Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৯ শা'বান ১৪৪২

মেসি-রোনালদোকে ইন্টার মিয়ামিতে পেতে আগ্রহী বেকহ্যাম

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২৬, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১  
মেসি-রোনালদোকে ইন্টার মিয়ামিতে পেতে আগ্রহী বেকহ্যাম

বার্সেলোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির চুক্তি শেষ হওয়ার পথে। আর চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার স্বপ্নে বিভোর জুভেন্টাস ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ওপর আর ভরসা রাখতে পারছেন না খুব একটা। তাদের ভবিষ্যৎ শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে ঠেকে, তা এখনও অজানা। তবে তাদের দুজনকে পেতে আগ্রহ দেখিয়েছে এমএলএস ক্লাব ইন্টার মিয়ামি।

আমেরিকান শীর্ষ লিগের দ্বিতীয় মৌসুমে খেলতে যাচ্ছে ইন্টার। দলটির যৌথ মালিকানায় থাকা সাবেক ইংলিশ ফুটবল তারকা ডেভিড বেকহ্যাম জানালেন তার উচ্চাকাঙ্ক্ষার কথা, মেসি-রোনালদোকে পাওয়ার স্বপ্নের কথা।

এরই মধ্যে গনসালো হিগুয়েন ও ব্লেইস মাতুইদির মতো নামী খেলোয়াড়দের নিজেদের করে নিয়েছে ইন্টার মিয়ামি। ইংলিশ ফুটবল লিজেন্ড তার দলকে আরও শক্তিশালী করতে চান, ‘প্রথম দিন থেকে আমি বলেছি আমাদের অ্যাকাডেমি সিস্টেম এই ক্লাবের বিশাল অংশ। এখান থেকে খেলোয়াড় তুলে আনার লক্ষ্য আমাদের, যারা ইন্টার মিয়ামিতে সময় কাটিয়েছে এবং শ্বাস নিয়েছে। কিন্তু আমরা জানি, মিয়ামিতে আমাদের ভক্তরা বড় বড় তারকাদের দেখতে চান।’

নতুন কিটের উদ্বোধনকালে বেকহ্যাম বলেছেন, ‘গনসালো হিগুয়েন ও ব্লেইস মাতুইদিকে আমরা এরই মধ্যে এনেছি, যারা ক্লাবে গ্ল্যামার যোগ করেছেন। কিন্তু সামনের দিকে আমরা সেরা কিছু খেলোয়াড়কে আনার সুযোগ গ্রহণ করতে চাই।’

মেসি ও রোনালদোকে উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ‘অবশ্যই আমরা সবসময় সেরা খেলোয়াড়দের আনতে চাই। মিয়ামি যে কাউকে টানে এবং এই ধরনের খেলোয়াড়কে (মেসি ও রোনালদো) আমরা এখানে আনতে আগ্রহী।’

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে