ঢাকা     রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

পশুর হাটে জাল টাকা শনাক্তের মেশিন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৮, ১৪ জুন ২০২৪   আপডেট: ১৯:১২, ১৪ জুন ২০২৪
পশুর হাটে জাল টাকা শনাক্তের মেশিন

কোরবানির পশুর হাটে নিরাপত্তা ব্রিফিংয়ে র্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আরাফাত ইসলাম

পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে যে কোনো ধরনের অপতৎপরতা রুখতে সচেষ্ট রয়েছে এলিট ফোর্স র‌্যাব। পশুর হাটগুলোতে র‌্যাবের কন্ট্রোল রুমে জাল নোট শনাক্ত করতে মেশিন রাখা হয়েছে। 

শুক্রবার (১৪ জুন) সকালে রাজধানীর কোরবানির পশুর হাটে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে এ তথ্য জানিয়েছেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা। 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আরাফাত ইসলাম বলেছেন, কোরবানির হাটে পশু ক্রয়-বিক্রয়ে প্রচুর আর্থিক লেনদেন হয়। এক্ষেত্রে অসাধু চক্রের মাধ্যমে জাল টাকা ছড়াছড়ির আশঙ্কা থাকে। জাল টাকা তৈরি ও সরবরাহের সঙ্গে জড়িত চক্রের বিরুদ্ধে তীক্ষ্ণ গোয়েন্দা নজরদারি চলছে। কোরবানির হাট ও মার্কেটে চুরি-ডাকাতি-ছিনতাই, প্রতারক চক্র, দালাল, মলম পার্টি এবং অজ্ঞান পার্টির তৎপরতা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এসব অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা রুখতে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি ও টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে। অসুস্থ গবাদি পশু, কৃত্রিম উপায়ে রাসায়নিক দ্রব্য অথবা ইনজেকশন ব্যবহার করে দ্রুত সময়ে মোটাতাজা করা ও অস্বাস্থ্যকর গবাদি পশু শনাক্ত করতে র‌্যাব কাজ করছে। এসব গবাদি পশু শনাক্ত করে বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন। পশুর হাটগুলোর হাসিল ঘরে সিটি কর্পোরেশন/স্থানীয় সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হাসিল তালিকা আকারে প্রদর্শন করতে হবে। নির্ধারিত হারের বেশি হাসিল নেওয়া প্রতিরোধে র‌্যাবের নজরদারি থাকবে। কেউ নির্ধারিত হারের বেশি হাসিল আদায় করলে বা করতে চাইলে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন। এ-সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ থাকলে র‌্যাব কন্ট্রোল রুমের সহায়তা গ্রহণের জন্য সবাইকে অনুরোধ করা যাচ্ছে। এক হাটের গরু জোর করে অন্য হাটে নামানোসহ পশুর হাটকেন্দ্রিক বিভিন্ন ধরনের চাঁদাবাজি ঠেকাতে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি ও টহল কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

র‌্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, ঢাকামুখী পশু বহনে চাঁদাবাজি রুখতে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি ও নিয়মিত টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে। সড়কপথে নিরাপত্তা দিতে র‌্যাবের টহল চলছে। এ বছর অনলাইনে প্রচুর কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে অনিয়ম ও প্রতারণা প্রতিরোধে র‌্যাবের সাইবার মনিটরিং সেল সার্বক্ষণিক নজরদারি করছে। অনলাইনে পশু কেনাবেচার ক্ষেত্রে সর্তকতা অবলম্বনের জন্য র‌্যাব পরামর্শ দিচ্ছে। এ-সংক্রান্ত কোন অভিযোগ থাকলে র‌্যাব কন্ট্রোল রুমে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হলো। কোরবানির পশুর চামড়ার বাজার ধস নামাতে মুনাফালোভী সিন্ডিকেটের কারসাজির বিরুদ্ধে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি  রয়েছে। তাদের এই অপতৎপরতার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

তিনি আরো বলেন, কোরবানির পশুর হাটে আসা নারীদের উত্যক্ত করা বা যৌন হয়রানি রোধে মোবাইল কোর্টসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও পশুর হাট/তৎসংলগ্ন এলাকায় র‌্যাবের নিয়মিত টহলের পাশাপাশি যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা রোধ আশপাশের এলাকায় র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং সাদা পোশাকে বিভিন্ন জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে গোয়েন্দা কার্যক্রম জোরদার করা হয়েছে। দেশের সবার ঈদ উদযাপন নির্বিঘ্ন করা ও সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণসহ যে কোনো উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলায় সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে র‌্যাব। যে কোনো জরুরি প্রয়োজনে পশু ব্যবসায়ীসহ দেশের সবাইকে র‌্যাবের হটলাইন নাম্বার ০২৫৫৬৬৯৯৯৯, ০১৭৭৭৭২০০২৯ এর মাধ্যমে সহযোগিতার জন্য যোগাযোগ করার পরামর্শ দেওয়া  হলো।

মাকসুদ/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়