ঢাকা     শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১ ১৪৩১

পোশাক খাতের উন্নয়নে ইইউকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানালো বিজিএমইএ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১৩, ১৯ মে ২০২৪   আপডেট: ২০:১৩, ১৯ মে ২০২৪
পোশাক খাতের উন্নয়নে ইইউকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানালো বিজিএমইএ

পোশাক খাতের উন্নয়নে ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ) সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ)। ১৯ মে (রোববার) সংগঠনটির সঙ্গে ইইউ, ডেনমার্ক, জার্মানি, নেদারল্যান্ডস, সুইডেন, স্পেন এবং ইতালির রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দলের বৈঠককালে বিজিএমইএ সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) এই আহ্বান জানান।

বৈঠকে বাংলাদেশে ইইউ প্রতিনিধি দলের প্রধান ও রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি, ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত ক্রিশ্চিয়ান ব্রিকস-মোলার, জার্মানির রাষ্ট্রদূত আচিম ট্রস্টার, ইতালির রাষ্ট্রদূত আন্তোনিও আলেসান্দো, সুইডেনের রাষ্ট্রদূত আলেকজান্দ্রা বার্গ ভন লিন্ডে, নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্স থিজস ওয়াউডস্ট্রা, ইইউ ডেলিগেশনের উপপ্রধান (ডেপুটি হেড অব মিশন) ড. বার্ন্ড স্প্যানিয়ার, স্প্যানিশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল অ্যাটাশে এসথার পেরেজ তাহোসেস এবং বাংলাদেশে ইইউ প্রতিনিধিদলের বাণিজ্য উপদেষ্টা আবু সৈয়দ বেলাল। এছাড়া বৈঠকে বিজিএমইএ এর সিনিয়র সহ-সভাপতি খন্দকার রফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি আরশাদ জামাল (দীপু), সহ-সভাপতি (অর্থ) মো. নাসির উদ্দিনসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে বিজিএমইএ সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পের বিভিন্ন দিকগুলো বিশেষ করে সাম্প্রতিক সময়ে কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা ও শ্রমিকদের কল্যাণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্জনগুলো তুলে ধরেন। তিনি ইইউকে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে সহযোগিতা প্রদান অব্যাহত রাখা, বিশেষ করে চলমান ইবিএ স্কিম থেকে জিএসপি প্লাস এ উত্তোরণের সময়কাল বৃদ্ধি করে সহযোগিতা প্রদানের অনুরোধ জানান।

এস এম মান্নান বলেন, ‘স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) ক্যাটাগরি থেকে উত্তোরণের পরও বাংলাদেশ যাতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারে, তা নিশ্চিত করার জন্য এই সম্প্রসারণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’ ডিউ ডিলিজেন্স ডিরেকটিভ ও অন্যান্য আসন্ন প্রটোকলগুলো অনুসরণ করার ক্ষেত্রে শিল্পের সক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য ইইউ এর সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

বিজিএমইএ সভাপতি পণ্যের ন্যায্য মূল্য এবং নৈতিক সোর্সিং নিশ্চিত করতে ইউরোপীয় ক্রেতাদের আহবান জানানোর জন্যও রাষ্ট্রদূতদের অনুরোধ করেন। 

 

এনএফ/শাহেদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়