ঢাকা     রোববার   ১৪ আগস্ট ২০২২ ||  শ্রাবণ ৩০ ১৪২৯ ||  ১৫ মহরম ১৪৪৪

‘সোহান ওই বলে ওই শটটা আবার খেলবে না’

ক্রীড়া প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম থেকে || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩৯, ২৯ নভেম্বর ২০২১  
‘সোহান ওই বলে ওই শটটা আবার খেলবে না’

চট্টগ্রামের ২২ গজে কাজী নুরুল হাসান সোহান যখন মাঠে নামছিলেন তখন হাসপাতালে সিটি স্ক্যানে ব্যস্ত ইয়াসির আলী রাব্বি। আফ্রিদির শর্ট বল তার হেলমেটে লাগলে অস্বস্তি নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ৩৬ রানের সম্ভাবনাময় ইনিংস সাজিয়ে, দলকে খাদের কিনারা থেকে তুলে হঠাৎ তার উঠে যাওয়া মানতে পারেনি কেউ!

কনকাশন সাব সোহান তিন বছর পর আবার টেস্ট দলের জার্সিতে। তার উপর ছিল অনেক প্রত্যাশা। রাব্বির ইনিংসটির মতো করেই বড় করবেন নিজের রান, দলের লিড। কিন্তু ১৫ রানে তার তালগোল পাকানো এক শটে সব এলোমেলো। এরপর ৪ রানে শেষ বাংলাদেশের ৪ উইকেট। স্পিনার সাজিদ খানকে উড়াতে গিয়ে লং অনে ফাহিমের হাতে ক্যাচ দেন সোহান। দলীয় ১৫৩ রানে তিনি ফিরলেন সাজঘরে। ১৫৭ রানে বাংলাদেশ অলআউট।

লিটন সঙ্গী হারানোর পর মনোযোগ হারালেন। বাকিরা আসা-যাওয়ার মিছিলে। দলের হঠাৎ ছন্দপতনে সোহানের ওই শটটাই কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর কাঠগড়ায়। তার দাবি, সোহানের আউটের ধরণ হতাশ করেছে পুরো দলকেই। দিনের খেলা শেষে ডমিঙ্গো বলেছেন, ‘আমি ছেলেদের নিয়ে এখানে সমালোচনা করতে আসিনি। কিন্তু আমি মনে করি আমরা ওই সময়টায় একটা ছন্দ পেয়েছিলাম। আমরা এগিয়েও ছিলাম। ১৯৬ রানে (লিড) এগিয়ে ছিলাম ৪ উইকেট হাতে রেখে। দুজন ব্যাটসম্যান ছন্দে ছিল, ভালো অবস্থানে ছিল। জুটিটা যদি আরও ৪০-৫০ রানে বেশি হতো তাহলে পাকিস্তান চাপে থাকতো। আমরা হয়তো দিনের খেলা শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে তাদের ব্যাটিংয়ে পাঠাতাম।’

ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফর্ম করে সোহান জাতীয় দলে তিন ফরম্যাটে একসঙ্গে ফেরেন। তাকে রাখা হয় দুই বলের চুক্তিতেও। এজন্য তার ওপর ছিল অনেক চাপ, প্রত্যাশা। সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে না পারায় কিছুটা হতাশ ডমিঙ্গোও, ‘আপনি যদি সোহানকে জিজ্ঞেস করেন ওই বলে ওই শটটা আবার খেলবে কিনা…আমি নিশ্চিত ও খেলবে না। সে নিজে এবং দলকে হতাশ করেছে ওই শটটা খেলে। এটা নিয়ে কোনে সন্দেহ নেই।’

ঢাকা/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়