RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||  ফাল্গুন ১৪ ১৪২৭ ||  ১৪ রজব ১৪৪২

হাসানের পারফরম্যান্সে অবাক নন গিবসন

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১৪, ২১ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৯:২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২১
হাসানের পারফরম্যান্সে অবাক নন গিবসন

বাংলাদেশের ১৩৪তম ওয়ানডে ক্রিকেটার হিসেবে বুধবার অভিষেক হয়েছে পেসার হাসান মাহমুদের। ঘরোয়া ক্রিকেটে দ্যুতি ছড়িয়ে ডানহাতি ক্রিকেটারের গত বছর টি-টোয়েন্টি অভিষেক হয়েছিল। ওয়ানডে অভিষেকে ৩ উইকেট নিয়ে দারুণ সময় কাটিয়েছেন ২২ গজে। তার পারফরম্যান্সে মোটেও অবাক নন বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। বরং শিষ্যর বোলিংয়ে স্তুতি ছড়িয়েছেন গিবসন।

বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘না সে (হাসান) আমাকে একদমই অবাক করেনি, এজন্যই তাকে একাদশে রাখা হয়েছিল। কারণ আমরা তার উন্নতি দেখেছি।’

গত এক বছর জাতীয় দলের সঙ্গে অনুশীলনে ছিলেন লক্ষীপুরের পেসার। তরুণ ও প্রতিশ্রুতিশীল পেসারকে গিবসন তৈরি করেছেন নিজের মতো করে। লাইন ও লেন্থ ঠিক রাখার পাশাপাশি হাসানের বৈচিত্র্য নিয়ে কাজ করেছেন। অনুশীলনে কঠোর পরিশ্রমের ফল হাসান পেয়েছেন বলে বিশ্বাস করেন গিবসন। তার ভাষ্য,‘সে প্রায় গত ১২ মাস ধরে আমাদের সাথে আছে। গত বছরের শুরুতে পাকিস্তানে ছিল। আমাদের সাথে আছে বেশ কিছু দিন হয়েছে এবং আমরা তার ভালোভাবেই উন্নতি হতে দেখেছি। সুতরাং এটি ভালো ছিল যে সে তার সুযোগ পেয়েছে এবং অভিষেকেই তিন উইকেট পেয়েছে যা তার পরিশ্রমের জন্য ভালো পুরষ্কার।’

অধিনায়ক তামিমের থেকে ওয়ানডে ক্যাপ নিয়েছিলেন হাসান। দশম ওভারে তার হাতে বল তুলে দেন অধিনায়ক। শুরুটা ছিল আঁটোসাঁটো। ৩ ওভারে ১৪ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য । দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে ফেরেন যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান রোভম্যান পাওয়েল ও কাইল মায়ার্স আক্রমণাত্মক ভূমিকায়। বোলিংয়ে এসে প্রথম দুই বলে দুই চার হজম। 

ভড়কে না গিয়ে পরের ওভারে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ান হাসান। প্রথম দুই বলে তার শিকার পাওয়াল ও রেইফার। রোভম্যান তার থ্রি কোয়ার্টার লেন্থ বলে ব্যাট সরাতে না পেরে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন। রেইফার পেছনের পায়ে বল লাগিয়ে এলবিডব্লিউ। এক ওভার পর আকিল হোসেনের উইকেট পকেটে পুরেন। দ্বিতীয় স্পেলে আরও ৩ ওভারে আরও ১৪ রান দিলেও এবার শিকার ৩ উইকেট। 

দলের সামগ্রিক পারফরম্যান্সেও বেশ খুশি হাইপ্রোফাইল গিবসন। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় একটি ভালো দলগত ভালো পারফরমেন্স ছিল। কন্ডিশন আদর্শ ছিল না, পিচে টার্ন ছিল। কিন্তু আমাদের দলে সব দিক দিয়েই পরিপূর্ণ ছিল। সাকিব এবং মেহেদিকে নিয়ে স্পিন আক্রমণ এবং অবশ্যই পেসাররা ভালো করেছে। আমার মনে হয় পেসাররা ফিজ এবং রুবেল শুরুতে খুবই ভালো বোলিং করেছে এবং হাসান মাহমুদের দারুণ অভিষেক হয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে আদর্শ পারফরমেন্স ছিল।’ 

ঢাকা/ইয়াসিন/রিয়াদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়