ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

তামাকবিরোধী সব কার্যক্রমে পাশে থাকবেন মেনন 

নিউজ ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:২৯, ২২ জানুয়ারি ২০২৪  
তামাকবিরোধী সব কার্যক্রমে পাশে থাকবেন মেনন 

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করার পক্ষে একমত পোষণ করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সংসদ সদস্য (বরিশাল-২) রাশেদ খান মেনন। এ সময় তিনি তামাকবিরোধী সব কার্যক্রমে পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

সোমবার (২২ জানুয়ারি) বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘নারী মৈত্রীর’ একটি প্রতিনিধিদল মেননের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাতকালে নারী মৈত্রীর পক্ষ থেকে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের গুরুত্ব ও দাবিগুলো ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতির সামনে উপস্থাপন করা হয়। 

‘নারী মৈত্রীর’ দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে—

* সব ধরনের পাবলিক প্লেস, কর্মক্ষেত্র ও গণপরিবহনে ধূমপান পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা।
*বিক্রয়কেন্দ্রে তামাকজাত দ্রব্য প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা।
* তামাক কোম্পানির ‘কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা’ বা সিএসআর কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা।
* বিড়ি-সিগারেটের সিঙ্গেল স্টিক বা খুচরা শলাকা ও মোড়কবিহীন বিক্রি নিষিদ্ধ করা।
* ই-সিগারেট ও হিটেড টোব্যাকো প্রোডাক্ট (এইচটিপি) আমদানি ও বিক্রয় নিষিদ্ধ করা।
* সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কবার্তার আকার বৃদ্ধি (৫০% থেকে ৯০% এ উন্নীতকরণ) ও প্লেইন প্যাকেজিং-সহ তামাকজাত দ্রব্য মোড়কজাতকরণের ক্ষেত্রে কঠোর নিয়ম প্রণয়ন করা।

দাবির প্রেক্ষিতে জনস্বাস্থ্যের সুরক্ষায় ও জীবন রক্ষায় দ্রুততম সময়ে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালীকরণে একমত পোষণ করেন মেনন। তিনি বলেন, বর্তমানে তরুণরা ই-সিগারেটের প্রতি বেশি আসক্ত হয়ে পড়ছেন। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম রক্ষায় আমাদের এখনই সচেতন হতে হবে। 

‘নারী মৈত্রীর’ প্রতিনিধিদলে ছিলেন—সংস্থাটির টোব্যাকো কন্ট্রোল প্রজেক্টের কো-অর্ডিনেটর নাছরিন আকতার, অ্যাডভোকেসি অফিসার মেহেদি হাসান ও মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন অফিসার আলফি শাহরীন।

উল্লেখ্য, তামাক স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ‘টোব্যাকো এটলাস ২০১৮’-এর তথ্য মতে, তামাক ব্যবহারজনিত রোগে প্রতিবছর বাংলাদেশে ১ লাখ ৬১ হাজার মানুষ অকালে মৃত্যুবরণ করেন।

ঢাকা/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়