ঢাকা     রোববার   ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৫ ১৪২৯

দোহায় আর্জেন্টিনার অগ্নিপরীক্ষা

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:১৬, ৩০ নভেম্বর ২০২২   আপডেট: ০৯:১৭, ৩০ নভেম্বর ২০২২
দোহায় আর্জেন্টিনার অগ্নিপরীক্ষা

ফিফা বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনার শেষ ম্যাচ, আরেকটি অগ্নিপরীক্ষা। চার বছর আগে রাশিয়ায় আইসল্যান্ডের সঙ্গে ড্রয়ের পর ক্রোয়েশিয়ার কাছে হেরে খুলতে বসেছিল তাদের বিদায়ের দরজা। শেষ পর্যন্ত নাইজেরিয়ার বিপক্ষে বাঁচামরার লড়াইয়ে ২-১ গোলে জিতে নকআউট নিশ্চিত করেছিল দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। কাতারেও তারা কঠিন চাপে পড়ে সৌদি আরবের কাছে প্রথম ম্যাচে হেরে। দ্বিতীয় ম্যাচে মেক্সিকো দেয়াল ভেদ করে পুনর্জাগরণ হয়েছে তাদের। এবার পোল্যান্ডের বিপক্ষে আলবিসেলেস্তেদের অগ্নিপরীক্ষা, এবার কি লিওনেল মেসিরা পারবেন এই পরীক্ষায় পাস করতে?

আজ বুধবার (৩০ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় দোহায় স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ মুখোমুখি হচ্ছে পোল্যান্ড ও আর্জেন্টিনা। শীর্ষ দুই দলের এই লড়াই যারা জিতবে, তারাই ‘সি’গ্রুপ থেকে নিশ্চিত করবে শেষ ষোলো। ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পোলিশরা, আর দ্বিতীয় স্থানে আর্জেন্টিনার পয়েন্ট ৩।

আর্জেন্টিনা ড্র করলেও নকআউটে যেতে পারে যদি মেক্সিকো ও সৌদি আরবের ম্যাচ ড্র হয়। কিন্তু পোল্যান্ডের সঙ্গে ড্রয়ের পর সৌদি আরব জিতলে বাদ পড়বে আর্জেন্টাইনরা। তবে জয় ভিন্ন অন্য কোনও ভাবনা নেই তাদের।

সেই কাজটা কঠিন হবে মনে করছেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি, ‘আমরা একটি কঠিন খেলা প্রত্যাশা করছি। এটা সত্যি যে আমাদের বিপক্ষে অধিকাংশ প্রতিপক্ষ তাদের খেলার ধরন পাল্টে ফেলে কিন্তু পোল্যান্ডের খেলার ভালো ধারণা আছে, তাদের ১১ জন খেলোয়াড় যে কোনও মুহূর্তে ম্যাচ বদলে দিতে পারে।’

সৌদি আরবের কাছে হেরে মেক্সিকোর বিপক্ষে মূল একাদশে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছিলেন স্কালোনি। পোল্যান্ডের বিপক্ষেও আসবে কয়েকটি পরিবর্তন। যদিও এনিয়ে মুখ খোলেননি আর্জেন্টিনা কোচ, ‘যেভাবে খেলেছিলাম সেভাবে আমরা ম্যাচ শুরু করবো। ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী আমরা দেখবো কী সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়।’

গ্রুপের শীর্ষে থাকা পোল্যান্ডেরও এই ম্যাচটি বাঁচামরার লড়াই। জিতলে কিংবা ড্র করলে তারা পরের ধাপে যাবে। কিন্তু আর্জেন্টিনার কাছে হার তাদের ছিটকে দিতে পারে যদি সৌদি আরব জেতে।  

তাই পোল্যান্ডের লক্ষ্য থাকবে যেভাবেই হোক নিজেদের গোলপোস্ট অক্ষত রাখার। এজন্য লিওনেল মেসিকে বোতলবন্দি করে রাখার বিকল্প নেই। গ্রুপের দুটি ম্যাচেই গোল করা আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে নিয়ে পোল্যান্ডের কোচ সেসলো মিচনিউইচ বলেছেন, ‘মেসি মাঠে যে কাউকে ফাঁকি দিতে পারে। তাই তার চারপাশে আমাদের খেলোয়াড় রাখতে হবে। কারণ সে যদি ফাঁক খুঁজে পায়, সহজেই গোল করবে।’

পোল্যান্ডের জন্য স্বস্তির খবর, বিশ্বকাপে প্রথম গোল পেয়েছেন তাদের সর্বকালের শীর্ষ গোলদাতা রবার্ট লেভানডোভস্কি। মেক্সিকোর বিপক্ষে জালের দেখা পাওয়া এই স্ট্রাইকার মেসিদের বিপক্ষে জ্বলে ওঠেনি কি না, সেটাই দেখার অপেক্ষা।

এনিয়ে বিশ্বকাপে তৃতীয়বার দেখা হচ্ছে আর্জেন্টিনা ও পোল্যান্ডের, যেখানে দুই দলই ১-১ এ সমতায়। ১৯৭৪ সালে জার্মানিতে গ্রুপ ম্যাচে ৩-২ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টাইনরা। পরের আসরে নিজেদের মাটিতে ২-০ গোলে পোলিশদের হারায় তারা। শেষবার দুই দলের মুখোমুখি লড়াই হয়েছিল ২০১১ সালের জুনে। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছিল পোল্যান্ড। সব মিলিয়ে হেড টু হেডে আর্জেন্টিনা এগিয়ে ৬-৩ ব্যবধানে। ১১ বছর পর আরেকটি লড়াইয়ে ব্যবধান বাড়াতে না পারলে এখানেই হয়তো শেষ হবে তাদের পথচলা।

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়