ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ৫ ১৪২৮ ||  ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বিশ্বকাপের রিপোর্টের উপর নির্ভর করছে ডমিঙ্গোর ভবিষ্যৎ 

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০৯, ৪ ডিসেম্বর ২০২১  
বিশ্বকাপের রিপোর্টের উপর নির্ভর করছে ডমিঙ্গোর ভবিষ্যৎ 

বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। দলকে সঠিকভাবে এগিয়ে নিতে পারছেন কিনা সেসব নিয়েও হচ্ছিল আলোচনা সমালোচনা। বিশ্বকাপের ভরাডুবির কারণ খুঁজতে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি তৈরি করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। 

সেই কমিটি এরই মধ্যে বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফদের সঙ্গে কথা বলেছেন। কমিটিতে থাকা বিসিবির পরিচালক জালাল ইউনুস অনানুষ্ঠানিকভাবে বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসানকে জানিয়েছেন, কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে নিয়ে ক্রিকেটারদের কোনো অভিযোগ নেই। কোচিং স্টাফদেরও নেই কোনো অনুযোগ। সামনে আরো কয়েকজন ক্রিকেটারের সঙ্গে কথা বলবে তদন্ত কমিটি। 

সেই কমিটির পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জানুয়ারিতে পাওয়া যাবে। সেই রিপোর্টের পরই। ডমিঙ্গোর ভাগ্য নির্ধারণ করা হবে। শনিবার নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘আমরা একটা কমিটি করেছিলাম। সেখানে জালাল ভাই ও সিরাজ ভাইকে রেখেছিলাম। দুজনই সম্মানিত-অভিজ্ঞ খেলোয়াড় ও পরিচালক হিসেবে। একটু স্বাধীন ভাব আনার চেষ্টা করেছি। আমরা যারা খেলোয়াড়দের সঙ্গে যোগাযোগ রাখি তাদের কাউকে রাখা হয়নি। তারা তাদের তদন্ত করছেন, হয়ত শেষ করে ফেলেছেন বা প্রায় শেষ পর্যায়ে। রিপোর্টটা এখনো দেননি, দিয়ে দেবে।’

‘ইনফরমালি আমি জালাল ভাইয়ের কাছ থেকে কিছু তথ্য নেওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে আহামরি তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। এটাতে আমি অবাক হইনি। আমি জানতাম এরকমইও হবে। তবে কিছু গুরুত্বপূর্ণ জিনিস পাওয়া গেছে। তবে কোচিং স্টাফের ব্যাপারে কিছু পাওয়া যায়নি।’

তবে এই তদন্ত ওই কমিটি পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকবে না। বোর্ড প্রধান নিজেও ক্রিকেটারদের ডেকে ডেকে কথা বলবেন বলে জানালেন। তার ভাষ্য, ‘এই তদন্ত পর্যাপ্ত না। আমার ধারণা আমার নিজেরও তদন্ত করা উচিত। বেশ কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়দের চিন্তা ধারা আমার চেয়ে কেউ তো বেশি বুঝে না। আমি মনে করি ওয়ান-টু-ওয়ান কথা বলা দরকার। কিছু জুনিয়র, কিছু সিনিয়র প্লেয়ারদের সঙ্গে। এবার যারা যাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড সিরিজে…বেশ কিছু টি-টোয়েন্টি প্লেয়ার কিন্তু আছে মাহমুদউল্লাহ সহ। উনাদের রিপোর্ট যেদিন দেবে তার পরপরই বসতে চাই ওদের সঙ্গে।’

বিশ্বকাপের আগে ডমিঙ্গোর চুক্তি নবায়নের কারণ জানাতে গিয়ে বোর্ড সভাপতি বলেন, ‘বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে রাসেল ডমিঙ্গো আমাদের কাছে লেখে যে ও খুব ভালো একটা প্রস্তাব পেয়েছে। ও চলে যেতে চায়। ও জানতে চাচ্ছিল আমরা তাকে এক্সটেন্ড করব কি করব না, যদি এক্সটেন্ড না করি তাহলে ঝুঁকির মধ্যে ও থাকবে না। যেহেতু কোভিড পরিস্থিতি তাহলে ও ওই জায়গায় কথা দিয়ে দেবে। তখন আমরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেছিলাম। পরে দেখলাম এই সময়ের মধ্যে কোন কোচ পাবও না। দ্বিতীয় হচ্ছে যদিও পাইও ঠিক বিশ্বকাপের আগে আগে নতুন কোচ আনব কিনা সেটা নিয়েও দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিলাম। বেশিরভাগ কোচ যাদের দেখছিলাম আরা আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত বুকড।’

‘সে সমস্ত কথা মাথায় নিয়ে বোর্ড চিন্তা করেছে যে তাকে এক্সটেনশন দিয়ে দেওয়া হোক। আমরা এক্সটেনশন দিয়ে দিয়েছি। এটা একটা অংশ। এখন আপনারা তাকে নিয়ে চিন্তা ভাবনা কি। এই মুহূর্তে যদি জিজ্ঞেস করেন তাকে নিয়ে আগে যে চিন্তা ভাবনা ছিল তাই আছে। আমরা বিশ্বকাপের রিপোর্টের অপেক্ষা করছি।’– যোগ করেন তিনি। 

কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সমর্থন করলেন বোর্ড প্রধান, ‘এই প্রশ্নগুলো আপনারা করছেন আসলে বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের জন্য। বিশ্বকাপের আগে সিরিজগুলো হয়েছে তখন কিন্তু এই প্রশ্ন করেননি। দল পারফর্ম করছিল, ভালো করছিল। বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের পর কথাগুলো এসেছে।’

ঢাকা/ইয়াসিন/রিয়াদ/এনএইচ/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়