ঢাকা     বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||  শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯ ||  ১১ মহরম ১৪৪৪

সাকিব ফেরায় টিম কম্বিনেশন কেমন হবে জানালেন মুমিনুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১৯, ৩ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৯, ৩ ডিসেম্বর ২০২১
সাকিব ফেরায় টিম কম্বিনেশন কেমন হবে জানালেন মুমিনুল

দলের অনুশীলনের তখন দুই ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে। দেখা নেই সাকিব আল হাসানের। শুক্রবার দুপুরে হঠাৎ করেই শের-ই-বাংলার ইনডোরে সাংবাদিকদের হুড়োহুড়ি। কারণ ইনডোরে সাকিব এলেন কেবল। এসেই শুরু করলেন বোলিং।

তখন নেটে বোলিং করছিলেন নাঈম হাসানরা। তদারকি করছিলেন স্পিন কোচ সোহেল ইসলাম। সাকিব ঢুকেই তার সঙ্গে বার্তা বিনিময় করতে করতে বল নিয়ে চলে গেলেন বোলিং প্রান্তে। ব্যাটিং করছিলেন মুমিনুল হক। প্রথম বলটি সহজেই খেলেছেন অধিনায়ক, তবে দ্বিতীয়টি ব্যাটের কানায় লাগে, সাকিব উইকেট পাওয়ার ভঙ্গিতে উদযাপনও করেন।

চোট থেকে ফিরে এসে ব্যক্তিগত অনুশীলন শেষে সাকিব এখন পুরোদমে অনুশীলন করছেন। শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) অনুশীলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে অধিনায়ক মুমিনুল জানালেন, সাকিবকে নিয়েই ঢাকা টেস্টে নামার পরিকল্পনা করছে দল। সেক্ষেত্রে টিম কম্বিনেশন কেমন হবে সেটিও বলেছেন অধিনায়ক। 

মুমিনুলের ভাষ্য মতে বাংলাদেশ ৪ জন বোলার ও ৭ জন ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলবে। অধিনায়ক বলেন, ‘সাকিব দলে আসলে একটু সহজ হয়। এখন পর্যন্ত সাকিবের সবকিছু ঠিকঠাক আছে, ঠিকঠাক দেখেছি। ও আসায় আমরা ৪ বোলার ৭ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলব।‘ 

প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ দুই পেসার আর দুই স্পিনার নিয়ে খেলেছে। এই ম্যাচেও বাংলাদেশের দুই পেসার ও দুই স্পিনার থাকবেন, আর সঙ্গে তো সাকিব আছেনই। তিনি ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই পারদর্শী। 

কেমন হতে পারে দ্বিতীয় টেস্টের একাদশ। মুমিনুল জানিয়েছেন ওপেনিংয়ে ডানহাতি-বাঁহাতি কম্বিনেশন নিয়ে নামবে দল। সেক্ষেত্রে অভিষেক হতে পারে মাহমুদুল হাসান জয়ের। তাকে নিয়ে আজ অনুশীলনে বেশ সময় দিয়েছেন কোচরা। শুরুতে ব্যাটিংও করেছেন তিনি।

তিন নম্বরে নাজমুল হোসেন শান্ত, চারে মুমিনুল, পাঁচে মুশফিকুর রহিম, ছয়ে সাকিব, সাতে লিটন দাস। বাদ পড়তে পারেন ইয়াসির আলী রাব্বি। মুমিনুল যে আভাস দিলেন, তাতে কপাল পুড়তে পারে চট্টগ্রামে অভিষেক হওয়া এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের। যদি জয়ের অভিষেক না হয় আর শান্ত ওপেনিং করেন তাহলে ইয়াসিরকে দেখা যেতে পারে একাদশে। কিন্তু মুমিনুল ডানহাতি-বাঁহাতি ওপেনারের কথা বলায় সেই সম্ভাবনাও কম। অর্থাৎ বাদ পড়তে যাচ্ছেন ইয়াসির। 

আর বোলিংয়েও আসতে পারে পরিবর্তন। পেস আক্রমণে ঢুকতে পারেন তাসকিন আহমেদ। তবে তার অন্তর্ভুক্তির জন্য ম্যাচের দিন সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করবে দল। পুরোদমে বোলিংয়ে ফিরলেও অধিনায়ক জানিয়েছেন পরবর্তী নিউ জিল্যান্ড সিরিজের জন্য তাসকিন সম্পূর্ণ ফিট। যদি তিনি বোলিংয়ে আসেন তার সঙ্গে দেখা যেতে পারে আবু জায়েদ রাহীকে। আর না থাকলে রাহীর সঙ্গে থাকবেন ইবাদত হোসেন। স্পিনে তাইজুল ইসলামের সঙ্গে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি মেহেদী হাসান মিরাজের।

ঢাকা/রিয়াদ/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়