ঢাকা     রোববার   ০৩ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

টুয়েলভথ ফেল: বদলে দিয়েছে নায়িকার জীবন

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৪১, ১৯ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১১:৫৬, ১৯ জানুয়ারি ২০২৪
টুয়েলভথ ফেল: বদলে দিয়েছে নায়িকার জীবন

বিধু বিনোদ চোপড়া নির্মিত আলোচিত সিনেমা ‘টুয়েলভথ ফেল’। গত বছরের ২৭ অক্টোবর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর চর্চায় পরিণত হয় সিনেমাটি। অল্প বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি দারুণ ব্যবসা করে। গত ২৯ ডিসেম্বর ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তির পর সিনেমাটির জনপ্রিয়তার বাতাস লাগে বাংলাদেশেও; শুরু হয় জোর চর্চা।

ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিসের (আইপিএস) কর্মকর্তা মনোজ কুমার শর্মার জীবনের গল্প নিয়ে ২০১৯ সালে ‘টুয়েলভথ ফেল’ নামে একটি উপন্যাস লেখেন ভারতীয় ঔপন্যাসিক অনুরাগ পাঠক। এই উপন্যাস অবলম্বনেই সিনেমা বানিয়েছেন বিধু বিনোদ। ভারতের এক প্রত্যন্ত এলাকার নিম্নবিত্ত পরিবারের ছেলে মনোজের নানা চড়াই-উতরাই, বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে কঠিন সংগ্রাম করে আইপিএস কর্মকর্তা হওয়ার গল্পই বলা হয়েছে এই সিনেমা।

 

সিনেমাটিতে মনোজ কুমার শর্মার চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিক্রান্ত ম্যাসি। তার বিপরীতে অর্থাৎ শ্রদ্ধা জোশি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেধা শংকর। বিক্রান্ত যেমন তার পারফরম্যান্সের জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছেন, তেমনি মেধাও ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছেন সিনেমাপ্রেমীদের। বলা যায়, সিনেমাটি মেধার জীবনই বদলে দিয়েছে।

 

‘টুয়েলভথ ফেল’ সিনেমা মুক্তির আগে ইনস্টাগ্রামে মেধার অনুসারী ছিল মাত্র ১৬ হাজার। কিন্তু সিনেমাটি মুক্তির পর রাতারাতি বৃদ্ধি পায় এই সংখ্যা। অল্প সময়ের ব্যবধানে বর্তমানে মেধাকে অনুসরণ করছেন ১৯ লাখ মানুষ।

 

হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মেধা শংকর বলেন, ‘এটা অপ্রতিরোধ্য। আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। আমরা যখন সিনেমাটি নির্মাণ করি, তখন আমরা যা করছিলাম তা নিয়ে গর্বিত ছিলাম। আমরা জানতাম, যে সততা সিনেমায় রেখেছি তা মানুষকে নাড়া দেবে। কিন্তু মানুষের কাছ থেকে এতটা সাড়া পাব তা ভাবিনি।’

 

মেধা কখনো সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি নজর দেননি। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘এই ফিল্মের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় লগ-ইন করার আগে আমার ফলোয়ার ছিল ১৬ হাজার। কারণ আমি ইনস্টাগ্রামে সেভাবে সরব ছিলাম না। নিয়মিত কনটেন্ট শেয়ার করতাম না। সিনেমাটি ওটিটিতে মুক্তির পর ফলোয়ার সংখ্যা ভীষণভাবে বাড়তে থাকে। এখন অনুসারীর সংখ্যা ১৯ লাখ। ধীরে ধীরে সোশ্যাল মিডিয়ার শক্তি উপলদ্ধি করতে পারছি।’

 

‘অভিনেত্রী হিসেবে আমি এখন বুঝতে পারছি সোশ্যাল মিডিয়ার গুরুত্ব। আমার সিনেমা ভালো হয়েছে, আমার অভিনয় প্রশংসা কুড়িয়েছে, এজন্য আমি আরো ভালো কাজের সুযোগ পাব। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে আমরা একমত যে, এটি আমাদের অর্থ দেবে। অর্থ আয়ের জন্য এটি বড় একটি মাধ্যম। অনেক ব্র্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া আমাকে পথ তৈরি করে দেবে।’ বলেন মেধা।

 

ভারতের উত্তর প্রদেশের নয়ডায় জন্মগ্রহণ করেন মেধা শংকর। সেখানেই বড় হয়েছেন তিনি। ছোটবেলায় গানের প্রতি বেশি আগ্রহী ছিলেন। অল্প বয়সে হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত শিখেছেন। দিল্লির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ফ্যাশন টেকনোলজি থেকে ফ্যাশন ম্যানেজমেন্টে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন মেধা। ২০১৫ সালে ‘উইথ ইউ ফর ইউ অলওয়েজ’ শিরোনামে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু।

 

২০১৯ সালে ব্রিটিশ টিভি সিরিজ ‘বিচাম হাউস’-এ অভিনয় করেন মেধা। পর্দায় স্বল্প সময়ের উপস্থিতি দিয়ে খুব একটা নজর কাড়তে পারেননি তিনি। ২০২১ সালে ‘শাদিস্থান’ সিনেমার মাধ্যমে মেধার বলিউড যাত্রা শুরু। ‘টুয়েলভথ ফেল’ মেধার ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট। সিনেমাটি মুক্তির পর নতুন নতুন সিনেমার কাজের প্রস্তাব পাচ্ছেন। তবে এখন দেখেশুনে সামনে এগুতে চান মেধা।

ঢাকা/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়