ঢাকা     বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯ ||  ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

মুগ্ধর সেই ওভারকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট বলছেন জিয়া

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০৪, ২১ জানুয়ারি ২০২২  
মুগ্ধর সেই ওভারকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট বলছেন জিয়া

লক্ষ্যের দিকে ঠিকঠাকভাবে এগোচ্ছিল ফরচুন বরিশাল। ইনিংসের ১৫তম ওভারে এসে মেহেদি হাসান মিরাজ দিলেন বাগড়া। জোড়া উইকেট নিয়ে ফেরত পাঠালেন দুই সেট ব্যাটসম্যানকে। সঙ্গে নতুন ব্যাটসম্যান সালমান ফিরলেন রানআউট হয়ে। সেখান থেকে ম্যাচ বের করা সহজ ছিল না, কিন্তু মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধর করা ১৭তম ওভারে ঝড় তুলে সহজ করে ফেললেন জিয়াউর রহমান।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) প্রথম ম্যাচ শেষে মুগ্ধর এই ওভারটিকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট বলেছেন জিয়া, ‘১৭তম ওভার আমাদের ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। ঐ ওভার মুগ্ধ করেছে, মুগ্ধ কিছু সামনে বল করেছে। ওই বলটা আমি ব্যবহার করতে পেরেছি। যার কারণে আমাদের ম্যাচটা সহজ হয়ে গেছে।’

মুগ্ধর এই ওভার থেকে দুই চার ও এক ছয়ে ১৮ রান তোলেন জিয়া। প্রথম বলটি ওয়াইড দিয়েছিলেন, পরের বলটিতে স্কয়ার লেগে অবশ্য অল্পের জন্য আউট হতে পারতেন জিয়া। ডাইভ দিয়েও শামীম তালুবন্দি করতে পারেননি, চার হয়ে যায়। এরপর শেষ দুই বলে একটি চার ও একটি ছয় মেরে ম্যাচটা নিজেদের দিকে নিয়ে নেন জিয়া। তিনি অপরাজিত ছিলেন ১২ বলে ১৯ রান করে।’

বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আগে ব্যাটিং করে ১২৬ রানের টার্গেট দিয়েছিল ফরচুন বরিশালকে। শেষ দিকে জিয়া আর ডোয়াইন ব্রাভোর ব্যাটিং দৃঢ়তায় ৪ উইকেটে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বরিশাল।

এই জয় তাদের সামনের দিকে ভালো করার আগ্রহ বাড়িয়ে দেবে জানিয়ে জিয়া বলেন, ‘আমাদের প্রথম ম্যাচে জয় হওয়াটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ধারাবাহিকতা খুব দরকার। আমরা প্রথম ম্যাচ জিতেছি, যার কারণে দ্বিতীয় ম্যাচে আমাদের সাহায্য করবে। আমাদের সবার ভেতর বিশ্বাস আসছে আমরা ভালো টিম, ইনশাল্লাহ আমরা সামনের ম্যাচেও ভালো করবো।’

টি-টোয়েন্টি অভিজ্ঞতার খেলা জানিয়ে জিয়া আরও বলেন, ‘আমি মনে করি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অভিজ্ঞতার খেলা। প্রতিটি ওভারে খেলা পরিবর্তন হয়। এই খেলা বোঝাটা গুরুত্বপূর্ণ। অভিজ্ঞতা কাজে দেয়।’

রিয়াদ/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়