ঢাকা     রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১২ ১৪২৭ ||  ০৯ সফর ১৪৪২

ঘাটাইল উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন, চলছে গণনা

আহমেদ রাজু, রহমান মাসুদ, মহিউদ্দিন মাহমুদ, সুমন রায় || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৬:১২, ১৮ নভেম্বর ২০১২   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ঘাটাইল উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন, চলছে গণনা

ঘাটাইল থেকে: টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। সকালের দিকে ভোটারের সংখ্যা কিছুটা বেশি থাকলেও দুপুরে দিকে প্রায় ভোটারশূন্য হয়ে পড়ে বেশিরভাগ ভোটকেন্দ্র।

বিকেলের দিকে অবশ্য ভোটার ‍উপস্থিতি বেড়ে যায়। তাও তুলনামূলক অনেক কম। তবে গ্রামাঞ্চলের কিছু কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি বেশ লক্ষ্য করা গেছে।

ভোটার উপস্থিতি যাই হোক, নির্বাচন কমিশনসহ প্রশাসনের প্রস্তুতি ছিল পর্যাপ্ত। উপনির্বাচন উপলক্ষে পুলিশ, র্যাব, বিজিবি, আর্মড পুলিশ ও আনসার সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় চার হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করেন। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২৭ জন করে সদস্য ছিলেন।

তবে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর আরও বেশি সদস্য মোতায়েন করা হয়। নির্বাচন চলাকালীন বিভিন্ন অনিয়ম মোকাবিলায় ৪০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং চারজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেন।

প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা এখন ফলের অপেক্ষা করছেন। ৮ হাজার ভোটের মধ্যে সর্বাধিক সাড়ে ৫হাজার ভোট পড়েছে বলে যেমন খবর পাওয়া যাচ্ছে, তেমনি প্রায় ৩হাজার ভোটের মধ্যে ১২৭টি ভোট পড়েছে বলে জানা গেছে।

রোববার সকাল আটটা থেকে জনপ্রতিনিধি নির্বাচনের জন্য ৯৬টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থী শহিদুল ইসলাম রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, দিঘলকান্দি ও দিগর ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র থেকে তাঁর এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আমানুর রহমান খান মুকুল একাডেমি উচ্চবিদ্যালয়ে ভোট দেন। এসময় তিনি সাংবাদিকদের কাছে রতনপুরে শহিদুল ইসলামের কেন্দ্রে তাঁর এজেন্টকে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শহীদুল ইসলাম লেবু। জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে লাঙল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন সৈয়দ আবু ইউসুফ আবদুল্লাহ তুহিন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আমানুর রহমান খান রানা। প্রধান বিরোধী দল বিএনপি উপ-নির্বাচন বর্জন করেছে।


ঘাটাইল উপজেলা নিয়ে গঠিত টাঙ্গাইল-৩ আসনের অধীনে ১১টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা ও একটি ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড রয়েছে। এ আসনের মোট ভোটারসংখ্যা ২ লাখ ৭১ হাজার ৩২৯। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩১ হাজার ৭৮৬ আর নারী ভোটার ১ লাখ ৩৯ হাজার ৫৪৩ জন।

শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় কোথাও কোনো অপ্রীতিকর  ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

নির্বাচনী আসনে ক্যান্টনমেন্টের ৭৪ নম্বর কেন্দ্রে সবচেয়ে কম ভোট পড়েছে। কারণ হিসেবে প্রিজাইডিং অফিসার জুলহাস উদ্দীন বাংলানিউজকে বলেছেন, ২০০৮ সালের তৈরি ভোটার তালিকা অনুসারে এ ভোট হয়েছে। এখানকার বেশিরভাগ ভোটার সেনাবাহিনীর সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। যারা এরইমধ্যে বিভিন্নস্থানে চলে গেছেন। তাই ভোটার মূলত: কম।

এদিকে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিতি তেমনটা চোখে না পড়লেও ভোট বেশি পড়েছে বলে উৎসুক্য জনতার মধ্যে কানাঘুষা রয়েছে। তবে এ বিষয়ে শেষ পর্যন্ত প্রার্থীদের পক্ষে তেমন অভিযোগ অনুযোগ শোনা যায়নি।

দুপুরের দিকে নির্বাচন কর্মকর্তারা বলছিলেন, দুপুর পর্যন্ত ৩৫-৪০ শতাংশ ভোটগ্রহণ হয়েছে। শেষ সময় পর্যন্ত ৫০ শতাংশ ভোটগ্রহণ হবে।  

দুপুরের দিকে বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, কেন্দ্রের বাইরে লোক সমাগম থাকলেও ভেতরে ভোটার উপস্থিতি একেবারেই শূন্য। কোনো কোনো কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টদের একেবারেই অলস সময় কাটাতে দেখা গেছে।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘাটাইল এস.ই. বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, ১ নম্বর বুথে ৮৩, ২ নম্বরে ১১০, ৩ নম্বরে ২০২, ৪ নম্বরে ১২৪, ৫ নম্বরে ১৩০ ও ৬ নম্বরে ২২১টি ভোট কাস্ট হয়েছে।

এই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, ২ হাজার ৯৯৮টি ভোটের মধ্যে ৮৭০টি কাস্ট হয়েছে। এখানে সকাল সোয়া ৯টা পর্যন্ত ১৫৮, ১০টা ১০ মিনিটে ৪২৩, পৌনে ১২টায় ৬০৯টি ভোট পড়ে।

হাফিজুর রহমান বলেন, দুপুরের খাবার, গোসল এবং নামাজের কারণে ভোটার উপস্থিতি কম। দুপুরের পর আবার ভোটার বাড়বে।

তবে সার্বিক পর্যবেক্ষণে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ৫০ ভাগ ভোট কাস্ট হবে বলে মনে করেন এই কর্মকর্তা।

বেলা সাড়ে ১২টায় কে নাগবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, কেন্দ্রের মধ্যে ভোটার উপস্থিতি অনেক কম। এ সময় পর্যন্ত ৩৫ ভাগ ভোট কাস্ট হয়েছে বলে জানান কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার শেখ সাদি। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ২ হাজার ৭৮৮ ভোটের মধ্যে পড়েছে ১ হাজার ১শ’ ভোট।

তবে এই কেন্দ্রের কয়েকটি বুথে ভোটগ্রহণের সংখ্যা ছিল অস্বাভাবিক। এর মধ্যে ১ নম্বর বুথে ২১১ ভোটের মধ্যে ৯৪, ২ নম্বরে ৪৫৬ ভোটের মধ্যে ১১৫ এবং ৪ নম্বর বুথে ৪৭৪ ভোটের মধ্যে পড়েছে ২২৫টি।

টাঙ্গাইল-৩ নির্বাচনী এলাকার আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ মতিউর রহমান এ বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর ভারতের একটি হাসপাতালে মারা যান। এরপর এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে জাতীয় সংসদ সচিবালয়। আইন অনুযায়ী নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে শূন্য এ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আজ ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে গত ৮ অক্টোবর তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়