ঢাকা     শনিবার   ২৮ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৯ ||  ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সাকিব, তামিম, মুশফিকদের লড়াই শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:১৬, ২১ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১০:২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২২
সাকিব, তামিম, মুশফিকদের লড়াই শুরু

শুরু হচ্ছে দেশের বৃহত্তম ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ বিপিএল। প্রথম দিনেই তারকাদের জমজমাট লড়াই। উদ্বোধনী দিনে মেহেদী হাসান মিরাজের চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স মুখোমুখি হবে সাকিব আল হাসানের ফরচুন বরিশালের। আর সন্ধ্যায় মুশফিকুর রহিমের খুলনা টাইগার্স খেলবে মাহমুদউল্লাহ ও তামিম ইকবালদের মিনিস্টার ঢাকার বিপক্ষে।

বেলা দেড়টায় ঢাকার মিরপুরে শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ‍মুখোমুখি চট্টগ্রাম ও বরিশাল। একই ভেন্যুতে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় নামবে খুলনা ও ঢাকা।

প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি কখনো শিরোপা না জেতা বরিশাল ও চট্টগ্রাম। প্রথম তিন আসরে দুইবার ফাইনাল খেলেও বরিশাল রানার্স আপ হয়েছে ঢাকা ও কুমিল্লার কাছে। আর চট্টগ্রাম একবারই ফাইনালে উঠেছিল, দ্বিতীয় আসরে ঢাকার কাছে হেরে গিয়েছিল।

এবার সেই আক্ষেপ ঘুচানোর লড়াইয়ে তারা নামবে। বরিশালের আছেন সাকিব, যিনি চারবার ফাইনালে খেলে শিরোপা জিতেছেন দুইবার। ঢাকার হয়ে ২০১৩ ও ২০১৬ সালে শ্রেষ্ঠত্বের স্বাদ পান বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

এবার অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল নিয়েও শিরোপার স্বপ্ন দেখছেন সাকিব। কিন্তু কোনো চাপ নেই মনে, ‘ওরকম কোনো চাপ আমার কখনোই লাগেনি। এখনো চাপ মনে হচ্ছে না। যেটা বলছিলাম, ৬ দলই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য খেলতে চায়। আমরাও তার ব্যতিক্রম নই, যদি হতে পারি ভালো। কিন্তু না হতে পারলেও তেমন কিছু করার থাকবে না। তবে আমরা যেটা করতে পারি, তা হচ্ছে মাঠে আমাদের শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করা। একটা দল হিসেবে খেলতে হবে, সাফল্য আনার জন্য যা যা করা দরকার সেটাই করতে হবে।’

বিপিএলের এই আসরে দলগত দিক থেকে বেশ ভারসাম্যপূর্ণ বরিশাল। সাকিবের নেতৃত্বে এই দলে খেলবেন বিদেশি তারকা ক্রিস গেইল, মুজিব উর রহমান ও ডোয়াইন ব্রাভো। দেশিদের মধ্যে থেকে নুরুল হাসান সোহান, নাজমুল হোসেন শান্তর মতো পরীক্ষিত ব্যাটসম্যান আছেন দলে। এছাড়া স্পিনে তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান আছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত পারফর্মার তৌহিদ হৃদয়, সৈকত আলী ও ইরফান শুক্কুর পরীক্ষা দিবেন কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে।

প্লেয়ার্স ড্রাফটে তরুণদের দিকেই ঝুকেছিল চট্টগ্রাম। জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলের তিন ক্রিকেটার শরিফুল, আফিফ ও শামীমকে নিয়েছে তারা। এছাড়া আছেন মিরাজ, আকবর, সাব্বির ও অভিজ্ঞ নাঈম।

‘ছক্কা নাঈম’ হিসেবে পরিচিত নাঈম তিন মৌসুম পর বিপিএলে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন। সাব্বির ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে অনেক দূরে। যুব বিশ্বকাপজয়ী আকবর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের জন্য মানানসই কি না তা নিয়ে বিরাট প্রশ্ন আছে।

স্পিনে নাসুম ও মিরাজই তাদের অস্ত্র। আর পেস বোলিংয়ে ভরসা শরিফুল, মৃতুঞ্জয়, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ। মৃত্যুঞ্জয় ও মুগ্ধ ঘরোয়া ক্রিকেটের পরীক্ষিত পেসার। নিয়মিত খেলছেন ও পারফর্ম করছেন। তবে বড় মঞ্চে এখনো দ্যুতি ছড়াতে পারেননি। তাই তো তাদের দিকে বাড়তি নজরই থাকবে সবার। শক্তিমত্তায় চট্টগ্রাম পিছিয়ে নেই। তবে অন্য দলগুলোর তুলনায় তারা ফেভারিট নয়। ছোট দলের বড় আশা- বিপিএলে তারা চমকেই দেবে। 

অন্যদিকে ঢাকা শিরোপার দাবি নিয়ে মাঠে নামবে। দেশের ক্রিকেটের দুই অভিজ্ঞ ও তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি মুর্তজা ও তামিম ইকবাল আছেন, যার নেতৃত্বে জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। যদিও মাশরাফিকে শুরুর দিকে পাচ্ছে না ঢাকা। তারপরও তারকাবহুল দল নিয়ে মাঠে নামতে প্রস্তুত দলটি। ড্রাফটের পরেও ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের বড় নাম ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলকে দলে নিয়ে চমক দেয় তারা।

ব্যাটিংয়ে দেশিদের মধ্যে অভিজ্ঞ তামিম-মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে আছেন জাতীয় দলের আরেক ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম, ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিচিত মুখ শুভাগত হোম চৌধুরী, জহুরুল ইসলাম অমি ও শামসুর রহমান শুভ। মাহমুদউল্লাহ-শুভাগত ব্যাটিংয়ের সঙ্গে বল হাতে দারুণ অবদান রাখতে পারেন।

ব্যাটিংয়ে বিদেশিদের মধ্যে নাজিবউল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ শেহজাদরা রানের ফোয়ারা ছুটাতে পারেন। সঙ্গে দেখা যেতে পারে রাসেলের বিস্ফোরক ব্যাটিং, ইসুরু উদানার মারকুটে ইনিংস।

স্পিনে দেশিদের মধ্যে লেগস্পিনার রিশাদ প্রতিপক্ষকে চমকে দিতে পারেন। এ ছাড়া বিদেশিদের মধ্যে আরেক আফগান লেগস্পিনার কায়েস আহমেদ বিগ ব্যাশ ছেড়ে আসবেন বিপিএলে ঢাকার হয়ে খেলতে। দুই লেগি যে কোনো দলের জন্য হতে পারেন বড় বাধা।

পেস আক্রমণেও অভিজ্ঞ ঢাকা। মাশরাফির সঙ্গে আছেন জাতীয় দলে খেলা রুবেল হোসেন-শফিউল ইসলাম-ইবাদত হোসেন। আর বিদেশিদের মধ্যে টি-টেন লিগে ভালো করা আফগান তরুণ ফজল হক ফারুকীও আছেন। আর মিডিয়াম পেসার হিসেবে রাসেল তো আছেনই।

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়