ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৯ ১৪২৭ ||  ০৬ সফর ১৪৪২

শামীর সঙ্গে রাহীর ত্রিশ মিনিট…

কলকাতা থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৫৩, ২৬ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
শামীর সঙ্গে রাহীর ত্রিশ মিনিট…

ওয়েস্ট ইন্ডিজে অভিষেক ইনিংসেই পাঁচ উইকেটের স্বাদ পেতে পারতেন পেসার আবু জায়েদ রাহী। লিটনের দুই ক্যাচ মিসে তিনেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ডানহাতি পেসারকে। এবারের ভারত সফরেও রাহীর কপাল পুড়েছে। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, চেতেশ্বর পূজারা ও আজিঙ্কা রাহানেকে আউট করেছেন ঠিকই, কিন্তু পাননি ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মায়াঙ্কা আগারওয়ালের উইকেট। তাতে এবারও হয়নি পাঁচের কোটা পূরণ। এ নিয়ে রাহীর আক্ষেপ নেই!

সদ্য সমাপ্ত ভারত সফর রাহীর জন্য গিয়েছে ‘শিক্ষা সফর’ হিসেবে।  বিশ্বের অন্যতম সেরা পেস বোলিং বিভাগ খুব কাছ থেকে দেখেছেন। আবার বোলিং করছেন বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানদের। দুইয়ের মিশেলে রাহী বুঝতে পেরেছেন কোথায় নিজেদের কমতি। কথা বলেছেন ভারতের বোলিং বিভাগের মূল অস্ত্র মোহাম্মদ শামির সঙ্গে। ইন্দোর টেস্টের পর রাহীকে ড্রেসিং রুমে সময় দিয়েছিলেন শামী। ইডেনের পরও দুজন বসেছিলেন আলোচনার টেবিলে। দুজনের আলোচনায় সবার প্রথমেই উঠে আসে ফিটনেস প্রসঙ্গ।

লম্বা সময়ের বোলিং স্পেল করার জন্য প্রয়োজন হয় প্রচুর শক্তির, থাকতে হয় নিবেদন, দিতে হয় শতভাগ। এজন্য ফিটনেস লেভেল থাকতে হয় অন্যদের থেকে অনেক বেশি। শামী রাহীকে শুরুতেই বলেছেন, ‘ফিটনেস নিয়ে উনি বেশি জোর দিয়েছেন। পেসারদের ফিটনেস ভালো হলে অনেকসময় ভালো বোলিং করা যায় এবং দীর্ঘ সময় টিকে থাকা যায়। উনি আমাকে ফিটনেস নিয়ে বেশি কথা বলেছেন।’

এছাড়া বোলিং নিয়ে বাংলাদেশের এ পেসারকে শামী বলেছেন, ‘প্রায় ত্রিশ মিনিট সময়ে উনি আমাকে বোলিং নিয়ে অনেক কথা বলেছেন। টিপস দিয়েছেন। নতুন বলে কিভাবে শুরু করলে ভালো।  পুরাতন বলে কিভাবে করতে হবে। এসব নিয়ে কথা বলেছেন। আমার শক্তির জায়গায় থেকে কিভাবে প্রতিপক্ষের দূর্বল জায়গায় আঘাত করতে পারি সেসব নিয়ে বিশেষ কিছু বলেছেন।’

শামীর সঙ্গে আলোচনায় বসে অনুপ্রাণিত রাহী, ‘আমার সাথেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছে এমন একজন বোলারের কাছ থেকে এসব তথ্য পেয়ে আমি অনুভব করতে পারছি আমার কোথায় আরও উন্নতি করতে হবে। ইনশাআল্লাহ ভালো কিছুই হবে।’

পেসারদের সাফল্যের জন্য আরো কিছুটা সময় দেওয়ার প্রয়োজন অনুভব করছেন দুই টেস্টে ৬ উইকেট পাওয়া রাহী, ‘আমাদের (পেসার) নিজেদের ভেতরে বোলিং নিয়ে কথা হচ্ছে।  কিভাবে পেস বোলিং ইউনিট একসঙ্গে কাজ করতে পারি, উন্নতি করতে পারি এসব নিয়ে কথা হচ্ছে।  আমরা নিজেদের স্কিল উন্নতির চেষ্টা করছি।  সত্যি বলতে, পেস বোলিং বিভাগ উন্নতি করা প্রয়োজন।  আমরা যদি ভালো বোলিং করতে পারতাম অবশ্যই দলের জন্য ভালো হতো।’

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ৭ ম্যাচে ৩১ উইকেট পেয়েছেন শামি।  আগুন ঝরা বোলিংয়ে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানরা ২২ গজে হিমশিম খাচ্ছে।  শামীর আগ্রাসন পেতে চান রাহী।  সিলেটের তরুণ সেই চ্যালেঞ্জটাই নিয়েছেন।  দেখার বিষয়, সামনের দিনগুলোকে রাহী কতোটা কার্যকর হতে পারেন।

 

কলকাতা/ইয়াসিন/আমিনুল

রাইজিংবিডি.কম

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়