Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৯ শা'বান ১৪৪২

কুইন্সটাউনে ভেট্টরিকে পাবেন মিরাজরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২৮, ৩ মার্চ ২০২১   আপডেট: ২১:৩৩, ৩ মার্চ ২০২১
কুইন্সটাউনে ভেট্টরিকে পাবেন মিরাজরা

ক্রাইস্টচার্চে কোয়ারেন্টাইন শেষে ১১ মার্চ কুইন্সটাউনে যাবে বাংলাদেশ জাতীয় দল। সেখানে পাঁচ দিনের ক্যাম্প করবেন মুশফিক, তামিমরা। নিউ জিল্যান্ডে বাংলাদেশের আসল প্রস্তুতি হবে সেখানেই। কুইন্সটাউনের ক্যাম্পে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে যোগ দেবেন স্পিন বোলিং পরামর্শক ড্যানিয়েল ভেট্টরি।

বাংলাদেশ ক্রিকেটে দৈনিক চুক্তিতে কাজ করছেন নিউ জিল্যান্ডের সাবেক স্পিন গ্রেট ভেট্টরি। গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল নভেম্বরে, সেই পর্যন্ত তার সঙ্গে বিসিবির চুক্তি ছিল একশ দিনের। কিন্তু টুর্নামেন্ট স্থগিত হওয়ায় এখন পর্যন্ত কাজ করেছেন ৬০ দিন। চুক্তির অবশিষ্ট ৪০ দিনের পরিবর্তে ভেট্টরি বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করবেন ২২ দিন। বাংলাদেশ দলের নিউ জিল্যান্ড থাকাকালে পুরোটা সময় থাকবেন তিনি।

মেহেদী হাসান মিরাজ কুইন্সটাউনেই পাচ্ছেন ভেট্টরিকে। এ তথ্য বুধবার নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন, ‘ভেট্টরি অনেকদিন ধরে বাংলাদেশ দলের সাথে সম্পৃক্ত আছেন এবং সার্ভিস দিচ্ছেন। কিন্তু করোনার কারণে হয়তো তার মুভমেন্টে সমস্যা হচ্ছে। মূল বিষয় হলো উনি বাংলাদেশ দলের সঙ্গে যেখানেই যোগ দেন না কেন, দেশে ফিরে তাকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। সেক্ষেত্রে এটাই তার জন্য মূল চ্যালেঞ্জ- দেশে ফিরে আবার ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন। বাংলাদেশ দলের নিউ জিল্যান্ড সফরেই যুক্ত হচ্ছেন। তার মতো একজন সাবেক অধিনায়ক, বিশেষ করে নিউ জিল্যান্ডের কন্ডিশনে তার অভিজ্ঞতা আমাদের কাছে অনেক মূল্যবান। সুতরাং বোর্ড যেটা করেছে সবকিছু চিন্তাভাবনা করেই করেছে। দিনের হিসেবে তিনি ২০-২২ দিন বাংলাদেশ দলের সঙ্গে থাকবেন।’

দৈনিক আড়াই হাজার ডলারে কাজ করছেন ভেট্টরি। মোটা অঙ্ক দিয়ে বিসিবি তাকে যুক্ত করলেও কাজে লাগাতে পেরেছেন খুব অল্প সময়। ২০১৯ সালে ভারত সিরিজের আগে জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন। দলের সঙ্গে ছিলেন ভারত সফরে। নিরাপত্তার কারণে পাকিস্তানে যাননি। এরপর জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে আবার এসেছিলেন। টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজের পুরোটা সময় ছিলেন বাংলাদেশে। এছাড়া সিরিজের আগে-পরে টুকটাক স্পিনারদের নিয়ে কাজ করা হয়েছে অভিজ্ঞ এ কোচের।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে