ঢাকা     শনিবার   ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||  চৈত্র ৩০ ১৪৩০

সাদা বিয়ে

অন্য দুনিয়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৫৮, ২৪ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১১:০৪, ২৪ জানুয়ারি ২০২৪
সাদা বিয়ে

সাদা বিয়ে হচ্ছে ইরানে প্রচলিত এক ধরনের বিয়ে পদ্ধতি। যা এ  শতাব্দীর প্রথম দশকেও ইরানে ছিল না। বলতে গেলে এ ছিল অকল্পনীয় বিষয়। কিন্তু এখন এ রকম বিয়ের সংখ্যা বাড়ছে ইরানে। বিবাহিত দম্পতিদের মতো অবিবাহিত যুবক-যুবতি যখন একসঙ্গে বসবাস করতে শুরু করে ইরানে এই সম্পর্ককে সাদা বিয়ে বলা হয়।

বিবিসির তথ্য, ইরানে বিয়ের অনুষ্ঠান সাধারণত ব্যয়বহুল। এর খরচ দিতে হয় বরের পরিবারকে। আর বিয়ে ভেঙে গেলে স্ত্রীকে 'মোহরানা' হিসেবে যে অর্থ দিতে হয় - তাও দিতে হয় স্বামীকে। এ অংক হয় বেশ বড়, আর তা না দিতে পারলে জেলে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

অধিকাংশ পর্যবেক্ষকই মনে করেন, ইরানে অনেক যুগলই তাড়াহুড়ো করে বিয়ে করতে চায় না । এর কারণ হচ্ছে দেশটির ক্রমবর্ধমান বিবাহবিচ্ছেদের হার। ইরানে প্রতি পাঁচটি বিয়ের একটি বিবাহবিচ্ছেদ হয়। দেশটির রাজধানী তেহরানে বিবাহবিচ্ছেদের হার সবচেয়ে বেশি।

ইরানের আইনে বিয়ের বাইরে কোন নারী-পুরুষের শারীরিক সংস্পর্শ ঘটলে তা দণ্ডনীয় অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হয়। এর জন্য ৯৯টি বেত্রাঘাতের মত শাস্তির বিধান রয়েছে। এ কারণে যে যুগলরা সাদা বিয়ে করেছেন -তারা এটা নানাভাবে গোপন রাখেন যাতে লোকের চোখে তা ধরা না পড়ে।

ইরানের দেওয়ানি আইনের ১১৬৭ ধারা অনুযায়ী, সন্তানের পিতামাতা অবিবাহিত হলে তাদের দম্পতি হিসেবে সন্তানকে রাখার কোনো অধিকার থাকবে না, এবং জন্মনিবন্ধনের সনদে শুধুমাত্র শিশুটির মা তার নাম লিপিবদ্ধ করার অনুরোধ করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ইরানের কর্তৃপক্ষ এভাবে জন্মানো শিশুদের একটি গোপন রেকর্ড রাখে। এসব তথ্য ভবিষ্যতে তাদের কিছু কিছু চাকরিতে নিয়োগ পাবার ক্ষেত্রে বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। তবে দেশটিতে অবিবাহিত যুগলের সংখ্যা কত - তার কোন সরকারি পরিসংখ্যান নেই।

/লিপি

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়