ঢাকা     বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯ ||  ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

‘লিটন হবে মেগাস্টার, গুড টু ওয়াচ’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:২৯, ১৫ জানুয়ারি ২০২২  
‘লিটন হবে মেগাস্টার, গুড টু ওয়াচ’

ক্রাইস্টচার্চে লিটন দাশের শতক নিয়ে এখনও চর্চা হচ্ছে। ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে ডানহাতি ব্যাটসম্যান মোহনীয় সব শটে মুগ্ধতা ছড়ান। নিউ জিল্যান্ডের চার পেস চতুষ্টয়কে সামলে যেভাবে দোর্দণ্ডপ্রতাপ দেখিয়েছেন তা বিস্ময় ছড়িয়েছে। অবাক করেছে সবাইকে।

লিটনের এমন ব্যাটিংকে খালেদ মাহমুদ সুজন এক বাক্যে ব্যাখ্যা করেছেন, ‘গুড টু ওয়াচ।’ ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশ দল হেরেছে বাজেভাবে। কিন্তু দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে লিটন তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় শতক। নান্দনিক পুল শট, অসাধারণ অন ড্রাইভ, চোখ ধাঁধানো স্কয়ার কাট ও নিখুঁত কভার ড্রাইভে লিটন যে মুগ্ধতা ছড়িয়েছে তা চোখে লেগে আছে এখনও।

এমন ব্যাটিংয়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্ব থেকেই প্রশংসা শুনছেন লিটন। ড্রেসিংরুমে বসে তার শতক উপভোগ করা খালেদ মাহমুদ সুজন আরেকবার তাকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন, ‘লিটনের বয়স যখন ১৩ তখন আমি মনে হয় ওর প্রথম কোচ। ছোট লিটন... প্যাড পরলেই মনে হয় ব্যাটিং প্যাড হয়ে যেত আরকি। লিটনকে তো ঐ সময় থেকে দেখছি। লিটনের ব্যাটিং গুড টু ওয়াচ। একেকটা মানুষ একেকরকম হয়। একেকজনের মানসিকতা একেকরকম হয়। লিটনকে পড়তে হবে, ও কী চায়, সবাই তো একরকম না। লিটন বাংলাদেশের মেগা স্টার হবে- এটুকুই বলতে চাই শুধু। সে দারুণ খেলোয়াড়, নতুন করে বলার কিছু নেই। যে দুটি ইনিংস খেলেছে। প্রতিপক্ষ বোলারদের বোলারই মনে হয়নি।’

টিম ডিরেক্টর হয়ে এবার দলের সঙ্গে নিউ জিল্যান্ড গিয়ছিলেন তিনি। এই পদে থেকে ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ সবাইকেই নিয়ন্ত্রণ করেছেন তিনি। দলের ট্রেনিং, কোচদের নিয়ন্ত্রণ, নিরাপত্তাসহ সকল কিছুর দেখভাল করা হয়েছে।

দীর্ঘ মেয়াদে এ পদে থাকতে চান খালেদ মাহমুদ, ‘একটা সময় আমার ক্ষমতা ছিল টিম লিডার। এবার তো নির্দিষ্ট অনেক ক্ষমতা ছিল (টিম ডিরেক্টর হয়ে)। এটা থাকলে কাজ করা সহজ হয়। এবার তো আমিই অথোরিটি ছিলাম যেটা আগে ছিল না। কিছু কিছু জায়গায় অবশ্যই এটা করতে হয়েছে।’

তবে খালেদ মাহমুদ জানিয়ে দিয়েছেন, টিম ডিরেক্টরের পদ থেকে তাকে সরানো হলে তার ইনপুটও কমে যাবে।

ইয়াসিন/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়