RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৭ ||  ১৩ সফর ১৪৪২

যে কারণে বিতর্কিত ধনকুবের পন্টি চাড্ডা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৬:১৫, ১৮ নভেম্বর ২০১২   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
যে কারণে বিতর্কিত ধনকুবের পন্টি চাড্ডা

রাইজিংবিডি২৪.কম:

পারিবারিক কলহের জেরে সংঘটিত গোলাগুলিতে নিজের ভাইয়ের হাতেই প্রাণ হারিয়েছেন  ‘লিকার টাইকুন’ নামে অভিহিত ভারতীয় ধনকুবের পন্টি চাড্ডা। পাল্টা গুলিতে প্রাণ হারান তার ভাই হরদীপও।

নয়াদিল্লির অদূরে অবস্থিত চাড্ডা পরিবারের নিজস্ব ফার্মহাউজে এ ঘটনা ঘটে। পারস্পরিক ঝগড়া বিবাদের এক পর্যায়ে পন্টি চাড্ডাকে লক্ষ্য করে গুলি চালান হরদীপ। শনিবার দুপুরের দিকে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। এর আগেও উত্তর প্রদেশের মুরাদাবাদে অবস্থিত চাড্ডাদের পারিবারিক বাসভবনে গুলি চলেছিলো। মূলত সম্পত্তিই এই ভ্রাতৃঘাতী বিবাদের মূলকারণ বলে জানা গেছে।

নানা কারণেই বিতর্কিত হন উত্তর প্রদেশ ভিত্তিক এই ধনকুবের। তিনি উত্তর প্রদেশের সাবেক মায়াবতী সরকারের সময় প্রথম আলোচনায় আসেন । কথিত আছে মায়াবতীর প্রত্যক্ষ মদতেই একচেটিয়াভাবে উত্তর প্রদেশের মদের ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করতেন পন্টি চাড্ডা। কম দামের মদ বেশি দামে বিক্রি করে মাত্রাতিরিক্ত মুনাফার জন্য এ সময় ব্যাপক সমালোচিত হন তিনি।

বর্তমানে তার সম্পদের পরিমাণ দেড়শ’ কোটি ডলার। মদের পাশাপাশি রিয়েল এস্টেট, চিনি, চলচ্চিত্র প্রযোজনা এবং চিত্র প্রদর্শনী ব্যবসায় জড়িত ছিলেন তিনি। ভাইদের সঙ্গে নিয়েই নিজেদের চাড্ডা গ্রুপ পরিচালনা করতে পন্টি চাড্ডা।

চাড্ডাকে একসময় সমাজবাদী পার্টির ঘনিষ্ঠ বলে বিবেচনা করা হতো। কিন্তু পরবর্তীতে মায়াবতীর নেতৃত্বাধীন বহুজন সমাজ পার্টি উত্তরপ্রদেশের ক্ষমতায় আসলে রাতারাতি ভোল পাল্টে মায়াবতীর ঘনিষ্ঠ সহযোগীতে পরিণত হন তিনি। এ সময়ই মূলত ফুলে ফেঁপে ওঠে তার ব্যবসা।

পাশাপাশি মায়াবতীর উচ্চাভিলাষী ‘যমুন‍া এক্সপ্রেসওয়ে’ প্রকল্পে বিভিন্ন অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগেও বিতর্কিত হন তিনি। প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণ করা প্রায় সাড়ে চার হাজার একর জমি বরাদ্দ পায় তার মালিকানাধীন নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ওয়েভ ইনফ্রাটেক। পরবর্তীতে তুমুল আলোচিত বিষয়টি শেষ পর্যন্ত উঠেছিলো ভারতের পার্লামেন্টেও।

পন্টি চাড্ডাদের এই ভ্রাতৃঘাতী সংঘাত ভারতের করপোরেট জগতের একটি অন্ধকার দিককেই নতুন করে উন্মোচিত করলো বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা। সাম্প্রতিক সময় বিভিন্ন কারণেই সমালোচিত হচ্ছেন দ্রুত অর্থনৈতিক শক্তি হওয়ার পথে এগিয়ে যাওয়া ভারতের নব্য পুঁজিপতিরা। তাদের লাগামহীন ব্যক্তি জীবন এবং প্রশ্নবিদ্ধ বিপুল সম্পদ ভারতের দৈনিক পত্রিকাগুলোর আলোচনার নিয়মিত বিষয়বস্তু। চাড্ডাদের পারিবারিক সংঘাত এই বিষয়টিকেই নতুন করে সামনে নিয়ে আসলো বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়