়গা পাই, তাহলে সেই পারফরম্যান্স দেওয়ার চেষ্টা করবো। জায়গাটা ধরে রাখার চেষ্টা করবো।’

যুব বিশ্বকাপ জয়ী শরীফুল এবার চান জাতীয় দলের হয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়া, ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের মূল একটা শক্তি ছিল যে সবাই আমরা একসঙ্গে ছিলাম, দেশের জন্য লড়ছি। সেই একতা ধরে রেখে আমরা সবাই যদি লড়াই করতে পারি, দেশের জন্য আমরা আবার একদিন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবো; এবার জাতীয় দলের হয়ে।’

একাদশে সুযোগ পেলে সেরাটা দেবেন মেহেদী

দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত খেলছেন মেহেদী হাসান। এ জন্য ২০১৮ সালে ডাক পেয়েছিলেন টি-টোয়েন্টি দলে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও তার প্রশংসা করেছেন। ব্যাটিং-বোলিংয়ে সমান পারদর্শী হতে পারেন তামিম ইকবালের এই বড় অস্ত্র।

বিপিএল হতে শুরু করে ঘরোয়াতে সবধরণের টুর্নামেন্টে বিচরণ মেহেদীর। বিপিএলে খেলেছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস, ঢাকা প্লাটুন ও বরিশাল বুলসের হয়ে। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ৪১টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ২৩৬৭ রান করেছেন, ৭০টি লিস্ট এ ম্যাচে ৯৮৭ ও ৫২টি টি-টোয়েন্টিতে করেছেন ৫০৯ রান। উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ৮৪, ৬৫ ও ৪১টি। এ ছাড়া চারটি টি-টোয়েন্টি খেলে ১১ রানের সঙ্গে নিয়েছেন ১টি উইকেট। সর্বশেষ দুই টুর্নামেন্টে খেলেছেন দুর্দান্ত। ঘরোয়া ক্রিকেটের মতো জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলে আলো ছড়াতে পারেননি।

মেহেদী বলেন, ‘অবশ্যই পরিশ্রম করে আসছি বাংলাদেশ দলে খেলার জন্য। প্রথমে তো আমার টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয়েছে, এখন ওয়ানডেতে সুযোগ এসেছে। আমরা যেহেতু ক্রিকেটার, চাপ নেওয়ার কিছু নেই। যেহেতু আমরা পরিশ্রম করছি, চেষ্টা করছি, এটা আমাদের অনেক কিছু। চাপ নিতে হলে সেটা ম্যাচের ভেতরে প্রভাব পড়ে, ম্যাচের বাইরে চাপটা ওরকম আসে না।‘

তিনি আরও বলেন, ‘যদি একাদশে সুযোগ হয়, নিজের সেরাটা দেওয়ার অবশ্যই চেষ্টা থাকবে। যেহেতু আমি বোলিং করতে পারি, ব্যাটিং করতে পারি, যে জায়গায় যেখানে সুযোগ আসে চেষ্টা করবো কাজে লাগানোর।‘

ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চান হাসান

গতি ও বৈচিত্র্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নজর কাড়েন হাসান মাহমুদ। সম্ভাবনাময় এ পেসারকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন প্রায় প্রত্যেকেই। ডানহাতি পেসারের শক্তির জায়গা তার গতি। বিপিএলে ১৩৫ থেকে ১৪০ গতিতে ধারাবাহিক বোলিং করেছেন। কখনও কখনও গতি বাড়িয়েছেন। গতি তার নিয়ন্ত্রিত। সঙ্গে বাড়তি যোগ করেছেন বৈচিত্র্য। নতুন কিংবা পুরোনো বলে করাতে পারেন সুইং। বিপিএলে ১৩ ম্যাচে ৯.২০ ইকোনমিতে ১০ উইকেট পেয়েছেন লক্ষীপুরের এই পেসার। ১৪ লিস্ট এ ম্যাচে ৩৪.৫৫ গড়ে ২০ উইকেট পেয়েছেন তিনি।

বৈচিত্রময় মুগ্ধ করে হাসান মাহমুদ আগেই জায়গা করে নিয়েছিলেন টি-টোয়েন্টি দলে। এবার সুযোগ পেয়েছেন ওয়ানডে দলে। জাতীয় দলের হয়ে নিজেকে প্রমাণের আগেই হাসানের গায়ে লেগে গেছে ‘লক্ষীপুর এক্সপ্রেস’ তকমা।

তিনি বলেন, ‘যেদিন থেকে খেলা শুরু করেছিলাম, সেদিন থেকেই জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন ছিল। এখন সুযোগ পেয়েছি। আমি আমার সেরা চেষ্টা করবো। লক্ষ্য অবশ্যই ভালো করার। নিজের সেরাটা দেওয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজের সেরাটাই দিতে হবে। এটা দিয়ে তো আমার ক্যারিয়ার শুরু হবে।‘হাসান বললেন, ‘যখন যেখানে যে ফরম্যাটই খেলি, নিজের সেরাটা দিব। নিজেকে ফিট রাখার চেষ্টা করবো। ধারাবাহিকতা বজায় রাখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার যেই সুযোগটা আছে সেটা কাজে লাগানো খুবই দরকার।‘

ঢাকা/রিয়াদ/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়