Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২১ ১৪২৭ ||  ২১ রজব ১৪৪২

প্রত্যাশার পারদও এখন নিচের দিকে!

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫৫, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১  
প্রত্যাশার পারদও এখন নিচের দিকে!

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ সম্মেলন করলেন ১৭ মিনিট ধরে, এর অর্ধেক জুড়েই ছিল সাকিব আল হাসান প্রসঙ্গ। অথচ শুরুতেই বলে দিয়েছিলেন, ‘না, সাকিবের চুক্তি নিয়ে কোনও আলাপ আলোচনা হয়নি।'

সাকিবের কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে বিসিবি সভাপতি ও পরিচালকদের বৈঠকে কোনও আলোচনা হয়নি ঠিকই, তবে দেশের খেলা ছেড়ে আইপিএল খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে হয়েছে প্রবল সমালোচনা। দলের বর্তমান অবস্থায় সাকিবের নিবেদন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। বিসিবি সভাপতিও তার দীর্ঘ সংবাদ সম্মেলনে সমালোচনা করেছেন। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে তিনি যেসব বলেছেন, ‘জোর করে কাউকে খেলাবো না। খারাপ সময়ে দলকে সহযোগিতা করবে, আশ্বস্ত করবে যে জিতবেই... অথচ সেটা বাদ দিয়ে অন্য ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে খেলবে? যে সময়টায় তারা দেশের জন্য কিছু করবে সে সময়টায় যদি...।’

সাকিবকে আবারও অধিনায়ক করার সম্ভাবনা আছে? এমন প্রশ্নে নাজমুলের জবাব, ‘এটা সময় বলে দেবে। অপেক্ষায় থাকুন। দেখতে পাবেন।’ মিনিট পাঁচেক আগেও আরেক প্রশ্নের উত্তরে তিনি যা বলেন তাতে দাঁড়ায়, ‘এদের দিয়ে খুব বেশি কিছু করা যাবে বলে আমার মনে হয় না, অন্তত টেস্টে।’

দেশের খেলা ছেড়ে সাকিব আইপিএল খেলতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় নড়চড়ে বসতে হচ্ছে বিসিবিকে। সামনে তারা খেলোয়াড়দের কেন্দ্রীয় চুক্তি করবে। লাল ও সাদা বলের আলাদা চুক্তি করবে। তবে এবারের চুক্তিতে বিসিবি ক্রিকেটারদের কাছ থেকে সাফ জানতে চায়, কে টেস্ট খেলবে আর কে তা খেলবে না? মোদ্দাকথা, আগেভাগেই ক্রিকেটারদের কাছ থেকে তাদের ইচ্ছার কথা জানতে চায় যেন কোনও সিরিজের আগে কিংবা হুট করে ক্রিকেটাররা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে খেলতে যাওয়ার বায়না না করতে পারেন।

বিসিবি সভাপতির ভাষ্য, ‘আমরা দীর্ঘমেয়াদে কাজ করতে চাই ক্রিকেটারদের চুক্তি নিয়ে। কোনও সিরিজের সঙ্গে আর কিছু নাই। কারণ এ ধরনের কোনও চিন্তা আমাদের কখনও আসেনি। আমি যখন চিন্তা করে দেখি, এতগুলো ম্যাচ হারার পরে খেলোয়াড়দের উচিত বিশেষ করে সিনিয়রদের চিন্তা থাকবে যে আমরা পরবর্তী টেস্ট ম্যাচ জিতবো। এটা না হয়ে যদি বলে আমি খেলবো না তাও ব্যক্তিগত কারণে নয়, আরেকটা ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলার জন্য। তখন পরিষ্কার হয়ে যাই যে তাদের ইচ্ছে কোথায়।’

কেন্দ্রীয় চুক্তি কেমন হতে পারে সে সম্পর্কে ধারণাও দিয়ে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি, ‘এ বছর এখনও আমরা চুক্তি করিনি। নতুন চুক্তিতে অনেক কিছু যোগ হবে। সেখানেও লেখা থাকবে কে কোন ফরম্যাট খেলতে চায় তাদেরকে বলতে হবে এবং সেটাও জানতে হবে তাদের অন্য কোনও জায়গায় অন্য কিছু থাকে তাহলে জাতীয় দলে খেলবে নাকি ওখানে। এই চুক্তিতে যারা স্বাক্ষর করবে তাদের আমরা যেতে দেবো না। এখন ব্যাপারটা খোলামেলা। আগে ছিল সেটা ব্যক্তিগত, এখন এটা আমরা কাগজে কলমে লিখিতভাবে নিয়ে নিচ্ছি। এখানে কারও কিছু বলার থাকবে না। দিলো না বা জোর করে নিচ্ছি, এটা বলার কিছু থাকবে না।’

নাজমুল হাসানের বিশ্বাস, সাকিবের অনুপস্থিতিতে দল গঠনে সমস্যা হবে না। কেন্দ্রীয় চুক্তি হয়ে গেলে সব ঠিক হয়ে যাবে।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়