ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

‘সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুঁজিবাজারে আনা ডিএসইর লক্ষ্য ছিল’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:১৭, ১১ মে ২০২৪  
‘সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুঁজিবাজারে আনা ডিএসইর লক্ষ্য ছিল’

ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু বলেছেন, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তি করা ডিএসইর দীর্ঘদিনের লক্ষ্য ছিল৷ অনেক চেষ্টা করেও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে তালিকাভুক্ত করতে পারেনি ডিএসই৷ অবশেষে, পুঁজিবাজারের মাধ্যমে অর্থনীতিকে গতিশীল করতে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা নিয়ে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো তালিকাভুক্তির নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য ডিএসইর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

শনিবার (১১ মে) ডিএসইর উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বার্তায় ডিএসই চেয়ারম্যান ড. হাসান বাবু বলেন, গত ৯ মে শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা কমিশনে এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় সরকারি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুঁজিবাজারে আনার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ ভালো শেয়ারের সরবরাহ বাড়িয়ে দেশের শেয়ারবাজারকে আরো শক্তিশালী করতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগকে সম্ভাবনাময় রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সরকারি সংস্থা ও সরকারি কোম্পানিগুলোকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত করার কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা পুঁজিবাজারের জন্য অত্যন্ত ইতিবাচক ও সময়োপযোগী৷

তিনি বলেন, উক্ত নির্দেশনা বাস্তবায়ন হলে ভালো কোম্পানি তালিকাভুক্তির মাধ্যমে পুঁজিবাজারে গতিশীলতা বৃদ্ধির পাশাপাশি সার্বিক অর্থনীতিতে গতি আসবে এবং পুঁজিবাজার দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করবে, যা পুঁজিবাজারের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করবে৷ পুঁজিবাজারকে ঘিরে সরকারের এই ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি ও মনোভাবের ফলে দেশের শিল্পায়নের গতি ত্বরান্বিত হওয়ার মাধ্যমে পুঁজিবাজার দেশের অথনৈতিক উন্নয়নে আরও বেশি কার্যকরী ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে৷ পুঁজিবাজার সম্প্রসারণ ও গতিশীল করার জন্য এর প্রতি সরকারের বিশেষ গুরুত্ব আরোপকে বিশেষভাবে অভিনন্দন জানাই।

ডিএসই’র চেয়ারম্যান আরও বলেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জও পুঁজিবাজারকে অধিকতর গতিশীল করতে অবকাঠামোগত ও প্রযুক্তিগত সকল ধরনের উন্নয়ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে৷ একই সঙ্গে বিভিন্ন গ্রুপ অব কোম্পানিজ এবং আরএমজি সেক্টরের গ্রিন ফ্যাক্টরিগুলোকে পুঁজিবাজারে অন্তর্ভুক্তির জন্য ডিএসই কাজ করে যাচ্ছে৷ দীর্ঘমেয়াদী মূলধন সংগ্রহের অন্যতম মাধ্যম হলো পুঁজিবাজার। তাই, উন্নয়ন অগ্রযাত্রার স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে দেশের পুঁজিবাজার সরকারকে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে।

এনটি/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়