ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ১ ১৪২৯ ||  ১৬ মহরম ১৪৪৪

হেড-লিয়নে ছিন্নভিন্ন শ্রীলঙ্কা, ৪ বলেই জিতলো অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৫৩, ১ জুলাই ২০২২   আপডেট: ১৪:২৯, ১ জুলাই ২০২২
হেড-লিয়নে ছিন্নভিন্ন শ্রীলঙ্কা, ৪ বলেই জিতলো অস্ট্রেলিয়া

প্রথম উইকেট পাওয়ার পর হেডের উল্লাস

শোনা যাচ্ছিল, স্পিনারদের দাপটে তিন দিনেই শেষ হবে গল টেস্টের খেলা। দ্বিতীয় দিন বৃষ্টি বাধ সাধলে সেটা কেবলই মুখের বুলি বলে ধরে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সত্যিই খেলা শেষ হলো তিন দিনের মধ্যে। নাথান লিয়নের সঙ্গে ট্র্যাভিস হেড বল হাতে ছিন্নভিন্ন করলেন শ্রীলঙ্কাকে। তাতে মাত্র ছয় সেশনেই শেষ হলো খেলা, অস্ট্রেলিয়া জিতে গেলো ১০ উইকেটে।

১০১ রানের লিডটা আরও বড় করার ইচ্ছা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। আগের দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান প্যাট কামিন্স ও নাথান লিয়ন সেটা টেনেটুনে বেশিদূর নিতে পারেননি। দিনের দ্বিতীয় ওভারে পেসার আশিদা ফার্নান্ডো জোড়া আঘাতে শেষ দুটি উইকেট তুলে নিলেন। কামিন্স ২৬ রানে খেলতে নেমে কোনো রান করতে পারেননি। সুয়েপসন ১ রানে আউট। এ দিন ৮ রানের বাকি ৭ রানই আসে লিয়নের ব্যাটে, ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

৩২১ রানে অলআউট হওয়া অস্ট্রেলিয়া লিড পায় মাত্র ১০৯ রানের। পিছিয়ে পড়া শ্রীলঙ্কা ব্যাট করতে নামে। দিমুথ করুণারত্নে ও পাথুম নিশানকা বেশ সতর্ক ছিলেন। কিন্তু দুই স্পিনার লিয়ন ও সুয়েপসন স্বস্তিতে থাকতে দেয়নি তাদের। প্রথম চার ব্যাটসম্যানের দুজন করে তাদের শিকার। ৩৭ রানে প্রথম উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কার স্কোর ১৩তম ওভারে ৬৩-৪।

এই ধস সামলে উঠছিলেন দিনেশ চান্ডিমাল ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। দুই প্রান্ত থেকে লিয়ন ও সুয়েপসন সুবিধা করতে পারছিলেন না। ১৯তম ওভারে বল হাতে নিলেন ট্র্যাভিস হেড। খুব কম সময়ই বল করতে দেখা গেছে তাকে। কিন্তু ১৩তম ইনিংসে বল হাতে নিয়েই করলেন বাজিমাত।

হেডের সঙ্গে লিয়ন ছিলেন দুর্দান্ত

১৯তম ওভারে বল হাতে নিয়ে দ্বিতীয় বলেই চান্ডিমালের (১৩) ব্যাট ও প্যাডের মাঝ দিয়ে স্টাম্প ভাঙলেন। ৩২ রানের জুটি ভেঙে ক্যারিয়ারে প্রথম উইকেট নিয়ে বিস্মিত এই অফস্পিনার পঞ্চম বলে করলেন এলবিডব্লিউর জোরালো আবেদন। আম্পায়ার সাড়া না দিলেও আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে রিভিউ নিলেন হেড এবং দেখা পেলেন দ্বিতীয় উইকেটে। এতক্ষণ ক্রিজ আগলে রাখা ধনঞ্জয়া ১১ রানে ফিরলেন মাথা নিচু করে।

ব্যস, দুর্দান্ত ব্রেকথ্রু পেয়ে গেলো অস্ট্রেলিয়া। পরের ওভারে লিয়নের বলে উসমান খাজার ক্যাচ হয়ে ডাক মারেন রমেশ মেন্ডিস। হেড আরেকবার বল হাতে নেন, দ্বিতীয় ওভারে দেন ৬ রান। লিয়ন ৩ রানে নিরোশান ডিকবেলাকে মার্নাস লাবুশেনের ক্যাচ বানিয়ে চতুর্থ উইকেট তুলে নেন।  

দ্বিতীয় ইনিংসেও পঞ্চম উইকেটের অপেক্ষা করছিলেন এই স্পিনার। তখনও শ্রীলঙ্কার ছিল ২ উইকেট। কিন্তু হেড তাকে হতাশ করেন। নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে জেফ্রি ভ্যান্ডারসেকে (৮) করেন বোল্ড। ১০৮ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের শঙ্কায় পড়েছিল স্বাগতিকরা। কিন্তু আসিথা ফার্নান্ডো চার মেরে লিড আনেন। তবে একই ওভারে লাসিথ এম্বুলদেনিয়াকে (০) এলবিডব্লিউ করে শ্রীলঙ্কাকে ১১৩ রানে অলআউট করেন হেড। মাত্র ৫ রানের লক্ষ্য পায় অস্ট্রেলিয়া।

ক্যারিয়ারে প্রথমবার উইকেট পাওয়া হেড মাত্র ২.৫ ওভারে ১০ রান দিয়ে পান চার উইকেট। সমান সংখ্যক উইকেট নেন লিয়ন, ১১ ওভারে দেন ৩১ রান। সুয়েপসন ৭ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। 

জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারতে বেশি সময় লাগায়নি অস্ট্রেলিয়া। রমেশের প্রথম দুটি বল ঠেকানো ডেভিড ওয়ার্নার তৃতীয় ও চতুর্থ বলে ৪ ও ৬ মেরে দলকে জেতান। 

শ্রীলঙ্কায় পরে ব্যাট করে প্রথম পাওয়া জয়ে অস্ট্রেলিয়া দুই ম্যাচের সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে থাকলো। আগামী ৮ জুলাই একই ভেন্যুতে হবে শেষ টেস্ট।  

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়