ঢাকা     শনিবার   ০২ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ১৮ ১৪২৯ ||  ০২ জিলহজ ১৪৪৩

ভাঙা আঙুলে বোলিং, চার-পাঁচ দিনে ফুল ফিট হওয়ার প্রত্যাশা মিরাজের

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৫০, ২২ মে ২০২২   আপডেট: ১৬:৫৫, ২২ মে ২০২২
ভাঙা আঙুলে বোলিং, চার-পাঁচ দিনে ফুল ফিট হওয়ার প্রত্যাশা মিরাজের

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগে খেলার সময় আঙুলের চোট পেয়ে ছিটকে যান মেহেদি হাসান মিরাজ। একই কারণে এই স্পিনার নেই ঢাকা টেস্টেও। তবে ভাঙা আঙুল নিয়েই শুরু করেছেন ফেরার লড়াই। বাংলাদেশ দলের অনুশীলনে আজ রোববার (২২ মে) বোলিং শুরু করেন মিরাজ।

গত ২৪ এপ্রিল শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের হয়ে খেলা মিরাজ ক্যাচ ধরতে গিয়ে চোট পান ডান হাতের কনিষ্ঠ আঙুলে। এক্সরের পর আঙুলে চিড় ধরা পড়লে ঢাকা টেস্ট থেকে ছিটকে যান তিনি। তার বদলি হিসেবে চট্টগ্রাম টেস্টে খেলেন নাঈম হাসান। তিনিও অবশ্য ঢাকা টেস্ট থেকে ছিটকে গেছেন। 

মিরাজ প্রত্যাশা করছেন খুব দ্রুতই ফুল ফিট হয়ে মাঠে ফিরবেন। রাইজিংবিডিকে মুঠোফোনে মিরাজ বলেন, ‘ওই আঙুলতো বোলিংয়ে ব্যবহার হয় না। আজ থেকে শুরু করলাম। আপাতত কোনো সমস্যা নেই। ঠিকভাবেই বোলিং করতে পেরেছি। আশা করছি চার/পাঁচ দিনের মধ্যে ফুল ফিট হয়ে ব্যাটিং/ফিল্ডিংও শুরু করতে পারবো।’

আজ দলীয় অনুশীলনের শুরু থেকেই ছিলেন মিরাজ। ইনডোরের নেটে আধাঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বোলিং করেন তিনি। শুরুতে একটু অস্বস্তি দেখা গেলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সাবলীল বোলিং করেন। দেখা গেছে চেনা রিদমেই। এর মাঝে একবার ট্রেনার বায়েজিদ ইসলামের শরনাপন্ন হন এই স্পিনার। এই সময় তার হাতে ম্যাজিক স্প্রেও করতে দেখা গেছে।

রাইজিংবিডিকে ট্রেনার বায়েজিদ মুঠোফোনে বলেন ‘আজ কোনো ব্যথা পায়নি সে। রুটিন ট্রিটমেন্ট অনুযায়ী আজ শুধু স্প্রে করেছি। আগের যে ফ্র্যাকচার ছিল এটাই এখনো আছে। বোলিং মাত্র শুরু করেছে আজ থেকে। এটাতো আর দ্রুত ঠিক হয়ে যাবে না। সপ্তাহ খানেক লাগতে পারে, এর বেশিও লাগতে পারে।’

এ দিকে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরি রাইজিংবিডিকে বলেছেন তার ঠিক হতে কিছুটা সময় লাগবে, ‘মিরাজ দেখলো আরকি বোলিংটা করতে পারে কী না। কেমন হচ্ছে। সব ঠিকঠাক হতে সময়তো লাগবে একটু। বোলিং করেছে ঠিকঠাকভাবে। কোনো ব্যাথা পায়নি সে আজকে।’

মিরাজের সেরে ওঠাটা বাংলাদেশের জন্য খুব জরুরি। অফ স্পিনের সঙ্গে শেষ দিকে তার ব্যাটিং দলের জন্য অনেক প্রয়োজন। চট্টগ্রামে বল হাতে নাঈম কাভার দিলেও ঢাকা টেস্টে তিনিও নেই। এবার বিকল্প ভাবনা ভাবতে হচ্ছে টিম ম্যানেজম্যান্টকে।

রিয়াদ/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়