Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৪ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ৯ ১৪২৮ ||  ১২ জিলহজ ১৪৪২

ম্যাচসেরা হয়েও সৌম্যের আফসোস

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫৭, ২২ জুলাই ২০২১   আপডেট: ২১:৫৭, ২২ জুলাই ২০২১
ম্যাচসেরা হয়েও সৌম্যের আফসোস

কয়েক মাস পর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ফিরেই বাজিমাত করলেন সৌম্য সরকার। বৃহস্পতিবার জিম্বাবুয়ের ওপেনার তাদিওয়ানাশে মারুমানির দুর্দান্ত ক্যাচে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর বল হাতে দুই ওভার করে একটি উইকেটও নেন। তারপর ওপেনিংয়ে নেমে নাঈম শেখের সঙ্গে ১০২ রানের শক্ত জুটিতে জয়ের ভিত গড়ে দেন। বাংলাদেশের ৮ উইকেটের জয়ের পর ম্যাচসেরার পুরস্কারও জিতেছেন তিনি। কিন্তু তারপরও হতাশ। কেন?

ম্যাচ শেষে নিজের অভিব্যক্তি জানালেন সৌম্য, ‘যেভাবে রান আউট হয়েছি, অবশ্যই হতাশ। যেভাবে ব্যাট করছিলাম, তাতে করে খেলা শেষ করে আসতে পারলে আত্মবিশ্বাসের মাত্রা ভালো থাকতো। আমার কাছে মনে হয় আমি থাকলে আরও দুই ওভার আগেই খেলা শেষ হতো।’ নাঈমের সঙ্গে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ার আভাস দিয়েছিলেন এই ওপেনার। কিন্তু ফিফটি করলেও তা উদযাপন করতে পারেননি, বরং মাঠ ছাড়তে হয়। দৌড়ে প্রথম রান নিয়ে ফিফটিতে পৌঁছে ডাবলস নিতে গিয়ে রান আউট হন সৌম্য। ৪৫ বলে চারটি চার ও দুটি ছয়ে টি-টোয়েন্টিতে চতুর্থ হাফ সেঞ্চুরি করেই সাজঘরে ফেরেন তিনি।

অনেক দিন পর আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নেমে একটু স্নায়ুচাপে ভুগছিলেন সৌম্য, ‘চার মাস পর খেলছি। শুরুর দিকে নড়বড়ে লাগছিল। উইকেটে যখন গিয়েছি, তখন প্রথম দিকের কয়েকটি বল ফিল্ডারের হাতে চলে যাচ্ছিল। পরে নিজের সঙ্গে কথা বললাম, একটু সময় নেওয়া উচিত। কয়েকটা বল খেলে যখন চার-ছয় আসবে, তখন হয়তো ছন্দে ফিরবো। যখন পছন্দের একটা বল পেয়ে ছয় মারলাম, তখন আত্মবিশ্বাস ফিরে পেলাম। উইকেটে নাঈমের সঙ্গে কথা বলছিলাম যে শুরুর দিকে রান আসছিল না। একটা ওভারে ১০-১২ রান আসলে আমরা সেই ঘাটতি পূরণ করবো। নাঈম একটা ওভারে তিনটা চার মারার পর আমরা ছন্দ পেয়েছি এবং সেভাবে চালিয়ে গিয়েছি।’

ওপেনিংয়ে নামার আকস্মিক সিদ্ধান্তেও বিচলিত হননি এই ব্যাটসম্যান, ‘আমার তিনে ব্যাট করার কথা ছিল। মাঠ থেকে উঠে আসার পর কোচ বললেন যে ওপেন করতে হবে। তখন আমি নিজেকে ওইভাবে প্রস্তুত করেছিলাম যে নতুন পার্টনার, তার সঙ্গে কথা বলে উইকেটে সময় দিয়ে নিজের মতো ব্যাট করা।’

মাঠের বাইরে থাকলেও নিজেকে সবসময় প্রস্তুত রেখেছেন সৌম্য, ‘মাঠের বাইরে যখন ছিলাম তখন তো প্র্যাকটিস করেছি। কিছুদিন আগে যে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছি, সেখানেও প্র্যাকটিস করেছি। সেগুলোই এই ম্যাচে প্রয়োগের চেষ্টা করেছি। যতটুকু দেখলাম, ঠিক আছে। তবে ধারাবাহিক হতে হলে আরও মানসিকভাবে ফিট হতে হবে।’

অন্য কারও দিকে না তাকিয়ে সৌম্য নিজের দিকে তাকাতে চান, ‘আমার প্রতিযোগিতা হচ্ছে নিজের সঙ্গে। এটাই সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা। নিজের খেলাটা খেলতে পারলে অবশ্যই আগের জায়গা ফিরে পাবো।’

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়