ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

পদ্মা-মেঘনা-যমুনায় ভাগ হয়ে লাল বলের যুগে বাংলাদেশের মেয়েরা 

ক্রীড়া প্রতিবেদক  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:২২, ৩০ মার্চ ২০২৩   আপডেট: ১৪:৩৪, ৩০ মার্চ ২০২৩
পদ্মা-মেঘনা-যমুনায় ভাগ হয়ে লাল বলের যুগে বাংলাদেশের মেয়েরা 

বাংলাদেশ নারী ক্রিকেটে টেস্ট স্ট্যাটাস পেয়েছিল ২০২১। দুই বছর আগে ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণ টেস্ট খেলার স্বীকৃতি পেলেও বাংলাদেশের মেয়েরা লাল বলে এতদিন খেলতে পারেননি। অবশেষে টেস্ট খেলার প্রস্তুতি স্বরূপ শুরু হয়েছে মেয়েদের বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল)।

বিখ্যাত তিন নদীর নাম তথা পদ্মা, মেঘনা ও যমুনায় গড়া তিন দল নিয়ে আজ বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) থেকে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে শুরু হয় নারীদের বিসিএল। মেয়েদের এই টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নারী বিভাগের প্রধান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের মেয়েরা খেলছেন লাল বলে কিংবা একাধিক দিনের ম্যাচ। দুই দিন ব্যাপি বিসিএল হচ্ছে ১০০ ওভারে। বিসিবির চুক্তিবদ্ধ নারী ক্রিকেটারসহ বাইরের খেলোয়াড়দের নিয়ে তিনটি দল গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি দলের জন্য কোচিং স্টাফসহ সবধরণের ব্যবস্থা করেছে বোর্ড। নারী দলের প্রধান কোচ হাসান তিলকারেত্ন তদারকি করছেন। 

টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করে নাদেল ফেরেন ঢাকায়। তবে খুলনাতেই আছেন নারী দলের প্রধান কোচ। ঢাকায় ফিরে লাল বলে মেয়েদের খেলা নিয়ে আশার কথা শোনালেন নাদেল। জানিয়েছেন এটির মাধ্যমে তারা টেস্ট ক্রিকেটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবে। রাইজিংবিডিকে তিনি মুঠোফোনে বলেন, ‘আমরা আশাবাদী এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে ধীরে ধীরে মেয়েরা টেস্ট ক্রিকেটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের মেয়েরা লাল বলে খেলছে। আমরা অন্তত আরও বছর খানেক লাল বলে প্রস্তুতি নেব।’

দুই বছর আগে টেস্ট স্ট্যাটাস পেলেও মেয়েরা সহসা আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে না। বিসিবি চাইছে প্রস্তুতি নিয়েই যাতে মেয়েরা খেলতে নামে। ‘মেয়েরা তো একদিনের ক্রিকেট, টি-টোয়েন্টিতে অভ্যস্ত। হুট করে চারদিনের ম্যাচ খেলতে পারবে না। আমরা এই টুর্নামেন্ট গতবছর করতে চেয়েছিলাম। আগামীতে আরও একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করবো। এরপর টেস্ট খেলার কথা ভাবা হবে’-মুঠোফোনে এভাবেই বলছিলেন নাদেল।      

খেলাগুলো হবে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে। পদ্মার নেতৃত্বে ফাহিমা খাতুন, যমুনার সোবহানা মোস্তারি ও মেঘনার নেতৃত্বে আছেন লতা মন্ডল। জাতীয় দল, ইমার্জিং দল, অনূর্ধ্ব-১৯ দল ও বয়সভিত্তিক দল থেকে ক্রিকেটারদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে ৩টি দল।  ১৪ জন করে সর্বমোট ৪২ জন সুযোগ পাচ্ছেন বিসিএল খেলার। 

সিঙ্গেল রাউন্ডের এই লিগ চলবে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত। আজ লড়ছে পদ্মা-যমুনা। ৩-৪ এপ্রিল মেঘনা-যমুনা ও ৭-৮ এপ্রিল মাঠে নামবে পদ্মা-মেঘনা।

টিম পদ্মা 

রুবিয়া হায়দার ঝিলিক, শারমিন সুলতানা, সালমা খাতুন, রিতু মনি, সুরাইয়া আজমিন, সাথী রাণী, শরিফা খাতুন, উন্নতি আক্তার, দিশা বিশ্বাস, ফাহিমা খাতুন, ফাল্গুনি চৌধুরী বন্যা, রিয়া আক্তার শিখা, জান্নাতুল মহুয়া ও সুবর্ণ কর্মকার।

টিম মেঘনা 

শামীমা সুলতানা, শারমিন আক্তার সুপ্তা, ইশমা তানজিম, সুমাইয়া আক্তার, ফারিহা ইসলাম তৃষ্ণা, দিপা খাতুন, নাহিদা আক্তার, নাজমুন নাহার রুনা, খাদিজাতুল কুবরা, রাবেয়া, লতা মন্ডল, পুজা চক্রবর্তী, মিষ্টি রাণী সাহা, লেকি চাকমা।

টিম যমুনা 

মুর্শিদা খাতুন, ফারজানা হক পিংকি, স্বর্ণা আক্তার, সানজিদা আক্তার মেঘলা, মারুফা আক্তার, সোবহানা মোস্তারি, শানু আক্তার, ফারজানা আক্তার লিসা, ইভা, নিশিতা আক্তার, আফিয়া হুমাইরা আনাম প্রত্যাশা, আশরাফি ইয়াসনিম আর্থি, সুলতানা খাতুন, জুয়াইরায়া ফেরদৌস জয়ীতা।

ঢাকা/রিয়াদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়