Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৯ ১৪২৮ ||  ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আকরাম ও পরিচালনা বিভাগের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সুজন

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:০৩, ২৮ জুন ২০২১   আপডেট: ২১:১৩, ২৮ জুন ২০২১
আকরাম ও পরিচালনা বিভাগের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সুজন

জাতীয় ক্রিকেট দল পরিচালনা করে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ, যার চেয়ারম্যান আকরাম খান আর ভাইস চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন। কিন্তু ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ কীভাবে চলছে, কীভাবে কাজ সমন্বয় হচ্ছে, সেসব নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সুজন।

সম্প্রতি দুই জন কোচকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ থেকে। অথচ তাদের সম্পর্কে কিছুই জানতেন না তিনি। এ নিয়ে সোমবার (২৮ জুন) গণমাধ্যমের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন সুজন, ‘আমি তো ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের ভাইস চেয়ারম্যান। আমি আপনাদের কাছ থেকে জানতে পারলাম যে, এই দুজনকে (রঙ্গনা হেরাথ ও অ্যাশওয়েল প্রিন্স) কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমাকে কেউ জানায়নি। হয়তো আমি বায়ো-বাবলে ছিলাম বলে। ফোন তো ছিল। কিন্তু  আমাকে জানানো হয়নি। আমি পত্রিকা পড়ে, খবর শুনে জানতে পারলাম অ্যাশওয়েল প্রিন্স ও রঙ্গনা হেরাথকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। অথচ হেরাথের কথাটা আমিই বলেছি বিসিবিকে।'

ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকলেও তাকে কোনও মিটিংয়ে ডাক দেওয়া হয় না অভিযোগও করলেন তিনি, ‘অপারেশন্সে আমি আসলে ভাইস চেয়ারম্যান আছি কি না সেটাই নিশ্চিত না। কারণ আমি কোনও মিটিংয়ে থাকি না, আমাকে ডাকাও হয় না। মাঝে তো দুই বছর ই-মেইলই পাইনি। এখন কিছু কিছু পাই। তখনই জানি যে, বাংলাদেশ দলের কোন স্কোয়াড যাচ্ছে বা অন্যকিছু। আগে অনেক সম্পৃক্ত ছিলাম। কিন্তু এখন পরিচালনা বিভাগের সঙ্গে সম্পৃক্ত নই।’

আকরাম খানের ব্যক্তিগত ব্যবসা আছে। পর্যাপ্ত সময় দিতে পারছেন কি না সুজন সেসব নিয়ে সরাসরি প্রশ্ন না তুললেও কথা দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন, পরিচালনা বিভাগ ঠিকঠাক মতো চলছে না। আবার খেলোয়াড়রা আকরামের সঙ্গে ফ্রি হয়ে যখন তখন কথা বলতে পারেন না দাবি তার। 

সুজন বলেন, ‘আমার মনে হয় খেলোয়াড়দের আকরাম ভাইয়ের সঙ্গে সেভাবে দেখাও হয় না। কারণ আকরাম ভাই বোর্ডে কখন আসছেন... সব সময় যে আসেন তাও কিন্তু না। আমি তো মাঠের লোক মাঠে থাকি, বোর্ডে যাই। সবার সঙ্গে দেখা হয়, কথা হয়।  আকরাম ভাই হয়তো ব্যস্ত থাকে, উনার ব্যবসা আছে। উনার অনেক ব্যস্ততা থাকে, তারপরেও অনেক চেষ্টা করেন, সবাইকে সময় দেন। কিন্তু হয়তো খেলোয়াড়দের সঙ্গে ওই সময় উনার দেখা হয় না। আমার সঙ্গে যেভাবে ফ্রি কথা বলতে পারে, সেটা হয়তো আকরাম ভাইয়ের সঙ্গে পারে না, ওই সম্পর্কটা গড়ে ওঠে না। যে কোনও টপিক নিয়ে আমাকে বলতে পারে, ওই সময় আকরাম ভাইকে তো তারা পায় না। আকরাম ভাইয়ের সঙ্গে আমার শ্রীলঙ্কা সিরিজের পর এখনও দেখাই হয়নি।’

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়