ঢাকা     সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২০ ১৪২৯ ||  ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

মাশরাফিকে ছাড়া মাঠে নামতে প্রস্তুত তারকাবহুল ঢাকা

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:২৪, ২০ জানুয়ারি ২০২২  
মাশরাফিকে ছাড়া মাঠে নামতে প্রস্তুত তারকাবহুল ঢাকা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের তারকাবহুল দল কোনটি? ক্রিকেটের ন্যুনতম খোঁজ রাখেন, এমন কাউকে প্রশ্ন করলে চোখ বন্ধ করে বলে দিবেন- মিনিস্টার ঢাকা। দেশের ক্রিকেটের তিন মহারথী মাশরাফি বিন মুর্তজা, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে আছেন ক্যারিবিয়ান সুপারস্টার আন্দ্রে রাসেল। আর কী লাগে?

অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও জানলেন, তারকাবহুল দলকে সঙ্গে করে তিনি চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। তবে দলটি প্রথম দুই ম্যাচে পাচ্ছে না মাশরাফিকে। বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আমাদের দলটা তারকাবহুল। অনেক দায়িত্বও থাকবে। যখন খ্যাতি বেশি থাকে, তখন তা প্রমাণেরও ব্যাপার থাকে। এই জিনিসগুলো আমাদের সবার মাথায় আছে। ইনশাআল্লাহ, এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি, আমার দলের ভালো করার সামর্থ্য আছে।’

ব্যাটিংয়ে দেশিদের মধ্যে অভিজ্ঞ তামিম-মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে আছেন জাতীয় দলের আরেক ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম, ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিচিত মুখ শুভাগত হোম চৌধুরী, জহুরুল ইসলাম অমি ও শামসুর রহমান শুভ। মাহমুদউল্লাহ-শুভাগত ব্যাটিংয়ের সঙ্গে বল হাতে দারুণ অবদান রাখতে পারেন। বিদেশিদের মধ্যে নাজিবউল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ শেহজাদরা রানের ফোয়ারা ছুটাতে পারেন। সঙ্গে দেখা যেতে পারে রাসেলের বিস্ফোরক ব্যাটিং, ইসুরু উদানার মারকুটে ইনিংস।

স্পিনে দেশিদের মধ্যে লেগস্পিনার রিশাদ প্রতিপক্ষকে চমকে দিতে পারেন। এ ছাড়া বিদেশিদের মধ্যে আরেক আফগান লেগস্পিনার কায়েস আহমেদ বিগ ব্যাশ লিগ ছেড়ে আসবেন ঢাকার হয়ে খেলতে। দুই লেগি যে কোনো দলের জন্য হতে পারেন বড় বাধা।

পেস আক্রমণেও অভিজ্ঞ ঢাকা। মাশরাফির সঙ্গে আছেন জাতীয় দলে খেলা রুবেল হোসেন-শফিউল ইসলাম-ইবাদত হোসেন। আর বিদেশিদের মধ্যে টি-টেন লিগে ভালো করা আফগান তরুণ ফজল হক ফারুকীও আছেন। আর মিডিয়াম পেসার হিসেবে রাসেল তো আছেনই।

শুক্রবার বিপিএলের প্রথম দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে ঢাকা নামবে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে। ভালো শুরুর প্রত্যাশা জানিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আমরা শুরুটা কেমন করি এটা গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিটা দলই খুব ভারসাম্যপূর্ণ। ভালো শুরু পেলে টুর্নামেন্টে মোমেন্টাম পাব।’

মাশরাফির প্রথম দুই ম্যাচে অনিশ্চয়তার কথা জানিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘মাশরাফি ভাই থাকলে দলের পেস বোলিং বিভাগ আরো সমৃদ্ধ হয়ে যায়। কন্ডিশন বিবেচনায় ওনার অভিজ্ঞতা অনেক কাজে আসে। প্রথম দুইটা ম্যাচে ওনাকে সম্ভবত পাব না। তৃতীয় ম্যাচে তিনি থাকবেন ইনশাআল্লাহ, আমি আশাবাদী।’

টসকে বড় ফ্যাক্টর মনে করছেন ঢাকার অধিনায়ক, ‘টস সবসময়ই একটা ফ্যাক্টর, কারণ উইকেটের কন্ডিশন সবসময় মানিয়ে নিতে পারেন। কন্ডিশন মানিয়ে নিতে পারলে বোঝা যায় কিভাবে খেলতে হবে। ভালো ক্রিকেট খেলা, ইতিবাচক থাকা জরুরি।’

উইকেট দেখে দল সাজানোর কথা জানিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘সত্যি বলতে উইকেট এখনো দেখিনি। যেহেতু রাতে আমাদের ম্যাচ, প্রথম ম্যাচটা দেখব। দেখি কেমন উইকেট বা রান হয়। সেটা অনুযায়ী টিম কম্বিনেশন করার চেষ্টা করব।’

ঢাকা/রিয়াদ/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়