ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

সিনেমা রিলিজ নিয়ে আর্টিস্টদের যে মনোবৃত্তি তা ভালো নয়: রুবেল 

রাহাত সাইফুল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৫৪, ২৪ এপ্রিল ২০২৩   আপডেট: ১৩:৫২, ২৪ এপ্রিল ২০২৩
সিনেমা রিলিজ নিয়ে আর্টিস্টদের যে মনোবৃত্তি তা ভালো নয়: রুবেল 

মাসুম পারভেজ রুবেল। মার্শাল আর্ট হিরো হিসেবে বাংলা চলচ্চিত্রে তার দুর্দান্ত আবির্ভাব। পর্দায় কুংফু-কারাতের নান্দনিক সব কৌশল দেখিয়ে বাংলা সিনেমায় এনেছিলেন নতুন জোয়ার। জুটি প্রথায় আবদ্ধ হননি। অভিনয়জীবনে ৫০ জন নায়িকার বিপরীতে নায়কের ভূমিকায় সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন। অভিনয় করেছেন প্রায় আড়াইশ সিনেমায়। ফাইট ডিরেক্টর, প্রযোজক ও পরিচালক হিসেবেও তিনি সমান সফল। ১৭টি চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন, যার সবগুলোই সুপারহিট। একটা সময় ঈদ মানেই ছিল রুবেলের সিনেমা। দীর্ঘ সময় পর ঈদে আবারও পর্দায় দেখা যাবে এই নায়ককে। রাইজিংবিডির ঈদ আয়োজনে রুবেলের মুখোমুখি হয়েছেন রাহাত সাইফুল।

রাহাত সাইফুল : অনেক বছর পর ঈদে আপনার সিনেমা আসছে। প্রত্যাশা কী?

রুবেল : আসলে ওভাবে আমি বলতে পারছি না আমার সিনেমা ঈদে আসছে। কারণ ‘কিল হিম’ সিনেমায় আমি মাত্র আটটা সিনে কাজ করেছি। গেস্ট আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছি। ঈদে আমার সিনেমা রিলিজ হচ্ছে এটা আমার বলাটা ঠিক হবে না। 

রাহাত সাইফুল : সাউথে বা বলিউডে নব্বই দশকের অনেক তারকার সিনেমা এখনও মুক্তি পায় এবং দর্শক গ্রহণ করে।

রুবেল : আমাদের দেশে প্রেজেন্টশনটা সেভাবে হয় না। আমরা যদি সাউথে বা আমাদের পাশের রাষ্ট্রের দিকে তাকাই দেখা যাবে যে তাদের প্রেজেন্ট করা বয়সটাকে সেভাবে দেখে না। কিন্তু আমরা সেভাবে দেখি। ‘কিল হিম’ সিনেমায় অনেক রিকোয়েস্ট করার পর কাজটি করেছি। ইকবাল আমার যেহেতু ছোট ভাই। তবে যতটুকু করেছি খারাপ লাগবে না। আমার সিনেমা রিলিজ হচ্ছে এটা বললেই আমার একটা কমপিটিশনের মধ্যে যেতে হবে। আমি প্রতিযোগিতায় যেতে রাজি না।

রাহাত সাইফুল : নব্বই দশকে সিনেমা মুক্তিতে শিল্পীদের ভূমিকা কেমন থাকতো?

রুবেল : ঈদে আমার একসঙ্গে দুই সিনেমা রিলিজ হয়েছে। তিন সিনেমাও হওয়ার কথা ছিলো। আমি অনুরোধ করে একটা বন্ধ রেখেছি। এমন ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু এখনকার সিনেমা রিলিজ নিয়ে আর্টিস্টদের যে মনোবৃত্তি দেখছি তা মোটেও ভালো না। তাদের কথার ধরন খুব ভালো মনে হচ্ছে না। কারো প্রতি কারো সম্মান নেই, শিষ্টাচার নেই। কেন যেন মনে হচ্ছে আমরা একে অপরের সঙ্গে বুঝি ঝগড়া করার জন্য বা ক্ষতি করার জন্য বাস করি। আসলে এটা উচিত না। আমার কথা হলো- আমরা যা কিছু করি সেটা হবে স্ক্রিনে। এর বাইরে কেন হবে? বাইরে একে অপরের প্রতি সম্মান দেখানো উচিত। মার্জিত হওয়া উচিত। যেটা কিন্তু আমরা একদমই করছি না। 

রাহাত সাইফুল : সিনেমার মুক্তির সময় কীভাবে পাবলিসিটি করতেন?

রুবেল : আসলে আমরা শিল্পীরা পাবলিসিটি করতাম না। পত্রিকায় কারো বিজ্ঞাপন তিন দিন গিয়েছে আবার কারো সাত দিন- এটাই ছিলো পাবলিসিটি। ট্রেইলার আর পোস্টারে সিনেমা চলেছে। আমাদের এসব নিয়ে ভাবতে হয়নি। এখন যুগ চেঞ্জ হয়েছে। পাবলিসিটির ধরনও পরিবর্তন হয়েছে। 

রাহাত সাইফুল : বর্তমান সময়ের শিল্পীদের নিয়ে আপনার পরামর্শ কী থাকবে?

রুবেল : নিজের সিনেমার প্রশংসা করুন। কিন্তু অন্য সিনেমার বদনাম করে নয়। অপরকে ছোট করে নিজেকে বড় কিরার কিছু নেই। বাইরের লোক যেন আমাদের নিয়ে সমালোচনা করতে না পারে। 

রাহাত সাইফুল : ঈদের দিন কীভাবে কাটলো?

রুবেল : ঈদের সকালে নামাজ পরে উত্তরায় গিয়ে মা’র কবর জিয়ারত করেছি। এটা প্রতি বছরই করা হয়। এরপর বড় ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করি। সারাদিন ছাত্র-ছাত্রীরা আসে, ওদের সঙ্গেও দেখা করি। এবার আমার ছেলে ও ছেলের বউ ইংল্যান্ড থেকে এসেছে। এবার ঈদটা ছেলে ও ছেলের বউয়ের জন্য একটু স্পেশাল। ওদের সঙ্গেই সময় কাটছে।  

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়