ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ৯ ১৪৩০

দেশের উন্নয়নে তরুণদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার দাবি

বগুড়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৪৬, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
দেশের উন্নয়নে তরুণদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার দাবি

প্রান্তিক পর্যায়ে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত, সড়কে সর্বাত্মক নিরাপত্তা ও নাগরিক অধিকার নিশ্চিতকরণে আরও সচেতনতা বৃদ্ধিসহ নানা ইস্যুতে একই সুরে কন্ঠ তুলেছেন বগুড়ার তরুণরা।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বগুড়ার একটি হোটেলে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত ‘আমিও জিততে চাই’ ইয়ুথ ফেয়ার-এ অংশগ্রহণকারী তরুণরা এ দাবি জানান। একই সঙ্গে নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় তরুণদের মতামতকে গুরুত্ব দেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়েছে।

ইউএসএইড’র অর্থায়নে স্ট্রেনদেনিং পলিটিক্যাল ল্যান্ডস্কেপ (এসপিএল) প্রকল্পের আওতায় বেসরকারি সংস্থা ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের আয়োজনে ইয়ুথ ফেয়ারটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে বগুড়ার দু’টি সরকারি এবং একটি বেসরকারি কলেজের শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন যুব সংগঠনের শতাধিক তরুণ-তরুণী অংশ নেন। মেলায় নাগরিক নানা সমস্যা নিয়ে বিতর্ক, কুইজ প্রতিযোগিতা এবং ভিডিও বার্তা তৈরির প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়। মেলার শুরুতেই নাগরিক সমস্যা তুলে ধরে বগুড়া কলেজ থিয়েটারের আয়োজনে ‘জুলেখার জীবন’ নামে একটি মঞ্চ নাটক পরিবেশন করা হয়। কলেজ পর্যায়ে অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় সরকারি আজিজুল হক কলেজের পুণ্ড্র ডিবেটিং ক্লাব। সেরা বক্তা নির্বাচিত হয়েছেন শাহানা আক্তার সুমি।

মেলায় অংশগ্রহণকারীরা বলেন, বেশিরভাগ তরুণই রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে নিজেদের সরিয়ে রেখেছেন এবং তারা রাজনৈতিক আলোচনায় আগ্রহী নন, কারণ তারা মনে করেন তাদের মতামত সেভাবে গুরুত্ব পায় না। দেশের উন্নয়নে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে, তরুণদের প্রত্যাশাগুলোকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য নীতি নির্ধারক এবং রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি অংশগ্রহণকারী তরুণরা আহ্বান জানিয়ে বেশ কিছু প্রত্যাশা তুলে ধরেন।

ইয়ুথ ফেয়ারের অংশ হিসেবে আয়োজিত ‘আমিও জিততে চাই’ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজ, সরকারি শাহ্‌ সুলতান কলেজ এবং সৈয়দ আহম্মেদ কলেজের ৮ বিতর্ক দল।
প্রতিযোগিতায় বিতার্কিকরা নাগরিক ইস্যুর সমাধান বিষয়ে নানা যুক্তি ‍ও পাল্টাযুক্তি তুলে ধরেন। মেলায় ভিডিও বার্তা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে তরুণদের ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ করা যায়। এককভাবে ক্যামেরার সামনে দু-মিনিটে তারা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন পরে তাদের মধ্যে তিনজনকে পুরস্কৃত করা হয়।

মেলায় আলোচনা পর্বে অংশ নেন বগুড়া জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হেফাজত আরা মিরা এবং জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি লাভলী রহমান, জয়পুরহাটের মাল্টি পার্টি অ্যাডভোকেসি ফোরামের সভাপতি খ ম আব্দুর রহমান রনি এবং ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল’র রাজশাহী বিভাগের সিনিয়র রিজিওনাল ম্যানেজার আসমা আক্তার।

এনাম/ফয়সাল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়