ঢাকা     শনিবার   ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২১ ১৪২৯

নড়াইলে আমার কোনো গ্রুপ নেই: মাশরাফি

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩৬, ৭ মে ২০২২  
নড়াইলে আমার কোনো গ্রুপ নেই: মাশরাফি

মাশরাফি বিন মর্তুজা

নড়াইলের কোথাও কোথাও অনেকেই নিজেকে মাশরাফির গ্রুপ বা লোক বলে পরিচয় দিয়ে ফায়দা লুটেন- এমন অভিযোগ তিনি নিজেই করেছেন। এমনকি বিষয়টি কঠোর হস্তে দমন করবেন জানিয়ে মাশরাফি এও বলেছেন, নড়াইলে তার কোনো গ্রুপ নেই। তিনি একমাত্র আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেন।

এরকম কেউ যদি নাম ভাঙিয়ে ফায়দা লুটতে চায়, তাহলে সরাসরি প্রশাসনকে অবগত করার আহ্বান জানিয়েছেন মাশরাফি। শনিবার (৭ মে) ‘মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা-এম.পি’ ফেসবুক পেজে এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট মাশরাফি বিন মর্তুজার বরাত দিয়ে পোস্ট করা হয়। 

পোস্টে মাশরাফির বরাতে বলা হয়, প্রিয় নড়াইলবাসী; আসসালামু আলাইকুম। আমি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধি। তাই আমি মনে করি, আপনাদের কাছে কাজের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা আমার অন্যতম দায়িত্ব। সেই দায়বদ্ধতা থেকে আমি আপনাদের উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু বিষয় সবিনয়ে অবগত করতে চাই। 

তিনি বলেন, আমি বিভিন্ন সময়ে খবর পাই যে; নড়াইলের কোথাও কোথাও অনেকেই নিজেকে আমার গ্রুপ বা আমার লোক বলে পরিচয় দেন। উদাহরণস্বরূপ বলবো, লোহাগড়া পৌরসভার কোনো টেন্ডার/ইজারা হলে সেখানে নাকি আমার নামে একটা গ্রুপ কাজ পায়। এমনকি নড়াইল পৌরসভাসহ বিভিন্ন জায়গায় কিছু লোক এমন পরিচয় দেন বলে আমি জেনেছি। 

নিজের কোনো গ্রুপ নেই জানিয়ে ম্যাশ লিখেন, এবিষয়ে আমি আগেও বলেছি। এখন আবারো বলছি। আমার কোনো গ্রুপ নেই। আমার বিশেষ পছন্দনীয় কোনো ব্যক্তিও নাই। জননেত্রী শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ, এই দলে এটাই একমাত্র গ্রুপ। এখানে আমি কেন, কারো নামেই কোনো গ্রুপ নেই। আমি এটি বিশ্বাস ও ধারণ করি।

মাশরাফির বিশেষ পছন্দনীয় কোনো ব্যক্তি নেই। কেউ যদি কোথাও এমনটা পরিচয় দেয়, তাহলে বুঝতে হবে তিনি ব্যক্তিগত সুবিধার আশায় নাম ভাঙাচ্ছেন- এমনটা সাবধান করে মাশরাফি জানান, আমি সবাইকে নিয়ে পথ চলতে চাই। বিশেষ কাউকে সুবিধা দিতে আপনারা কেউ আমাকে এমপি করেননি। আমি সবার, আর সবাইকে নিয়েও পথ চলতে চাই। আমার নাম ভাঙিয়ে যদি কেউ ফায়দা লুটতে চায় তাহলে সরাসরি আমাকে অথবা প্রশাসনকে অবগত করবেন।

তিনি বলেন, আমি সবার এমপি হতে চাই। আশা করি, স্বার্থান্বেষী একটি মহলের চক্রান্তে আপনারা আমাকে ভুল বুঝবেন না। আমি কাউকে বিশেষ সুবিধা দিতে কখনো কোথাও ফোন করি না। আমি ক্রিকেটাঙ্গন থেকে জন্মভূমি নড়াইলের রাজনীতিতে এসেছি শুধুমাত্র নড়াইলের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন করার জন্য। ব্যক্তি উন্নয়ন বা কাউকে বিশেষ সুবিধা দিতে আমি আসিনি এবং এজন্য আপনারাও আমাকে ভোট দিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেননি।

সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে সাবেক অধিনায়ক বলেন, আমরা সবাই ছোট্ট জেলা নড়াইলের বাসিন্দা। ছোট্ট এই জেলাকে বিভিন্ন গ্রুপ, সাব গ্রুপে ভাগ করে আরো ছোট করে ফেলা; খণ্ড-বিখণ্ড করা আমাদের সংকীর্ণতার পরিচায়ক। আয়তনে নড়াইল ছোট হলেও ঐক্যে, বন্ধনে আমরা সবাই মিলে অনেক বড় জেলা হতে চাই। আয়তনের ক্ষুদ্রতাকে চিন্তা চেতনার ক্ষুদ্রতা দিয়ে আরো সংকীর্ণ করতে চাই না। আসুন আমরা সকলে এ লক্ষে একসাথে কাজ করি।

ঢাকা/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়