ঢাকা     রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১২ ১৪২৭ ||  ০৯ সফর ১৪৪২

ব্যাট উপহার দিয়ে মিরাজকে রোহিতের টোটকা

কলকাতা থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৩৬, ২৫ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ব্যাট উপহার দিয়ে মিরাজকে রোহিতের টোটকা

কলকাতা টেস্টে মেহেদী হাসান মিরাজের হয়েছে ভিন্ন অভিজ্ঞতা। গোলাপি বলের ঐতিহাসিক এই টেস্টে তাকে একাদশের বাইরে রেখেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু মিরাজ দুই ইনিংসেই ব্যাট করেছেন ২২ গজে। তবে পারেননি বোলিং করতে।

আইসিসির নতুন নিয়ম কনকাশন সাব। লিটন কুমার দাস মাথায় আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়ায় তার পরিবর্তে নামার সুযোগ হয় মিরাজের। উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের ভূমিকায় দলে থাকায় লিটনের বোলিংয়ের সুযোগ ছিল না। তাই বোলিং করতে পারেননি মিরাজ। নিয়ম অনুযায়ী মিরাজ দুই ইনিংসেই নেমেছিলেন ব্যাটিংয়ে।

ম্যাচ শেষে মিরাজের জন্য চমক অপেক্ষা করছিল। ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা মিরাজকে তার ব্যবহৃত একটি ব্যাট উপহার দেন। পাশাপাশি মিরাজকে নিয়ে সময় কাটান বর্তমান সময়ের সেরা এই ব্যাটসম্যান। মিরাজকে তিনি দিয়েছেন ব্যাটিং টোটকা। 

মিরাজের ব্যাটিং একাধিকবার মাঠ থেকে দেখেছেন রোহিত। নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল ও এশিয়া কাপের ফাইনালে মিরাজের ব্যাটিং দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন ভারতের সহ-অধিনায়ক। ইন্দোর ও ইডেনে মুশফিকের সঙ্গে মিরাজের জুটিরও প্রশংসা করেছেন রোহিত। বলেছেন, ‘ব্যাটিং সামর্থ্য ও প্রতিভা সবই আছে। নিয়মিত পারফর্ম করতে হবে, তাহলে ব্যাটিংয়ে আরও উন্নতি হবে।’  

যুব দলে মেহেদী হাসান মিরাজ ছিলেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার। জাতীয় দলে তার ভূমিকা বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে। যেখানে তার ব্যাটসম্যান স্বত্তা অনেকটাই আড়ালে চলে গেছে। কিন্তু সময় বিশেষে মিরাজ দলের হাল ধরেছেন অনেকবার। মিটিয়েছেন দলের দাবি। রেখেছেন অবদান।

মিরাজকে দেওয়া রোহিতের ব্যাট। ছবি: মিলটন আহমেদ

গত এশিয়া কাপের ফাইনালে লিটনকে নিয়ে মিরাজ নেমেছিলেন ওপেনিংয়ে। তাদের জুটি ছিল ১২০ রানের। রোহিত সেই ইনিংসের প্রশংসায় আলাদা করে বলেছেন, ‘ওই ইনিংসটি মেরামতে লিটনের যেমন ভূমিকা রয়েছে, তেমনই তোমার ভূমিকা রয়েছে।’

মিরাজ যে পজিশনে ব্যাটিং করেন, সেখান থেকে বড় ইনিংস খেলার সুযোগ থাকে সামান্যই। ওই সময়টায় দ্রুত রান তোলার তাড়া থাকে। রোহিতও একটা সময় ব্যাটিং করতেন লোয়ার অর্ডারে। মিরাজের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করেছেন ভারতীয় ওপেনার। বলেছেন, ‘দ্রুত রান তুলতেই হবে, এমনটা ভেবে ব্যাটিং করা হবে ভুল। বলের মেরিট অনুযায়ী খেললে রান আসবে অনায়াসে। শুধু ক্রিকেটের বেসিক ব্যাপারটা অনুসরণ করো।’

মাঠে সফল ও ব্যর্থ হওয়ার সম্ভাবনা সব সময়ই ফিফটি-ফিফটি। ব্যাটসম্যানদের আউট হতে প্রয়োজন মাত্র এক বল। আবার বোলারদের সাফল্য পেতেও প্রয়োজন এক বল। কিন্তু মাঠের বাইরের পরিশ্রম সব সময়ই সফল হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। ২২ গজে সফল হতে মিরাজকে সেই টোটকা দিয়েছেন রোহিত। বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের একটাই কথা, ‘ওয়ার্ক হার্ড, প্লে হার্ড।’

রোহিতের প্রেরণায় মিরাজ পেয়েছেন আত্মবিশ্বাস। তার বিশ্বাস, রোহিতের সঙ্গে কাটানো সময় তাকে একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

 

কলকাতা/ইয়াসিন/পরাগ

রাইজিংবিডি.কম

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়