ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৪ ১৪২৯ ||  ০২ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

নিউ জিল্যান্ডের হয়ে খেলতে চেয়েছিল স্টোকস: টেলর

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩৩, ১৫ আগস্ট ২০২২  
নিউ জিল্যান্ডের হয়ে খেলতে চেয়েছিল স্টোকস: টেলর

নিউ জিল্যান্ডে জন্ম নিলেও বেন স্টোকস খেলেন ইংল্যান্ডের হয়ে। মাত্র ১২ বছর বয়সে বাবার কোচিংয়ে চাকরির সুবাদে ইংল্যান্ডে পাড়ি জমালেও তার ইচ্ছা ছিল নিউ জিল্যান্ডের জার্সিতে খেলার। সেই সুযোগ করে দিতে চেয়েছিলেন সাবেক ক্রিকেটার রস টেলর। কিন্তু নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (এনজেডসি) কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া না পাওয়ায় পূরণ হয়নি স্টোকসের জন্মভূমির হয়ে খেলার ইচ্ছা।

সম্প্রতি নিজের আত্মজীবনী ‘রস টেলর: ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট’ গ্রন্থে এমন তথ্য দিয়েছেন টেলর। সময়টা ছিল ২০১০ সালে। ইংলিশ কাউন্টি ডারহামে স্টোকসের সঙ্গে খেলতেন তিনি। তার প্রতিভা দেখে প্রশ্ন করেছিলেন, নিউ জিল্যান্ডের হয়ে খেলতে চান কি না! স্টোকস উৎসাহ দেখান। টেলর বিষয়টি নিয়ে এনজেডসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রধান নির্বাহী জাস্টিন ভনের সঙ্গে আলাপ করেন।

কিন্তু ভন বলেছিলেন, স্টোকসকে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে। তারপরই জাতীয় দলে জায়গা হতে পারে। ওই প্রস্তাব মনে ধরেনি স্টোকসের। পরের বছর ২০১১ সালে মাত্র ২০ বছর বয়সে ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দিয়ে অভিষেক হয় তার, সম্প্রতি যে ফরম্যাট থেকে অবসর নিয়েছেন।

টেলর লিখেছেন, ‘সে ছিল ১৮ কি ১৯ বছরের, একজন কিউই। একজনের মাধ্যমে আমি তার কাছে জানতে চাইলাম সে নিউ জিল্যান্ডে আসতে ও দেশের হয়ে খেলতে চায় কি না। সে উৎসাহ দেখিয়েছিল এবং আমি নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী জাস্টিন ভনকে মেসেজ দিয়ে বললাম, স্টোকস নামের এই ছেলেটা সত্যিই ভালো তরুণ ক্রিকেটার এবং নিউ জিল্যান্ডের হয়ে খেলতে আগ্রহী।’

কিন্তু ভনের প্রতিক্রিয়া ছিল উষ্ণ, টেলর লিখেছেন, ‘ভন উত্তরে লিখেছিল, তাকে ঘরোয়া ক্রিকেট দিয়ে শুরু করতে হবে এবং তারপর দেখবো কী হয়। আমি তাকে পরে বললাম, আমরা তাকে আরও ভালো প্রস্তাব দিতে পারি। কারণ আবার তৃণমূল থেকে শুরু করতে হলে সে আগ্রহী হবে না। শেষ পর্যন্ত কিছুই হয়নি।’

নিউ জিল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার আরও লিখেছেন, ‘বেন নিউ জিল্যান্ডের হয়ে খেলতে খুব আন্তরিক ছিল কিন্তু এনজেডসিকে দ্রুত ও সিদ্ধান্তমূলকভাবে কাজ করতে হতো এবং তাকে আশ্বাস দিতে হতো, যেটা স্পষ্টতই করতে প্রস্তুত ছিল না ভন।’

স্টোকসকে হারিয়ে নিউ জিল্যান্ড যে ভুল করেছে সেটার প্রমাণ মেলে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে। ফাইনালে তারই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ওয়ানডের বিশ্ব ট্রফি ঘরে তোলা হয়নি কিউইদের। সম্প্রতি ঘরের মাঠেও টেস্ট সিরিজে নিউ জিল্যান্ডকে হারিয়েছে স্টোকসের দল।

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়