ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

করোনাভাইরাসের অতিপরিবর্তিত ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বেগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:০১, ১৯ আগস্ট ২০২৩   আপডেট: ১৮:০২, ১৯ আগস্ট ২০২৩
করোনাভাইরাসের অতিপরিবর্তিত ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বেগ

করোনাভাইরাসের একটি দ্রুত ও অতিপরিবর্তিত ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপারে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ এই ভ্যারিয়েন্টটি কতদূর ছড়িয়েছে এবং মানবদেহের অ্যান্টিবডি কত দ্রুত ভাঙতে পারে সে সম্পর্কে এখনও পরিপূর্ণ তথ্য পাওয়া যায়নি।

সিয়াটেলের ফ্রেড হাচিনসন ক্যান্সার সেন্টারে ভাইরাল বিবর্তন বিষয়ক গবেষক ডক্টর জেসি ব্লুমের মতে, নিকটতম পূর্বসূরি ওমিক্রন সাব-ভ্যারিয়েন্টের তুলায় বিএ.২.৮৬ নামে পরিচিত নতুন ভ্যারিয়েন্টের স্পাইক প্রোটিনে ৩০টিরও বেশি অ্যামিনো অ্যাসিড পরিবর্তন হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বৃহস্পতিবার বিএ.২.৮৬-কে ‘পর্যবেক্ষণের আওতায় থাকা ভ্যারিয়েন্ট’ হিসাবে মনোনীত করেছে। এটি বিভিন্ন দেশকে ভ্যারিয়েন্টটির ক্রম চিহ্নিত করতে এবং এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলে উৎসাহিত করবে।

বিএ.২.৮৬ এর মাত্র ছয়টি সিকোয়েন্স চারটি দেশে শনাক্তের কথা জানানো হয়েছে। কিন্তু মহামারি বিশেষজ্ঞরা উদ্বিগ্ন যে, এই সিকোয়েন্সগুলো আরও অনেক কিছুর প্রতিনিধিত্ব করতে পারে। কারণ বিশ্বব্যাপী ভ্যারিয়েন্ট পর্যবেক্ষণ বন্ধ হয়ে গেছে।

গত রোববার ইসরায়েলের বিজ্ঞানীরা এই ভ্যারিয়েন্টটি চিহ্নিত করেছেন। তারপর থেকে ডেনমার্ক তিনটি সিকোয়েন্স চিহ্নিতের কথা জানিয়েছে। আরও দুটি সিকোয়েন্স যথাক্রমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে চিহ্নিতের কথা বলা হয়েছে।

স্টেটেনস সিরাম ইনস্টিটিউটের সিনিয়র গবেষক মর্টেন রাসমুসেন বলেছেন, ‘করোনার পক্ষে এত উল্লেখযোগ্যভাবে পরিবর্তন এবং ৩০টি নতুন মিউটেশন বিকাশ করা অস্বাভাবিক। শেষবার যখন আমরা এত বড় পরিবর্তন দেখেছিলাম তখন ওমিক্রন হাজির হয়েছিল।’
 

ঢাকা/শাহেদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়