Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২০ ১৪২৮ ||  ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

বাংলাদেশে খেলতে চান ওমানে হইচই ফেলা লেগ স্পিনার

মাসকট থেকে সাইফুল ইসলাম রিয়াদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩৯, ১৮ অক্টোবর ২০২১  
বাংলাদেশে খেলতে চান ওমানে হইচই ফেলা লেগ স্পিনার

শারীরিক গড়ন দেখে বোঝার উপায় নেই তিনি ১৩ বছর ধরে প্রবাসে থেকে কাজ করেন। ওমানের রাজধানী মাসকটে ঠাঁই নেওয়া এই বাংলাদেশির মনে-প্রাণে জুড়ে শুধু একটাই বিষয়- ক্রিকেট, ক্রিকেট আর ক্রিকেট। কাজ করলেও মন পড়ে থাকে সেই ২২ গজে। ক্রিকেট মাঠে ব্যাটসম্যানদের ওপর ছড়ি ঘোরান লেগ স্পিনের জাদুতে।

বলছি, চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে জন্ম নেওয়া এরশাদ চৌধুরীর কথা। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে থাকনে মাসকটে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশ দল অবস্থান করছে পাথুরে পাহাড় ঘেরা এই শহরে। এরশাদ কি বসে থাকতে পারেন? না, পারেন না। দল আসার দিন থেকেই ব্যস্ত সময় কাটছে তার। নিয়ম করে অনুশীলন দেখাসহ টিকিট কেটে রেখেছেন বাংলাদেশের তিনটি ম্যাচেরই।

এরশাদ ওমানের বয়সভিত্তিক দলগুলো থেকে ওমান প্রিমিয়ার লিগ পর্যন্ত খেলেছেন। নিয়মিত খেলেন ওমান ক্রিকেট লিগে। কিন্তু ওমানের রেসিডেন্ট কার্ডে সমস্যা হওয়ার কারণে প্রিমিয়ার লিগে তিনি নিয়মিত হতে পারেননি। এই প্রিমিয়ার লিগ থেকেই ওমান জাতীয় দলে সুযোগ হয় ক্রিকেটারদের। ভারতে জন্ম নেওয়া ওমান জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার যতীন্দর সিংয়ের সঙ্গে খেলেছেন এরশাদ। এছাড়াও ওমান জাতীয় দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটারের সঙ্গে তার ওঠা-বসা নিয়মিতই।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) হোটেলে বসে কথা বলার সময় এরশাদের কাছে প্রথম প্রশ্ন ছিল, কাজ আর ক্রিকেট একসঙ্গে কিভাবে চালিয়ে যান? তার উত্তর, 'কী আর করা, ক্রিকেটকে যেহেতু অনেক ভালোবাসি, আর স্বপ্ন অনেক বড় তাই লেগে থাকি। দিনে কাজ করি আর সন্ধ্যার সময় অনুশীলন করি। আর এখানে পেশাদার খেলাগুলো হয় ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার তাই খেলতে এতটা সমস্যা হয় না।'

কথায় কথায় এরশাদ জানান, তাকে নিয়ে ওমানে অনেক সংবাদ হয়েছে। সেই কপিগুলোও বের করে দেখালেন। ফিটনেস নিয়ে জিজ্ঞেস করতেই বলেন, 'ভাই অনেক কষ্ট করে ফিটনেসটা ঠিক রেখেছি। যাতে করে খেলায় কোনো সমস্যা না হয়, ফিটনেস ইস্যুতে যেন বাদ না যাই। আমার স্বপ্ন অনেক দূর যাওয়া।'

কতদূর যেতে চান? এরশাদ বললেন, 'আমার ইচ্ছা তো অবশ্যই বাংলাদেশে খেলা। সেখানে আগে লিগগুলোতে খেলতে হবে। তারপর তো জাতীয় দলের চিন্তা। আপাতত বিপিএল দিয়ে শুরু করতে চাই।' 

সেই চেষ্টা চালচ্ছেন এরশাদ। দেশ থেকে তার ভাই চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র ও বিসিবি পরিচালক আ জ ম নাসিরের সঙ্গে কথা বলেছেন। এখন সবুজ সংকেতের অপেক্ষায়। তবে স্থানীয় কিছু ঝামেলা থাকায় একবারে দেশে যেতেও পারছেন না এই প্রবাসী ক্রিকেটার।

ক্রিকেট মাঠে কোনো স্মরণীয় ঘটনা আছে? এরশাদ উৎফুল্ল কণ্ঠে বলেন, ‘হ্যাঁ ভাই, একবার এক ওভারে মাত্র ৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছিলাম। এরপর হই হই রব পড়ে যায়। দলগুলো টানাটানি করে। বিভিন্ন জায়গায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। পুরস্কার পাই।'

একজন প্রকৃত লেগ স্পিনারের জন্য হাহাকার দেশজুড়ে। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে এক লেগ স্পিনারের কাছে ঘায়েল হয়েছে বাংলাদেশ। লেগ স্পিনে দেশের দুর্বলতা দেখে অনেক আক্ষেপ তার, নিজে লেগ স্পিনার হয়েও মানতে পারছেন না সেটি। প্রবাসী এরশাদের কি সুযোগ পাবেন বাংলাদেশে, কিংবা বিপিএলে?

মাসকট/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়