ঢাকা     শুক্রবার   ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২০ ১৪২৯

কোস্টারিকায় ধরাশায়ী জার্মানিকে হারানো জাপান

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১১, ২৭ নভেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৯:৪৯, ২৭ নভেম্বর ২০২২
কোস্টারিকায় ধরাশায়ী জার্মানিকে হারানো জাপান

জার্মানিকে হারিয়ে দারুণ শুরু করা জাপান পরের ম্যাচেই ধরাশায়ী হলো। রোববার কোস্টারিকা তাদের হারিয়েছে ১-০ গোলে। ম্যাচের ৮১ মিনিটে জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন কোস্টারিকার কিশার ফুলার।

কোস্টারিকা প্রথম ম্যাচে ৭ গোলে হেরেছিল স্পেনের কাছে। আজ জাপানকে হারিয়ে তারা দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ালো। আশা বাঁচিয়ে রাখলো পরের রাউন্ডে যাওয়ার।

 

৮১ মিনিটের মাথায় পিছিয়ে পড়লো জাপান:

দারুণ সব আক্রমণ শানানো জাপান ৮১ মিনিটের মাথায় পিছিয়ে পড়লো। এ সময় কিশার ফুলার গোল করে এগিয়ে নেন স্পেনের বিপক্ষে ৭ গোল খাওয়া কোস্টারিকাকে। তাকে গোলে সহায়তা করেন ইয়েল্টসিন তেজেদা।

সুযোগ মিস:

ম্যাচের ৫৭ ও ৬৩ মিনিটে দুটি সুযোগ পায় জাপান। দুইবারই মিস করেন ইয়োকো সোমা।

দুই কর্নার পেল জাপান:

ম্যাচের ৪৮ ও ৪৯ মিনিটে দুই-দুইবার কর্নার পায় জাপান। যদিও কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি।

প্রথমার্ধে গোলশূন্য:

বিশ্বকাপের ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে জাপান-কোস্টারিকা। ইতোমধ্যে প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয়েছে। তবে গোল পায়নি কোনো দল। এই অর্ধের ৫৮ শতাংশ বলের দখল ছিল কোস্টারিকার কাছে। জাপানের কাছে ছিল ৪২ শতাংশ। জাপান গোলপোস্টের দিকে শট নিয়েছিল ২টি। কোস্টারিকা ৩টি। তবে কোনো দলই অন টার্গেটে কোনো শট নিতে পারেনি। জাপান একটি কর্নার পেলেও কোস্টারিকা পায়নি। জাপান ১২টি ফাউল করে ১টি হলুদ কার্ড ও কোস্টারিকা ৫টি ফাউল করে ১টি হলুদ কার্ড দেখেছে।

কোস্টারিকার জোড়া সুযোগ মিস:

ম্যাচের ৩৫ মিনিটে দুই দুইবার গোলের সুযোগ পেয়েছিল কোস্টারিকা। কিন্তু প্রথমে ফ্রান্সিসকো কালভো ও পরে জোয়েল ক্যাম্পবেল মিস করেন।

সুযোগ মিস:

ম্যাচের ৩ মিনিটেই গোলের সুযোগ পেয়েছিল জাপান। কিন্তু রিতসু দোয়ানের নেওয়া শট বাম পাশ দিয়ে চলে যায়। তাকে বল বাড়িয়ে দিয়েছিলেন আয়াসে উয়েদা।

আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে ‘ই’ গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে জাপান ও কোস্টারিকা। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় শুরু হয়েছে ম্যাচটি। যা সরাসরি দেখা যাচ্ছে বিটিভি, গাজী টিভি ও টি স্পোর্টসে।

জাপানের একাদশ:

শুচিগোদা, মায়া ইয়োশিদা, কোইতাকুরা, ইউতো নাগাতোমো, মিকিয়ামানে, দাইচি কামাদা, হিদেমাসা মরিতা, ওয়াতারু এন্ডো, আয়াসে উয়েদা, ইউকিসোমা ও রিতসু দোয়ান।

কোস্টারিকার একাদশ:

কেইলর নাভাস, ফ্রান্সিসকো ক্যালভো, অস্কার ডুয়ার্তে, ব্রায়ান ওভিডো, কেন্ডাল ওয়াস্টন, ইয়েলতসিন তেজেদা, সেলসো বোর্হেস, গেরসন টরেস, কিশার ফুলার, অ্যান্টনি কনটেরাস ও জোয়েল ক্যাম্পবেল।

জাপান তাদের প্রথম ম্যাচে জামার্নিকে হারিয়েছিল ২-১ ব্যবধানে। অন্যদিকে কোস্টারিকা তাদের প্রথম ম্যাচে স্পেনের কাছে উড়ে গিয়েছিল ৭-০ গোলে। আজ জাপান জিতলে নকআউট পর্বে এক পা দিয়ে রাখবে তারা।

কোস্টারিকার বিপক্ষে অবশ্য কখনও প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলেনি জাপান। দুই দল প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল পাঁচবার, কখনও হারেনি জাপানিরা। চারটি জয়ের বিপরীতে একটি ড্র। সবশেষ সাফল্য ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ৩-০ গোলের জয়।

পরিসংখ্যান দিয়ে জাপানিরাই আজকের ম্যাচের ফেভারিট। ২০১৪ সালের কোয়ার্টার ফাইনালিস্ট কোস্টারিকা এই ম্যাচ হারলেই বাদ পড়ে যাবে। শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ জার্মানি। সে ম্যাচে অঘটন ঘটাতে পারলে ভিন্ন কথা, কিন্তু হারই প্রত্যাশিত। তাই জাপানের বিপক্ষে জিতে সমর্থকদের আনন্দ উদযাপনের শেষ সুযোগ হাতছাড়া করতে চায় না মধ্য আমেরিকার দেশটি।

ঢাকা/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়