ঢাকা, রবিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিপর্যয়ের পেছনে সাংবাদিকদের দায় দেখছেন মুমিনুল

ইন্দোর থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-১৪ ১১:৫২:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-১৪ ১১:৫২:৪০ পিএম

দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন ৪৮ ঘন্টাও হয়নি। এরই মাঝে মুমিনুল হক ফাঁটালেন বোমা! ইন্দোরে ভারতের বিপক্ষে ব্যাটসম্যানদের হতশ্রী ব্যাটিংয়ে স্বাভাবিকভাবে চাপের মুখে দল। ব্যাট-বলে বাংলাদেশ কাটিয়েছে বাজে দিন।

টেস্ট ম্যাচে দিনের খেলা শেষে দলের প্রতিনিধি হয়ে একজনকে আসতে হয় সংবাদ সম্মেলনে। দলের বিপর্যয়ের দিনে নিজের সৈনিকদের আড়ালে রাখলেন মুমিনুল। নেতা মুমিনুল আসলেন সংবাদ সম্মেলনে। স্বাভাবিকভাবেই ভারতীয় পেসার এবং তাদের বোলিং নিয়ে প্রশ্ন আসবে। তেমনি এক প্রশ্ন আসলে মুমিনুলের কাছে,‘ভারতীয় পেসারদের বিপক্ষে নড়বড়ে ব্যাটিং হয়েছে, ব্যাটসম্যানরা ভীত ছিলেন কিনা?’

উত্তরে মুমিনুল যা বললেন তাতে মনে হল দীর্ঘদিনের নিরাবতা ভাঙলেন তিনি। আফগানিস্তান সিরিজের উদাহরণে টেনে যা বোঝাতে চেয়েছেন তার সারমর্ম দাঁড়ায়, প্রতিপক্ষ দলের বোলারদের নিয়ে প্রশ্ন করে ব্যাটসম্যানদের উপর চাপ বাড়ায় সাংবাদিকরা!

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের সাফল্যের সবথেকে বড় বাঁধা ছিলেন রশিদ খান। স্বাভাবিকভাকেই তাকে সামলানো পরিকল্পনা কিরকম বা তাকে নিয়ে দল কি ভাবছে তা জানতে চাইবে সাংবাদিকরা। কিন্তু মুমিনুলের মতে এমন প্রশ্ন চাপ বাড়ায় ক্রিকেটারদের!

মুমিনুলের ব্যাখা শুনুন তার মুখ থেকেই, ‘মানসিকভাবে প্রস্তুত হয়েই নেমেছি। আমি যদি একটা কথা বলি আপনাদের কাছে হয়ত হাস্যকর লাগবে। যেকোনো সিরিজ শুরু করার আগে আপনাদের একটা বড় ভূমিকা থাকে। কথাটা হয়ত আমার বিরুদ্ধে আসতে পারে। আপনারা অন্যভাবে নিয়েন না। আফগানিস্তানের সঙ্গে যখন খেলি আপনারা এমনভাবে প্রশ্ন করেন যে রশিদ খান আছে, এই আছে, সেই আছে! জিনিসটা যতই চিন্তা না করেন আপনার মাথায় ঢুকবে। এভাবে কঠিন হয়ে যায়। তবে আমাদের মানসিকভাবে আরও শক্ত হতে হবে।’

মুমিনুলের ভাষ্যমতে, ইন্দোর টেস্টের আগে ভারতীয় বোলিং আক্রমণ নিয়ে প্রশ্ন করায় কিছুটা হলেও চাপ বাড়িয়েছে ব্যাটসম্যানদের। ফলে আজকের বিপর্যয়ের পেছনে সাংবাদিকদেরও দায় আছে!

তবে চাইলেই কিন্তু গণমাধ্যমের করা এসব প্রশ্নের এড়িয়ে যাওয়া যায়। উত্তর দিলেই হয়, ‘নো কমেন্ট।’ কিন্তু প্রশ্ন হলো, গণমাধ্যমের প্রশ্নে কেন চাপ আসবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের? সেই ব্যাখ্যা মুমিনুল দিয়েছেন এভাবে, ‘আপনারা প্রশ্ন যেই করেন উত্তর আমাকেই দিতে হবে। মাঝে মাঝে হয় যে আপনি যে প্রসঙ্গ (প্রতিপক্ষের শক্তি) আনেন আমি হয়ত চিন্তা করিনি আগে ওটা। মানুষের মনটাই এমন কিছু ঢুকিয়ে দিলে ভাবনা চলে আসে। তবে একমত- আমার বা সবার আরো বেশি শক্ত হতে হবে।’

শুরুতেই মুমিনুল বলেছিলেন,‘হাস্যকর লাগতে পারে।’ সত্যি কি হাস্যকর লাগছে না?
 

ইন্দোর/ইয়াসিন/আমিনুল/নাসিম 

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন