Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮ ||  ০৫ রমজান ১৪৪২

স্থানীয় ক্রিকেটারদের ভরসা এখন ‘খ্যাপ’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৩, ৩ মার্চ ২০২১   আপডেট: ০৭:১৭, ৪ মার্চ ২০২১
স্থানীয় ক্রিকেটারদের ভরসা এখন ‘খ্যাপ’

দেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরলেও এখনও শুরু হয়নি ঘরোয়া ক্রিকেট। গত বছরের মার্চের মাঝামাঝি সময়ে করোনাভাইরাসের কারণে ঘরোয়া ক্রিকেটসহ সবধরনের খেলা বন্ধ হয়।

দেশে করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হওয়ায় এ মাসেই মাঠে গড়াতে পারে বহু ক্রিকেটারের রুটি-রুজির এই খেলা। ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ হওয়ায় স্থানীয় ক্রিকেটারদের আয় রোজগারের পথ একদমই বন্ধ। এজন্য জেলায় জেলায় ‘খ্যাপ’ মারতে ব্যস্ত তারা।

ফরহাদ রেজা, সাব্বির রহমান, মুক্তার আলী, আরিফুল হক, রনি তালুকদার, মোহাম্মদ আশরাফুল, আল-আমিন জুনিয়ররা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ক্রিকেট ফেরি করে বেড়াচ্ছেন। কখনও খেলছেন ক্রিকেট বলে, কখনও টেপ টেনিসে।

স্থানীয় আয়োজনে ময়মনসিংহ, নড়াইল, মাগুড়া, রাজশাহী ও সবশেষে সিলেটে অনুষ্ঠিত হয়েছে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। আরিফুল হকের মতে করোনা তাদের শিখিয়েছে অনেক কিছু। তিনি বলেন, ‘করোনা আমাদের অনেক কিছু শিখিয়েছে। জীবনের প্রতিটি অধ্যায় নতুন কিছু শেখায়। আমাদের আয়ের বড় অংশ ঢাকা লিগ বা জাতীয় লিগের ওপর নির্ভরশীল। কিন্তু গত বছর লিগ না হওয়ায় আমাদের বড় ক্ষতি হয়েছে। আমাদের পরিবার আছে, খরচ আছে। কিছু না কিছু করতেই হতো। যেহেতু ক্রিকেট খেলাটাই পারি সেটাই করে বেড়াচ্ছি। ’

কিছুদিন আগে রনি তালুকদার নিজের ফেসবুকে নিজের ব্যাটিংয়ের ভিডিও দিয়ে লেখেন, ‘অনেক দিন পর টেপ টেনিসে ক্রিকেট খেললাম।’ মোহাম্মদ আশরাফুল নিয়মিত অনুশীলনের পাশাপাশি খেলছেন আন্তঃওয়ার্ড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। দক্ষিণের ২ নং ওয়ার্ডের হয়ে বুধবার শেষ ষোলোর ম্যাচে মাত্র ৪ রান করেছেন। হেরেছে তার দলও। এ টুর্নামেন্টে খেলছেন ইলিয়াস সানি, মার্শাল আইয়ুব, কাজী অনিক, আল-আমিন জুনিয়ররাও। 

আশরাফুল বলেন, ‘লিগগুলো শুরু না হওয়া পর্যন্ত এসব টুর্নামেন্টে খেলতে হবে। আশা করছি এ মাসে লিগ শুরু হবে। তখন হয়তো এসব টুর্নামেন্ট আর খেলা লাগবে না।’

করোনার কারণে স্থানীয় টুর্নামেন্টগুলো আয়োজন করে আয়োজক হিসেবে নিজেদের মেলে ধরেছেন সানোয়ার হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, এনামুল হক জুনিয়ররা। এনামুল হক জুনিয়র বলেন, ‘আমরা একাডেমি কাপ আয়োজন করে যুব ক্রিকেটারদের শুরুতে মাঠে ফিরিয়েছিলাম। এবার পাঁচ দলের ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট করেছি। অনেক জাতীয় দলের খেলোয়াড় খেলেছি। মুমিনুল হকও খেলেছে। এ ধরনের টুর্নামেন্ট করে আমরা খেলা ফিরিয়েছি। পাশাপাশি ক্রিকেটাররা আয়ের পথ পেয়েছে।’

ঘরোয়া ক্রিকেটে দ্রুত ভ্যাকসিন নেওয়ার কথা জানালেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ভ্যক্সিনেশনের জন্য সরকারের কাছে তালিকা জমা দিয়েছি। আমাদের সম্ভাব্য খেলোয়াড়, টিম ম্যানেজমেন্ট, সাপোর্ট স্টাফ ও গ্রাউন্ডস স্টাফদের তালিকা আমরা জমা দিয়েছি। এই ভ্যাক্সিনটা যত দ্রুত দেওয়া সম্ভব হবে, তত তাড়াতাড়ি আমরা ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরে আসতে পারবো।’

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়