ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

পুঁজিবাজার 

পতনে চলছে লেনদেন, আতঙ্কে বিনিয়োগকারীরা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪৭, ২৫ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১১:৪৭, ২৫ এপ্রিল ২০২৪
পতনে চলছে লেনদেন, আতঙ্কে বিনিয়োগকারীরা

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) সূচকের বড় পতনে লেনদেন চলছে। এদিন লেনদেন শুরুর দেড় ঘণ্টায় ডিএসইএক্স সূচক ৯৮ পয়েন্ট পতন হয়েছে। পাশাপাশি বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। একইভাবে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচকেও ব্যাপক পতন লেনদেন চলছে। সেইসঙ্গে কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, বুধবার (২৪ এপ্রিল) পুঁজিবাজারে টানা দর পতন রোধ করতে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম কমার নতুন সীমা বা সার্কিট ব্রেকার বেঁধে দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী কোম্পনিগুলোর শেয়ারের দর একদিনে সর্বোচ্চ কমতে পারবে ৩ শতাংশ। তবে সর্বোচ্চ দর আগের নির্দেশনা অনুযায়ী বহাল থাকবে।

বিএসইসির এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা পরেও পুঁজিবাজারের পতন টেকানো যাচ্ছে না। বরং এই নির্দেশনা পতনকে আরও দীর্ঘায়িত করেছে বলে মনে করছেন পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা।

এর আগেও পুঁজিবাজারে পতন ঠেকাতে ফ্লোর প্রাইস প্রত্যাহার করে সার্কিট ব্রেকার আরোপ করেছিলো বিএসইসি। ওই সময়ে এটি কোন কার্যকরি ভূমিকা রাখতে পরেনি। সেই জিনিস আবারও নতুন করে দিয়েছে সংস্থাটি।

তথ্য মতে, এদিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ডিএসই প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ৯৮.৪৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৪৮০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ২০৮ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ২৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯৬৩ পয়েন্টে।

এ সময় লেনদেন হওয়া ৩৮৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৯টির, দর কমেছে ৩৪৬টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির। এ সময় টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২৩৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

অন্যদিকে, সিএসইর প্রধান সূচব সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ৯৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৫২৫ পয়েন্টে। সার্বিক সূচক সিএএসপিআই আগের দিনের চেয়ে ১৬০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৮১৯ পয়েন্টে।

এ সময় লেনদেন হওয়া ১৬৫টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০টির, দর কমেছে ১৪৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টির। এ সময়ে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৩ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

/এনটি/এসবি/

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়