ঢাকা     সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ৩ ১৪২৮ ||  ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

‘সুপার লিগ ক্লাবকে শাস্তি দেওয়ার ব্যাপারে সাবধানে কথা বলতে হবে’

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:০৩, ৫ মে ২০২১  
‘সুপার লিগ ক্লাবকে শাস্তি দেওয়ার ব্যাপারে সাবধানে কথা বলতে হবে’

বিতর্কিত ইউরোপিয়ান সুপার লিগ পরিকল্পনা থেকে ১২ দলের মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা ছাড়া সবাই সরে এসেছে। এই বিদ্রোহ লিগ আর গড়ানো সম্ভব নয় বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানালেও দুই স্প্যানিশ জায়ান্ট অনড় অবস্থানে। তাদের পরিণতি কী হতে পারে এখনও অজানা। তবে ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো সুর নরম করলেন।

গত মাসে এই লিগ গঠনের ঘোষণা এলে ফুটবল বিশ্ব টালমাটাল হয়ে পড়েছিল। প্রিমিয়ার লিগের ম্যানইউ, ম্যানসিটি, আর্সেনাল, চেলসি, টটেনহ্যাম ও লিভারপুল, সিরি আ ক্লাব জুভেন্টাস, এসি মিলান ও ইন্টার মিলান এবং লা লিগা থেকে বার্সা ও রিয়ালের সঙ্গে এই লিগে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল আতলেতিকো। শেষ পর্যন্ত উয়েফা ও ফিফাসহ ইংল্যান্ড, ইতালি ও স্পেনের শীর্ষ ফুটবল সংস্থার হুমকি ধামকিতে সিদ্ধান্ত বাতিল করে তারা। শুধু রিয়াল ও বার্সা এখনও এই পরিকল্পনার সঙ্গে আছে।

প্রাথমিকভাবে ওই সংস্থাগুলো এই লিগে খেলা ক্লাবগুলো নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি খেলোয়াড়দেরও আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে বিতাড়িত করার হুমকি দিয়েছিল। এ নিয়ে ইনফান্তিনো স্প্যানিশ গণমাধ্যম লেকিপকে বলেছেন, ‘এই বিদ্রোহ লিগের সৃষ্টি কেবল অগ্রহণযোগ্য নয়, এক কথায় অকল্পনীয়। ফুটবল নিয়ে যখন কথা বলি তখন আমাদের যুদ্ধ নিয়ে কথা বলা এড়াতে হবে, বিশেষ করে যখন গোটা বিশ্ব অভূতপূর্ব মহামারিতে ভুগছে।’

কোনও ধরনের শাস্তি দেওয়ার ব্যাপারে আরও সতর্ক হয়ে কথা বলার দাবি ফিফা প্রেসিডেন্টের, ‘কিছু কাজের ফল অবশ্যই মানুষ পায় এবং প্রত্যেককে অবশ্যই দায় নিতে হয়। কিন্তু শাস্তি নিয়ে কথা বলার সময় আপনাকে অবশ্যই সাবধানে কথা বলতে হবে। একটি ক্লাবকে শাস্তি দেওয়া মানে খেলোয়াড়, কোচ ও ভক্তদেরও শাস্তি দেওয়া, যাদের এটার সঙ্গে কোনও লেনাদেনা নেই।’

সুপার লিগের ঘোষণার পর আলেক্সান্দার সেফেরিন শাস্তি দেওয়ার ব্যাপারে ছিলেন সবচেয়ে সরব। ইনফান্তিনো মনে করেন না উয়েফা প্রেসিডেন্টের এমন কিছু বলা ঠিক হয়েছে, ‘আমরা কেন এই পর্যায়ে এসেছি সেই প্রশ্নের উত্তর একজন নেতারও দেওয়া উচিত।’

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়