ঢাকা     শনিবার   ২০ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৭ ১৪৩১

‘ইলিয়াস কাঞ্চনের জন্যই আমরা কাজ করতে পারিনি’

প্রকাশিত: ১৯:১৩, ৪ মার্চ ২০২৪  
‘ইলিয়াস কাঞ্চনের জন্যই আমরা কাজ করতে পারিনি’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২০২৪ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন শুরু থেকেই বিভিন্ন সময়ে সমালোচিত হয়েছে। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে জায়েদ-নিপুণের দ্বন্দ্ব আদালত পর্যন্ত গড়ায়। বিষয়টির সুরাহ হওয়ার আগেই বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। সর্বশেষ কমিটির দৃশ্যমান কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই। কার্যনিবার্হী পরিষদের সদস্য সীমান্তের দাবি— সংগঠনটির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনের কারণেই কাজ করেতে পারেননি তারা।

অভিনেতা সীমান্ত আহমেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘সভাপতির অনুমতি ছাড়া কিছুই করা সম্ভব না।’

সীমান্ত বলেন, ‘যখন আমাদের শিল্পীরা জিজ্ঞাসা করেন, অনেক আশা নিয়ে তোমাদের ভোট দিয়েছি। তোমরা কি করেছো? আসলে তখন বলার মতো মুখ থাকে না। আসলেই তো সেভাবে কিছু করা হয়নি, করতে পারিনি। ঈদের পরে একটা প্রোগ্রাম হলো না। আমি তাদের বলেছি, অনুষ্ঠান করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সভাপতি সাহেব রাজি ছিলেন না।’

এর আগে মিশা-জায়েদ কমিটি গত কয়েক বছর ধরে এফডিসিতে শিল্পীদের জন্য কোরবানি দিতেন এবং মাংস শিল্পীদের বাসায় পৌঁছে দিতেন। বর্তমান কমিটি এফডিসিতে কোরবানি দেয়া বন্ধ করে দেন। বিষয়টি নিয়ে শিল্পীদের প্রশ্নের মুখামুখি হতে হয়। তা উল্লেখ করে সীমান্ত বলেন, ‘কেন কোরবানিতে গরু জবাই করা হলো না? এই ধরণের প্রশ্নের মুখামুখি হতে হয়। আমরাও চেয়েছিলাম গরু জবাই দেয়া হোক। আমাদের সভাপতি সাহেবের অমতের কারণে তা আমরা করতে পারিনি।’

এফডিসিতে কোরবানি দেওয়া নিয়ে সংগঠনটির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনের দ্বি-মতের কারণ ব্যাখ্যা করে সীমান্ত বলেন, ‘‘আমাদের সভাপতি সাহেবের প্রশ্ন, ‘আমরা কেন গরু জবাই দেব? ঈদের দিন কে থাকবে? ঈদের দিন সবাইর তো বাসার কাজ আছে।’ এরপরও আমরা একটা পরিকল্পনা করেছিলাম ঈদের পর শিল্পীদের নিয়ে একটা মিলন মেলা করব। এটাও পরে আর হয়ে উঠেনি। আমার মনে হয়, ওটা হলেও এই কথাগুলো শুনতে হতে না। তার (ইলিয়াস কাঞ্চন) অনুমতির জন্যই অনেক জায়গায় আমরা কাজ করতে পারিনি।’’

শিল্পীরা সারা বছর পিকনিকের জন্য অপেক্ষা করেন বলে মনে করেন সীমান্ত। তার ভাষায়, ‘শিল্পীদের কিছু চাওয়া থাকে। যেমন— ঈদ, ইফতার পার্টি, পিকনিক ইত্যাদি। এছাড়া আর কি করার থাকে! এতেই অনেক আনন্দ পান তারা। শিল্পীরা সারা বছর অপেক্ষা করেন কখন আমাদের পিকনিক হবে। পরিবার নিয়ে পিকনিকে যাবেন।’

আগামী ১৯ এপ্রিল শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। আগেই জানা গিয়েছিল, আগামী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না ইলিয়াস কাঞ্চন। শিল্পী সমিতির বাৎসরিক বনভোজনে ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, অনেক দুঃখ নিয়ে শিল্পী সমিতি থেকে বিদায় নিচ্ছেন তিনি।

ঢাকা/রাহাত/শান্ত

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়