ঢাকা     শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৭ ১৪২৯ ||  ০১ জিলহজ ১৪৪৩

মাশরাফির কোমর ব্যথায় ঢাকার অস্বস্তি

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:০৩, ১৮ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৪:৩৬, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

মাশরাফি মুর্তজার ফিটনেস নিয়ে কোনো শঙ্কায় ছিলেন না মিনিস্টার ঢাকার কোচ মিজানুর রহমান বাবুল। ২৪ ঘণ্টা পার না হতেই শঙ্কা জাগল। বোলিং করতে গিয়েও কোমরে ব্যথা থাকার কারণে বল করতে পারেননি মাশরাফি, সঙ্গে সঙ্গে মাঠ ছাড়েন।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শুরুতে মাশরাফিকে পাওয়ার সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি। সবকিছু নির্ভর করছে তার ফিটনেস ও ব্যথা কমার ওপর। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) অনুশীলন চলাকালে রাইজিংবিডিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকার ফিজিও এনামুল হক।

এনামুল বলেন, 'কোমরের পুরোনো ব্যথা থাকায় বোলিং করেননি মাশরাফি। তাকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নেবে না টিম ম্যানেজমেন্ট। তার খেলা না খেলা নির্ভর করছে ব্যথা মুক্ত হওয়ার ওপর, ফিট থাকার ওপর। এক্ষেত্রে প্রথম দুই ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি। ব্যথামুক্ত হওয়ার আগে কিছু বলা যাচ্ছে না।'

আজ বিসিবি একাডেমি মাঠে অনুশীলনে এসে শুরুতে কিছুক্ষণ ওয়ার্মআপ করেন মাশরাফি। এরপর তামিম ইকবালকে বোলিং শুরু করেন। শর্ট রান আপে ধীরে ধীরে কিছুক্ষণ বোলিং করার পর লং রানআপে বোলিং করার চেষ্টা করেন। এতদিন ধরে শর্ট রান আপেই বোলিং করেছেন, আজ লং রানআপে বোলিং করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত পারেননি। প্রথমবার বল ছুড়তে পেরেছিলেন, পরের দুইবার পারেননি। এরপর মাঠে শুয়ে পড়েন মাশরাফি।

মাশরাফির লং রানআপে বোলিং নিয়ে এনামুল বলেন, 'আসলে নো বল বোঝার জন্য লং রানআপে বোলিংয়ের চেষ্টা করেছিলেন মাশরাফি। কিন্তু ব্যথা থাকায় শেষ পর্যন্ত আর পারেননি।'

এর আগে মাশরাফির ফিটনেস নিয়ে এক প্রশ্নে ঢাকার কোচ বাবুল বলেছিলেন, ‘মাশরাফি কিন্তু বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও পরের দিকে এসে ম্যাচ জিতিয়েছে, শুরুতে খেলেনি। এবার বিপিএল খেলার জন্য সে প্রায় ১০ কেজি ওজন কমিয়েছে। তার প্রস্তুতি ওরকম ছিল। আমার মনে হয় মাশরাফি ইজ মাশরাফি। ইনশাআল্লাহ, তাকে নিয়মিতই ম্যাচে দেখা যাবে।’

মাশরাফি সর্বশেষ বল হাতে দৌড়ান ২০২০ সালের ১৮ ডিসেম্বর। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ফাইনালে খেলেছিলেন জেমকন খুলনার হয়ে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে। এরপর আর কোনো প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে নামেননি তিনি। বিসিএলের ওয়ানডে সংস্করণ দিয়ে ফেরার কথা ছিল, ফিট না থাকায় পারেননি। এখন বিপিএলেও শঙ্কা!

ঢাকা/রিয়াদ/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়