Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৭ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১২ ১৪২৮ ||  ১৪ জিলহজ ১৪৪২

‘তুই ক্রিকেট কত গভীরে বুঝিস, তা দেখানোর সুযোগ এবার’

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:১৫, ২৯ জানুয়ারি ২০২১  
‘তুই ক্রিকেট কত গভীরে বুঝিস, তা দেখানোর সুযোগ এবার’

গত বুধবার রাতে হুট করে আব্দুর রাজ্জাক পান সুসংবাদ। ক্রিকেটে খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ারের ইতি না টানতেই পেয়ে যান বিরাট দায়িত্ব। মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশারের সঙ্গে জাতীয় দলের নির্বাচক প্যানেলে যুক্ত করা হয় বাংলাদেশের এই স্পিন লিজেন্ডকে। সম্পূর্ণ নতুন একটি ভূমিকা রাখার আগে রোমাঞ্চিত রাজ্জাক। বন্ধুর এই দায়িত্ব প্রাপ্তিতে তাকে শুভ কামনা জানালেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজা।

২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় মুর্তজার। এর তিন বছর পর এশিয়া কাপে হংকংয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে পা রাখেন রাজ্জাক। জাতীয় দলের জার্সিতে ক্রিকেট মাঠে তাদের বিচরণ এখন নেই বললেই চলে। কিন্তু দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অটুট। তাই রাজ্জাক নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর তাকে নিয়ে ফেসবুক পোস্ট দিয়েছেন মাশরাফি।

অবশ্য শুরুতেই দেরি করে শুভ কামনা জানানোর জন্য একটু অনুশোচনার ছাপ ছিল, মাশরাফি লিখেছেন, ‘খান আবদুর রাজ্জাক (রাজ), বন্ধু একটু দেরি হয়ে গেলো শুভ কামনা জানাতে। হয়তো আমার মতো অনেক মানুষ তোর এই অর্জনে খুশি হয়েছে, তবে আমার যে জায়গাটায় সবচেয়ে বেশি আনন্দ হচ্ছে সেটা হলো তুই ক্রিকেট কত গভীরে বুঝিস, তা দেখানোর সুযোগ তুই এবার পেয়েছিস। জানি তুই তোর সেরাটাই দিবি এবং সফলও হবি ইনশাআল্লাহ।’

রাজ্জাক বল হাতে যেমন সাফল্য পেয়েছেন, তেমনই নির্বাচকের দায়িত্বেও ভালো কিছু করবেন বিশ্বাস ডানহাতি পেসারের, ‘এতদিন বাঁ হাতের ভেলকি দেখেছে সবাই। এবার দেখবে তোর মস্তিস্কর, যা নিয়ে কোনোদিনও আমার সংশয় ছিল না। অনেক সংকটে তোর সঙ্গে কথা বলেছি বলেই বলছি, তুই বিজয়ী হবি ইনশাআল্লাহ। ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাই মানুষটাকে যথাযথ সম্মান প্রর্দশনের জন্য। ভালোবাসা অবিরাম বন্ধু।’

২০১৭ সালের আগস্ট থেকে নান্নু ও হাবিবুল নির্বাচকের কাজগুলো করে আসছিলেন। এর আগে তৃতীয় নির্বাচক ছিলেন সাজ্জাদ আহমেদ শিপন। কাজের জায়গা বৃদ্ধি পাওয়ায় একজন তৃতীয় নির্বাচকের চাহিদা তৈরি হয়েছিল। এজন্যই কমিটিতে আরেকজনের খোঁজে ছিল বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ। আর সেই জায়গায় তাদের প্রথম পছন্দ রাজ্জাক। শেষ পর্যন্ত তাকেই চূড়ান্ত করে বিসিবি।

অবশ্য ভাবনার বিষয় হলো, জাতীয় দলের জার্সিতে ১৩ টেস্ট, ১৫৩ ওয়ানডে ও ৩৪ টি-টোয়েন্টি খেলা রাজ্জাক এখনও ক্রিকেট থেকে অবসরে যাননি। স্থগিত হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে চুক্তিবদ্ধ, খেলেছেন এক ম্যাচ। করোনা বিরতির পর বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ শুরুর আগে ফিটনেস পরীক্ষা বিপ টেস্ট দিয়েছিলেন। কিন্তু দল না পাওয়ায় খেলার সুযোগ হয়নি। ফলে আনুষ্ঠানিক অবসরের আগে নির্বাচকের দায়িত্ব কীভাবে পালন করবেন তা নিয়ে কিছুটা দ্বিধায় আছেন তিনি।

এ ব্যাপারে রাজ্জাক বলেছেন, ‘বোর্ডের সঙ্গে এখনও আমার আনুষ্ঠানিক কথা হয়নি। সামনেই সেই সুযোগটি আসবে। আমরা বসে একটা সিদ্ধান্ত নেবো।’

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়