Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১ ||  আষাঢ় ১০ ১৪২৮ ||  ১২ জিলক্বদ ১৪৪২

ইশানের স্মরণীয় অভিষেকের ম্যাচে নায়ক কোহলি

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:০৪, ১৪ মার্চ ২০২১  
ইশানের স্মরণীয় অভিষেকের ম্যাচে নায়ক কোহলি

ইশান ও কোহলির ফিফটিতে জিতেছে ভারত

রোহিত শর্মা ছিলেন না। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হলো ইশান কিষাণের। জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ রাঙালেন হাফ সেঞ্চুরি করে। ওপেনিংয়ে নেমে দারুণ ভিত গড়ে অভিষেক স্মরণীয় করলেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তার সঙ্গে বিরাট কোহলির হাফ সেঞ্চুরিতে ১৩ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেটে জিতে যায় ভারত। চার মারার পরের বলে জয়সূচক ছক্কা হাঁকিয়ে তিন হাজার টি-টোয়েন্টি রানের মালিক হন কোহলি।

১৬৫ রানের লক্ষ্যে নেমে স্কোরবোর্ডে রান না উঠতেই উদ্বোধনী জুটি ভাঙে। ইনিংসের প্রথম ছয় বল খেলে ডাক মারেন লোকেশ রাহুল। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে পাঁচটি আইপিএল খেলার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে হাল ধরেন ইশান, সঙ্গ পান কোহলির। তাতে দারুণ শুরু হয় তাদের।

টানা দুটি ছয় হাঁকিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরি করেন ইশান ২৮ বল খেলে। ২০১১ সালের পর ভারতের কেউ প্রথমবার অভিষেক টি-টোয়েন্টিতে পঞ্চাশ ছাড়ান, দেশের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এই কীর্তি তার।

আদিল রশিদের ওই ওভারের শেষ বলে এলবিডাব্লিউ হন ইশান। ৩২ বল খেলে ৫ চার ও ৪ ছয়ে ৫৬ রান করেন ২২ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ১০ ওভার শেষে ভাঙে তার সঙ্গে কোহলির ৯৪ রানের জুটি। ঋষভ পান্ত দুটি করে চার ও ছয়ে ২৬ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরলেও দলকে ছন্দে রাখেন কোহলি। দুজনের জুটি ছিল ৩৬ রানের। ১৫তম ওভারে ৩৫তম বলে নিজের ইনিংসের দ্বিতীয় ছক্কা মেরে ২৬তম ফিফটি করেন কোহলি।

এরপর ৪.১ ওভারে শ্রেয়াস আইয়ারের সঙ্গে ৩৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে জেতান কোহলি। ডানহাতি ব্যাটসম্যান ৪৯ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে ৭৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। আইয়ার খেলছিলেন ৮ রানে। ১৭.৫ ওভারে ৩ উইকেটে ১৬৬ রান করে ভারত।

এর আগে জেসন রয়ের ব্যাটে ইংল্যান্ড করে ৬ উইকেটে ১৬৪ রান। আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে তৃতীয় বলেই ওপেনার জস বাটলারকে ফেরান ভুবনেশ্বর কুমার। ডেভিড মালানের সঙ্গে জেসনের ৬৩ রানের জুটিতে শুরুর ধাক্কা সামাল দেয় সফরকারীরা।

মালান ২৪ রানে ফিরে যাওয়ার পর হাফ সেঞ্চুরির পথে ছুটছিলেন জেসন। কিন্তু ৪ রানের আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ৩৫ বলে চারটি চার ও দুটি ছয়ে সাজানো ছিল তার ৪৬ রানের ইনিংস। এই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যানকে ফেরানোর পর পরের ওভারে জনি বেয়ারস্টোকেও (২০) থামান ওয়াশিংটন সুন্দর।

শার্দুল ঠাকুরের শেষ দুই ওভারে আউট হওয়ার আগে অধিনায়ক এউইন মরগান (২৮) ও বেন স্টোকস (২৪) দলীয় স্কোর দেড়শ পার করেন।

ভারতের পক্ষে শার্দুল ও সুন্দর দুটি করে উইকেট নেন।

আগামী ১৬ মার্চ একই মাঠে হবে তৃতীয় ম্যাচ। পাঁচ ম্যাচের সিরিজ এখন ১-১ এ সমতায়।

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়