ঢাকা     রোববার   ১৪ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

কোরবানির বর্জ্য অপসারণে ডিএনসিসির প্রস্তুতি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১০, ১৭ জুন ২০২৪  
কোরবানির বর্জ্য অপসারণে ডিএনসিসির প্রস্তুতি

ফাইল ছবি

এবারের ঈদে দুপুর দুইটায় বর্জ্য অপসারণের কাজ শুরু করে রাত আটটার মধ্যে শেষ করার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

এজন্য ডিএনসিসির পক্ষ থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম ও সাপোর্টিং জিনিসপত্রের আয়োজন করা হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে-যন্ত্রপাতি: ডাম্প ট্রাক ৮৫টি, পে-লোডার-২১টি, পানির গাড়ি-১৮টি, টায়ার ডোজার-২টি, স্কিড লোডার-৫টি, পিক-আপ-১৪০টি, কন্টেইনার ক্যারিয়ার-৪৫টি, কম্পোক্টর-১২১টি, খোলা ট্রাক-৪৩টি। এছাড়াও বিশেষায়িত যান হিসেবে নতুনভাবে যুক্ত হয়েছে ৮টি আধুনিক কম্প্যাক্টর ট্রাক এবং ৩২টি ডাম্প ট্রাক। মোট যানবাহন ৫২০টি বিশেষায়িত যানবাহন। 

জনবল: ২৮টি ওয়ার্ডে ডিএনসিসির নিজস্ব জনবল থাকবেন ২ হাজার ৩৯৪ জন। ২৬টি ওয়ার্ডে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় থাকবেন ২ হাজার ৩২৩জন।  ভ্যান সার্ভিসকর্মী ৪ হাজার ২০০জন, পিক-আপে নিয়োজিত কর্মী-৪২০জন। সবমিলিয়ে ৯ হাজার ৩৩৭জন কর্মী বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত থাকবেন। 

মালামাল: পলিব্যাগ- ৯ লাখ ৪০ হাজারটি। বায়োডিগ্রেডেবল পলিব্যাগ-এক লক্ষটি। ব্লিচিং পাউডার-২ হাজার ৬৮০ বস্তা (একেকটি বস্তার ওজন ২৫ কেজি করে)। স্যাভলন-৯০০ক্যান (প্রতি ক্যান ৫লিটার)। টুকরি-৭ হাজারটি। ফিনাইল-১ হাজার ২৫০ লিটার।

ডিএনসিসির তথ্য মতে, গত ঈদুল আজহার ৩ দিনে মোট ৩ হাজার ৯৩১ট্রিপ বর্জ্য অপসারণ করা হয়। যার ওজন ছিল ১৯ হাজার ৬৪৪টন। এরই ধারাবাহিকতায় এ বছরে বর্জ্যের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া ডিএনসিসির অস্থায়ী ৮টি পশুর হাট এবং ১টি স্থায়ী পশুর হাট মিলিয়ে মোট ৯টি হাটেরর বর্জ্য ব্যবস্থাপনাও সিটি কর্পোরেশনের তত্বাবধানে সম্পন্ন করা হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন এলাকাসমূহকে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও দুর্গন্ধহীন রাখার লক্ষ্যে জনস্বার্থে পানিবাহী গাড়িতে পানি সরবরাহ জন্য ঢাকা ওয়াসা, ফায়ার সার্ভিস এবং বাংলাদেশ নেভি কর্তৃপক্ষকে পত্র দিয়ে অনুরোধ করা হয়েছে।

ঈদের দিন ও ঈদের পরবর্তী দুই দিন আমিন বাজার ল্যান্ডফিলে যাতায়াতের রাস্তা যানজট মুক্ত রাখার বিষয়ে পুলিশেরর ট্রাফিক বিভাগকে অনুরোধ করা হয়েছে।

ঢাকা উত্তর সিটি এলাকার কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণের জন্য নগর ভবনে অস্থায়ী কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে।

কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণে অন্যান্য বিভাগের কর্মকর্তাগণের সমন্বয়ে তদারকি টিম গঠন করা হযেছে।

কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণে ম্যাটেরিয়াল সংগ্রহ, পশুর হাট পরিস্কারের বিষয়ে কর্মীদের প্রশিক্ষণ ও মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে।

/এমএ/এসবি/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়