ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

রভম্যানের সামনে মোসাদ্দেককে পাঠিয়ে ঝুঁকি নিতে চাননি মাহমুদউল্লাহ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৪, ৪ জুলাই ২০২২   আপডেট: ১২:১৬, ৪ জুলাই ২০২২
রভম্যানের সামনে মোসাদ্দেককে পাঠিয়ে ঝুঁকি নিতে চাননি মাহমুদউল্লাহ

২০ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ১৯৩। আসলে ১৯ ওভারে বললেও মন্দ হয় না। ১৩তম ওভারে মোসাদ্দেক হোসেন বোলিংয়ে এসে কোনো রানই তো দেননি। উল্টো ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক নিকোলাস পুরানের উইকেট নিয়েছিলেন। 

তার মেডেন উইকেট ওভারের পর বাংলাদেশ অবশ্য ছন্দ ধরে রাখতে পারেননি। ক্রিজে এসে মাত্র ২০ বলে ফিফটি তুলে নেন রভম্যান পাওয়েল। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ২৮ বলে ৬১ রান নিয়ে। ৬ ছক্কা ও ২ চারে বাংলাদেশের বোলিং এলোমেলো করে দেন এই হার্ডহিটার। 
সাকিবের এক ওভারে তিন ছক্কা ও এক চার উড়ান। তাসকিনকে চোখের পলকে দৃষ্টিসীমার বাইরে পাঠান। ইনিংসের শেষ বলে শরিফুল হজম করেন বিশাল ছক্কা। এমন মারমুখী ব্যাটসম্যানের সামনে অফস্পিনার মোসাদ্দেককে পাঠিয়ে ঝুঁকি নিতে চাননি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। 

মূলত ম্যাচআপ মানে ডানহাতি বোলার টু ডানহাতি ব্যাটসম্যান বা বাঁহাতি বোলার টু বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মুখোমুখি করাতে চাননি বাংলাদেশের অধিনায়ক। এজন্য একপাশে তাসকিন, আরেক পাশে সাকিবকে বোলিংয়ে এনেছিলেন। 

শুধু রভম্যানের ক্ষেত্রেই নয়, নিকোলাস পুরান ক্রিজে থাকার সময় সাকিবকেও বোলিংয়ে আনেননি মাহমুদউল্লাহ। তার এমন মুখস্থ অধিনায়কত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেয়ে যায় বাড়তি সুবিধা। তাতে চার-ছক্কার বৃষ্টিতে তাদের রান চলে যায় চূড়ায়। 

ম্যাচ শেষে মোসাদ্দেককে বোলিংয়ে না আনার কারণ জানাতে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘মোসাদ্দেককে অবশ্যই বোলিং করাতাম। কিন্তু রভম্যান পাওয়েল যখন ব্যাটিংয়ে ছিল, যেহেতু দুজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান… আবার ওই পাশটা একটু ছোটও ছিল। এজন্য ঝুঁকি নেইনি। আমি তাসকিনকে ওই সময়ে বোলিংয়ে আনি। ওই পাশ থেকে সাকিব বোলিং করছিল। দেখবেন সাকিবকে কিছুটা পরে বোলিংয়ে আনি যেহেতু পুরান ব্যাটিং করছিল। আমার মনে হয় রভম্যান পাওয়েল অসাধারণ ব্যাটিং করেছে। আমাদের থেকে ম্যাচটা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই ম্যাচআপ অনেক সময় সুফল দেয়, অনেক সময় বয়ে আনে বাজে ফল। তবে আধুনিক ক্রিকেট অনেক পরিবর্তনযোগ্য। ডানহাতি ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে বোলিং করে ডানহাতি বোলাররা সফল হচ্ছেন। সেটা স্পিনাররাও। আবার বাঁহাতি স্পিনার বা পেসারও বাঁহাতি ব্যাটসম্যানদের ভোগাচ্ছেন। মুখস্থ এমন অধিনায়কত্ব বাংলাদেশের ভরাডুবির কারণ নাকি সেটা ভেবে দেখার সময় এসে গেছে নিশ্চয়ই।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়