ঢাকা     রোববার   ১৬ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ২ ১৪২৮ ||  ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

৭ হাজার ৫৪০ দিনের সম্পর্কের অবসান

ইয়াসিন হাসান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০২:৫৫, ৬ আগস্ট ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৬, ৬ আগস্ট ২০২১
৭ হাজার ৫৪০ দিনের সম্পর্কের অবসান

আর্জেন্টিনা থেকে স্পেন। এলেন ধুমকেতু হয়ে। এরপর ধ্রুবতারার জায়গাটি দখল করে নিলেন। তার উজ্জ্বল আলোয় ২১ বছর জ্বলজ্বল করলো গোটা বার্সেলোনা। সমকালের সেরা খেলোয়াড় তো হলেন-ই। মহাকালের সেরার স্বীকৃতিও তিনি পেয়ে গেলেন।

লিওনেল মেসি। যার পায়ের ধ্রুপদী জাদুতে কাবু গোটা দুনিয়া। বলা হয়ে থাকে, ক্যাম্প ন্যুয়ে মেসি যখন পা রাখেন তখন নাকি ঘাসগুলিও তাকে স্বাগত জানায়! বার্সেলোনার গ্যালারিগুলি নাকি লিও লিও ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়! হতে পারে কল্পলোকের কাহিনী। কিন্তু যে সাফল্যধারা মেসি বার্সেলোনা শিবিরে দিয়েছেন তাতে এ গল্প সত্য হলেও কি অবাক হতে হবে?

২১ বছর মেসি দেখিয়েছেন তিনি কী পারেন। ২০০০ সালে জন্মভূমি আর্জেন্টিনা থেকে স্পেনে পাড়ি জমান মেসি। বয়সভিত্তিক স্তর পেরিয়ে ২০০৪ সাল থেকে বার্সার মূল দলের হয়ে খেলছেন তিনি। ১৭ বছরের বার্সেলোনা ক্যারিয়ার ও ২১ বছরের সম্পর্ক শেষ হলো বৃহস্পতিবারের অলস দুপুরে। অথচ তার নামের পাশে কতশত অর্জন, কতশত কীর্তি।

২০০৪-০৫ মৌসুমে মাত্র ১৭ বছর বয়সে মেসির বার্সেলোনায় অভিষেক হয়। ৭৭৮ ম্যাচ খেলেছেন কাতালানদের হয়ে। গোল করেছেন ৬৭২টি। অ্যাসিস্ট আছে ৩০৫টি। ১৭ মৌসুমে মেসি ১০টি লা লিগা জিতেছেন। কোপা দেল রে জিতেছেন ৭টি। সুপারকোপা ৮টি। সবচেয়ে মর্যাদার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন ৪টি। ইউয়েফা সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ জিতেছেন ৩টি করে।

ক্লাবের অর্জনে ভারী হয়েছে ব্যক্তিগত পুরস্কারও। বার্সেলোনার জার্সিতেই মেসি টানা চারবারসহ মোট ছয়বার ব্যালন ডি'অর জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করেছেন, যা ফুটবলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

মধ্য আর্জেন্টিনায় জন্ম এবং বেড়ে ওঠা মেসি ছোট বেলায় গ্রোথ হরমোন সংক্রান্ত জটিলতায় আক্রান্ত হন। সেসময় আর্জেন্টিনার কোন ক্লাবের পক্ষে তার চিকিৎসা খরচ বহন করা সম্ভব ছিল না। কারণ, প্রতিমাসে প্রয়োজন ছিল ৯০০ মার্কিন ডলার। এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। তার প্রতিভায় মুগ্ধ হয়ে চিকিৎসা খরচ বহনের দায়িত্ব নেয়।

১৩ বছর বয়সে মেসির সঙ্গে বার্সেলোনার চুক্তি হয়। ২০০৪ সালের অক্টোবরে ১৭ বছর বয়সে বার্সেলোনার মূল দলে তার অভিষেক হয়। পরের গল্পগুলি একেকটি সাফল্যমণ্ডিত অধ্যায়। যেখানে মিশে আছে বার্সেলোনার প্রতি মেসির আনুগত্য, নিবেদন, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা ও নিবিড় সম্পর্ক।

‘জগতের কোনো কিছুই চিরস্থায়ী নয়’- চিরন্তন সত্যটাই যেন সত্য হলো। ২১ বছরের সম্পর্কটা শেষ হলো। সব মিলিয়ে কতদিন জানেন? ৭ হাজার ৫৪০ দিন। মেসি-বার্সেলোনার সম্পর্কের বিচ্ছেদ।

ঢাকা/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়