ঢাকা     বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯ ||  ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

সাকিব ইস্যুতে মুমিনুল: ‘ব্যাটিং তো ভালোই করলো, খেলবে’

ক্রীড়া প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম থেকে || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৪২, ১৪ মে ২০২২   আপডেট: ১৩:২৬, ১৪ মে ২০২২

কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ফেরা সাকিব আল হাসান শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে খেলবেন। নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক।

শনিবার (১৪ মে) সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল বলেছেন, ‘দেখে তো ভালো মনে হলো (সাকিবের ব্যাটিং) । ব্যাটিং তো ভালোই করলো আমার কাছে মনে হয়, খেলবে…খেলবে ইনশাআল্লাহ।’

শনিবার জহুর আহমেদে সাকিবের সাকিবের সঙ্গে পাশাপাশি নেটে ব্যাটিং করেছেন মুমিনুল হক। খুব কাছ থেকে দেখায় মুমিনুল সাকিবকে খেলাতে আত্মবিশ্বাসী। তার মতে, ম্যাচ খেলার মতো শতভাগ ফিট সাকিব, ‘একটা খেলোয়াড়ের ব্যাটিং দেখলেই তার সাইকোলজি অনেক কিছু বোঝা যায়। আপনারাই মনে হয় আমার থেকে বেশি দেখেছেন। আমি তো আমার ব্যাটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আপনারা ভালো দেখেছেন। বুঝতে পারবেন। উনি শতভাগ ফিট। খেলার জন্য ফিট, যেটা আমার কাছে মনে হয় অধিনায়ক হিসেবে।’

নেটে সাকিবকে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করতে দেখা গেছে। শুরুতে একটানা ২৫ মিনিট ব্যাটিং করেন তিনি। এরপর বিরতি নিয়ে ফিরে আরও ১০ মিনিট নিজেকে ঝালিয়ে নেন। কিন্তু এক পশলা বৃষ্টির বাগড়ায় অনুশীলন অসম্পূর্ণ রেখে মাঠ থেকে উঠে যান।

দলের সঙ্গে গতকাল রাতে যোগ দিয়ে সাকিব আজ শুধুমাত্র ব্যাটিং করেছেন। বোলিং কিংবা ফিল্ডিং অনুশীলনের সুযোগ পাননি। অবশ্য টেস্ট খেলার আগে সাকিব তেমন বোলিং বা ফিল্ডিং অনুশীলন করেন না। নিজের ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দেন।

সাকিবকে রেখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরিকল্পনা সাজিয়েছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু কোভিডে আক্রান্ত হওয়ায় সাকিবকে দল থেকে সরিয়ে নেয়। কিন্তু চারদিনের ব্যবধানে তার তিনবারের কোভিড পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসায় তাকে পাওয়ার সুযোগ তৈরি হয়।

সাকিব নিজে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করায় টিম ম্যানেজমেন্ট বাধা দেয়নি। তবে শর্ত জুড়ে দেয়, ফিটনেস পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। ৬০-৭০ ভাগ ফিট সাকিবকে মাঠে নামানোর পক্ষপাতি নন রাসেল ডমিঙ্গো। শতভাগ ফিট সাকিবকে চান তিনি। তাতে ঝুঁকি থাকবে বলে মত তার।

সাকিব মানসিকভাবে শক্তিশালী হওয়ায় মুমিনুলের তাকে নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই, ‘আমার কাছে তাই (সাকিব ম্যাচ খেলার মতো ফিট) মনে হয়েছে। আমার সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে, সাকিব ভাইয়ের সাইকোলজি অনেক স্ট্রং। উনি যদি চান খেলতে পারবেন। আপনারও জানেন। আমার চেয়ে আপনারাও ভালো জানেন। আমার কাছে সাকিব ভাইকে নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’

সাকিবের হুটহাট উপস্থিতি-অনুপস্থিতিতে বারবার পরিকল্পনা পরিবর্তন করতে হয় দলকে। দক্ষিণ আফ্রিকাকে সাকিব দলে ছিলেন। কিন্তু জরুরি পারিবারিক কাজে দ্রুত তাকে দেশে ফিরতে হয়। এর আগে সাকিব নিউ জিল্যান্ডে খেলেননি সন্তানসম্ভাবা স্ত্রীর পাশে থাকতে। পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রামে খেলেননি। ঢাকা টেস্টে ফিরেছিলেন। এবারও শুরুতে তাকে দলে রাখা হয়েছিল। মাঝে কোভিডের কারণে ছিটকে যান। এরপর আবার ফিরে আসেন।

বারবার পরিকল্পনা পরিবর্তন করা কতোটা কঠিন? মুমিনুলের কাছে প্রশ্ন করা হলে বেশ রক্ষণ্মাতক ছিলেন টেস্ট অধিনায়ক, ‘আমার কাছে মনে হয় পুরো বিষয়টি চিন্তার উপরে। আপনি কিভাবে চিন্তা করবেন। আসলে এরকম চেঞ্জিং আমার জন্য সমস্যা হবে কি হবে না আমি যদি এভাবে চিন্তা করি তাহলে সমস্যা হবে। আমি যদি চিন্তা করি সমস্যা তৈরি হবে না তাহলে সমস্যা তৈরি হবে না। দক্ষিণ আফ্রিকায় তো উনি খেলতেনই। পারিবারিক সমস্যায় খেলতে পারেননি। আর এখানে তো খেলার কথা ছিল। কালকে খেলবেও। হয়তো কোভিডের কারণে সংশয় ছিল। এগুলো নিয়ে আমরা ওতো বেশি চিন্তা করি না।’

ইয়াসিন/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়