ঢাকা     বুধবার   ২৯ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

‘মায়ের বিছানায় আমার চোখের জল পড়তেই নিজেকে সামলে নিই’

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:২৫, ১৫ মে ২০২৪   আপডেট: ১৮:৩৬, ১৫ মে ২০২৪
‘মায়ের বিছানায় আমার চোখের জল পড়তেই নিজেকে সামলে নিই’

ভারতীয় বাংলা টিভি ও চলচ্চিত্রাভিনেত্রী তন্বী লাহা রায়ের মা মারা গেছেন। গতকাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন এ অভিনেত্রীর মা। মাকে হারিয়ে ভীষণভাবে ভেঙে পড়েছেন তন্বী।

বুধবার (১৫ মে) তন্বী তার ফেসবুকে মাকে নিয়ে আবেগগণ স্ট্যাটাস দিয়েছেন। মায়ের জীবনের শেষ সময়ের বর্ণনা দিয়ে এ অভিনেত্রী লেখেন, ‘তুমি দেখেছো আমার প্রথম নিশ্বাস, আমি দেখেছি তোমার শেষ নিশ্বাস। অক্সিজেন মাস্কের ভেতর থেকে জোরে জোরে আওয়াজ করে নিশ্বাস নিতে, আস্তে আস্তে আওয়াজ কমলো। কিন্তু তখনো নিশ্বাস চলছিল।’

মায়ের মৃত্যুর সময়ের বর্ণনা দিয়ে তন্বী লেখেন, “ভাবলাম, এইতো মা আবার লড়ে ফিরছে বোধহয়। কিন্তু খেয়াল করলাম, তোমার চোখের পাতা পড়ছে না। কিন্তু নিশ্বাস চলছে। ডাক্তার এসে বলল, ‘কয়েক মিনিট চলে গেছে।’ এতকিছু করেও বাপি আর নিজেকে সামলাতে পারলো না। হাসপাতালের ৬৮ নাম্বার রুম থেকে বেরিয়ে গেল। আমি মায়ের হাত শক্ত করে ধরে ছিলাম, মাথায় হাত বুলিয়ে দিতে দিতে মাকে দেখছিলাম। দেখলাম, ১০ সেকেন্ড পরপর গলার শিরা উঠছে, মানে মা বেঁচে আছে, নিশ্বাস নিচ্ছে। মায়ের বিছানায় আমার চোখের জল পড়তেই নিজেকে সামলে নিই, তারপর শিরাটা থেমে গেল…।”

মাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করে তন্বী লেখেন, ‘মা… ও মা! এই হাত দিয়েই তো আগলে রাখতে আমাদের, বেরোলে বারান্দায় দাঁড়িয়ে হাত নাড়তে যতক্ষণ পর্যন্ত আমার গাড়িটা দেখা যেত। সবাইকে নিজের হাতে ইউনিক জিনিস বানিয়ে দিতে। এই হাতেই বছরের পর বছর স্টেরয়েড, অ্যাসিড, স্যালাইন সব সহ্য করেছো। তুমি খুব কষ্ট পেয়েছো কিন্তু আমাদের দেখাওনি। নিজের ভাইকে ছোট বয়সে হারিয়েছো। মা-বাবাকে চলে যেতে দেখেছো, এখন তাদের সাথেই আছো নিশ্চয়ই?’

অভিনয় ক্যারিয়ারে বেশ কিছু জনপ্রিয় টিভি সিরিয়ালে অভিনয় করেছেন তন্বী। ‘তুমি রবে নীরবে’ সিরিয়ালের মাধ্যমে জনপ্রিয়তা লাভ করেন। ‘মিঠাই’ সিরিয়ালে তোর্সা চরিত্রে অভিনয় করেন। এছাড়াও অভিনয় করেছেন ‘বেনে বউ’, ‘টেক্কা রাজা বাদশা’, ‘বাক্স বদল’-এর মতো সিরিয়ালে। বেশ কিছু ভারতীয় বাংলা সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন তন্বী। তার অভিনীত ‘আলাপ’ গত মাসে মুক্তি পেয়েছে।

ঢাকা/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়