Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

নেদারল্যান্ডসকে সহজে হারিয়ে আয়ারল্যান্ডের শুভসূচনা

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১০, ১৮ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৯:৪৫, ১৮ অক্টোবর ২০২১
নেদারল্যান্ডসকে সহজে হারিয়ে আয়ারল্যান্ডের শুভসূচনা

কুর্টিস ক্যাম্ফার চার বলে ৪ উইকেট নিলেন। তাতেই যেন জয়ের ভিত রচিত হয়ে গেল। ১০৭ রানের লক্ষ্য পেয়ে সময় নষ্ট করেনি আয়ারল্যান্ড। নেদারল্যান্ডসকে ৭ উইকেটে তারা হারালো ২৯ বল হাতে রেখে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শুভসূচনা হলো আইরিশদের।

পল স্টারলিং অপরাজিত ছিলেন ৩০ রানে, পৌঁছান ২৫০০ রানের মাইলফলকে। ৫ রান করতেই এই কীর্তি গড়েন সাবেক অধিনায়ক। ইনিংস সেরা ৪৪ রান করেন গ্যারেথ ডিলানি। ১৫.১ ওভারে ৩ উইকেটে তারা ১০৭ রান করে। ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন ক্যাম্ফার। 

ছোট লক্ষ্যে নেমে কোনো বিপদে পড়েনি আয়ারল্যান্ড। পাওয়ার প্লের আগেই ৩৬ রানে নেদারল্যান্ডস তাদের ২ উইকেট তুলে নেয়। কেভিন ও’ব্রায়েন ৯ ও অ্যান্ডি বালবিরনি ৮ রানে আউট হন। ২৯ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে সাজানো ছিল ডিলানির সেরা ইনিংস। দলের ৯৫ রান থাকতে আউট হন তিনি।  পরে স্টারলিং অপরাজিত থেকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন, তখন তার সঙ্গে ছিলেন ম্যাচ জয়ের নায়ক ক্যাম্ফার, খেলছিলেন ৭ রানে।

আবু ধাবিতে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ১০৬ রানে গুটিয়ে যায় নেদারল্যান্ডস। ইনিংসের তৃতীয় বলে ওপেনার বেন কুপার (০) রান আউট। পাওয়ার প্লের আগে তারা আরেকটি উইকেট হারায়। পঞ্চম ওভারে বাস ডি লিডি (৭) বোল্ড হন জশ লিটলের বলে।

২২ রানে দুই উইকেট হারানোর পর ম্যাক্স ও’ডউট ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই করেন কলিন অ্যাকারম্যানকে নিয়ে। সপ্তম ওভারে যখন প্রথম বল হাতে নিলেন ক্যাম্ফার, তখন দুজনেই একটি করে চার মারেন। ১২ রান দেন প্রথম ওভারেই। তারপরও তাকে সাহস করে দশম ওভারে বল হাতে তুলে দিলেন আয়ারল্যান্ড অধিনায়ক অ্যান্ডি বালবিরনি।

এবার যেন অন্য চেহারার ক্যাম্ফার। যদিও শুরুর বলটি ছিল ওয়াইড। অ্যাকারম্যান পরের বল ডট দিলেন। দ্বিতীয় বলে ডাচ ব্যাটসম্যানের বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ডের জোরালো আবেদন। তা আমলে নেননি আম্পায়ার। উইকেটকিপার নিল রক ও ক্যাম্ফার বুঝিয়ে ডিআরএস নিতে অধিনায়ককে রাজি করালেন। আল্ট্রা এজে ধরা পড়ে বল অ্যাকারম্যানের গ্লাভস ছুঁয়ে রকের হাতে গেছে। ১৬ বলে ১১ রানে আউট তিনি।

অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রায়ান টেন ডেসকাট এলেন, শুরুর বলই তার পায়ের সামনে দিলেন ক্যাম্ফার। সামলাতে পারেননি ডাচ ব্যাটসম্যান। এলবিডাব্লিউ হয়ে গেলেন গোল্ডেন ডাক মেরে। স্কট এডওয়ার্ডস নামলেন, লেগ স্টাম্পের সামনে তার ফ্রন্ট প্যাডে আঘাত করল বল। রড টাকার এলবিডাব্লিউর আপিলে সায় দিলেন। গোল্ডেন ডাক তিনিও। তাতে প্রথম আইরিশম্যান হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে হ্যাটট্রিক করলেন ক্যাম্ফার।

এখানেই শেষ নয়। পঞ্চম বলে রুলফ ফন ডার মারউইকেও বোল্ড করলেন, গোল্ডেন ডাক তিনিও। চার বলে চার উইকেট। যে কীর্তি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে হয়েছিল কেবল দুইবার। ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আফগানিস্তানের রশিদ খান এবং একই বছর নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে এই কীর্তি গড়েন শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা।

এরপর মার্ক অ্যাডাইরের শেষ ওভারে পরপর তিন উইকেট হারায় নেদারল্যান্ডস। পিটার সিলার (২১) ও ব্রেন্ডন গ্লোভারকে (০) আউট করার মাঝে লোগান ফন বিক (১১) রান আউট হন। ইনিংস সর্বোচ্চ ৫১ রান করেন ও’ডউড। ৪৭ বলে ৭ চারে সাজানো ছিল তার ৫১ রানের ইনিংস।

ক্যাম্ফার ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন। ৯ রান খরচায় ৩ উইকেট পান অ্যাডাইর।

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়